যারা ছবি তুলবে, আঁকবে বা ছবি তুলতে আঁকতে উৎসাহ প্রদান করবে তাদের জন্য পরকালে কঠিন শাস্তি নির্ধারিত


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র সূর হাশর শরীফ উনার ৭নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি তোমাদের জন্য যা নিয়ে এসেছেন, তা তোমরা আঁকড়ে ধরো এবং যা থেকে বিরত থাকতে বলেছেন তা থেকে তোমরা বিরত থাকো। এ বিষয়ে মহান আল্লাহ পাক উনাকে ভয় করো। নিশ্চয় মহান আল্লাহ পাক তিনি কঠিন শাস্তিদাতা।”
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “নিশ্চয়ই ক্বিয়ামতের দিন আর ওই ব্যক্তির সবচেয়ে কঠিন শাস্তি হবে, যে ব্যক্তি প্রাণীর ছবি আঁকে বা তোলে।”
উপরোক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ এবং পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের মধ্যে মহান আল্লাহ পাক এবং উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা জানিয়ে দিয়েছেন, যারা ছবি তুলবে, আঁকবে বা এ সমস্ত কাজে উৎসাহ প্রদান করবে বা এ সমস্ত কাজ করতে বাধ্য করবে, তারা সকলেই জাহান্নামের কঠিন শাস্তি ভোগ করবে, যা তারা দুনিয়াতে কখনোই উপলব্ধি করতে পারবে না। সুতরাং বর্তমানে যারা ছবি তুলছে বা আঁকছে বা এ সকল কাজে উৎসাহ প্রদান করছে তাদেরকে এখনই সতর্ক হয়ে যেতে হবে। কারণ দুনিয়া হচ্ছে ক্ষণস্থায়ী। চক্ষু বন্ধ হয়ে গেলে পরকাল। আর পরকালে তার এই হারাম কাজের জন্য রয়েছে কঠিন শাস্তি, যদিও সে দুনিয়াতে নিজেকে বেনিয়াজ ভাবছে ও মহান আল্লাহ পাক উনার অবাধ্য হচ্ছে। কিন্তু পরকাল তো আর অস্বীকার করা কিছু নয়, তাকে এক দিন না একদিন পরকালে শাস্তি ভোগ করতেই হবে। আর মহান আল্লাহ পাক তিনি কাউকেই পরওয়া করেন না।
অপরদিকে যারা মহান আল্লাহ পাক এবং নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের বিরোধিতা করে হারাম ছবিকে জায়িয বলে ফতওয়া দিচ্ছে, তাদের জন্য মহান আল্লাহ পাক উনার একখানা পবিত্র আয়াত শরীফই যথেষ্ট। মহান রব্বুল আলামীন তিনি পবিত্রতম সূরা নিসা শরীফ উনার ১৪নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “যে ব্যক্তি মহান আল্লাহ পাক এবং নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের বিরোধিতা করবে বা নাফরমানি করবে এবং মহান আল্লাহ পাক উনার নির্ধারিত সীমালঙ্খন করবে সে জাহান্নামে প্রবেশ করবে, সেখানে সে চিরস্থায়ী বসবাস করবে এবং তার জন্য রয়েছে লাঞ্ছনাদায়ক শাস্তি।”
মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সবাইকে হারাম ছবি এবং জাহান্নামের কঠিন আযাব থেকে হিফাযত করুন। (আমীন)

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে