যারা কামিল শায়েখ উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করা অস্বীকার করে, বিদয়াত- নাযায়িয- হারাম বলে থাকে, তাদের কাছে প্রশ্ন…


১. সম্মানিত হানাফী মাযহাব উনার ইমাম, বিশিষ্ট তাবেয়ী, ইমামে আ’যম হযরত ইমাম আবু হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের ৫ম (পঞ্চম) ইমাম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম বাকির আলাইহিস সালাম উনার এবং পরবর্তীতে উনার সম্মানিত আওলাদ, সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের ৬ষ্ঠ (ষষ্ঠ) ইমাম সাইয়্যিদুনা হযরত জা’ফর ছদিক্ব আলাইহিস সালাম উনার নিকট বাইয়াত হয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে ইমামে আ’যম হযরত ইমাম আবু হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেন-
لولا سنتان لـهلك ابو نعمان
অর্থ : “(আমার জীবনে) যদি দু’টি বৎসর না পেতাম, তবে আবূ নু’মান (আবূ হানীফা) ধ্বংস হয়ে যেতাম।” (সাইফুল মুকাল্লিদীন, ফতওয়ায়ে ছিদ্দীক্বিয়া)

অর্থাৎ আমি হযরত আবূ হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি যদি আমার সম্মানিত দু’জন শায়েখ আলাইহিমাস সালাম উনাদের নিকট বাইয়াত না হতাম, তবে আমি ধ্বংস বা বিভ্রান্ত হয়ে যেতাম।

২. হুজ্জাতুল ইসলাম হযরত ইমাম গাজ্জালী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি হযরত খাজা আবু আলী ফারমুদী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার নিকট বাইয়াত হয়েছেন।

৩. মানতিকের ইমাম হযরত ইমাম ফখরুদ্দীন রাযী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি হযরত নজিবুদ্দীন কুবরা রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার নিকট বাইয়াত হয়েছেন।

৪. হযরত আবু বকর শিবলী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি ৪০ (চল্লিশ) হাজার সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনাদের হাফিয ছিলেন, তিনি ৪০০ (চার শত) উস্তাদ উনাদের নিকট পড়াশুনা করেছেন, তিনি তাফসীর শরীফ, ফিক্বহ, ফতওয়া শিক্ষা করেছেন। তিনিও সাইয়্যিদুত্ব ত্বয়িফা হযরত জুনায়িদ বাগদাদী রহমতুল্লাহি আলাইহি রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার নিকট বাইয়াত হয়েছেন।

এটা চিরন্তন সত্য যে, পৃথিবীর সমস্ত ওলীআল্লাহ উনারা প্রত্যেকেই কামিল শায়েখ বা হাক্কানী ওলীআল্লাহ উনার নিকট বাইয়াত হয়েছেন। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন কোন ওলীআল্লাহ নেই যিনি কামিল শায়েখ উনার নিকট বাইয়াত হননি।

এখন, তাহলে যারা বাইয়াত হওয়া অস্বীকার করে, বিদয়াত বা নাজায়েয হারাম বলে থাকে,, তবে তারা কি বলতে চায়- ইমামে আ’যম হযরত ইমাম আবু হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি, হুজ্জাতুল ইসলাম হযরত ইমাম গাজ্জালী রহমতুল্লাহি আলাইহি, হযরত আবু বকর শিবলী রহমতুল্লাহি আলাইহি, হযরত ইমাম ফখরুদ্দিন রাযী রহমতুল্লাহি আলাইহি সহ সমস্ত হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম যাঁদেরকে স্বয়ং খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি এবং উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা মুহব্বত মুবারক করেন, উনারা যাাঁদের প্রতি সন্তুষ্ট হয়েছেন, সেই সমস্ত হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনারা প্রত্যেকেই হারাম, বিদয়াত বা নাযায়েজ কাজ করছেন? নাউযুবিল্লাহ্ মিন যালিক। এটা বললে কি করো ঈমান থাকবে?? কস্মিনকালেও ঈমান থাকবেনা বরং কাট্টা কাফির, চির জাহান্নামী হবে।

মূলতঃ ওলীআল্লাহ বিদ্ধেষীরাই বাইয়াত হওয়া অস্বীকার করে। আর ওলীআল্লাহ বিদ্ধেষীরাই মহান আল্লাহ পাক উনার শত্রু। এদের থেকে নিজেদের ঈমান-আক্বীদা-আমল হিফাযত করতে হবে।

মহান আল্লাহ পাক তিনি সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত উছীলা মুবারকে আমাদের সবাইকে বদ আক্বীদা, বদ মাযহাব, বাতিল ফিরকার লোকদের থেকে হিফাযত করুন। আমীন

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে