যে আমলে সম্পদ ও হায়াত বৃদ্ধি পায়, বালা-মুসিবত কেটে যায় !


হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু কোন একদিন বাহির থেকে ঘরে আসলে হযরত ফাতেমা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা তিনি বললেন, আমি এ সূতাগুলো কেটেছি। আপনি এগুলো বাজারে নিয়ে বিক্রি করে আটা কিনে আনুন, যেন হযরত হাসান রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু ও হযরত হোসাইন রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা অানহু উনাদেরকে রুটি বানিয়ে খাওয়াতে পারি। হযরত আলী রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি সূতা বাজারে নিয়ে গেলেন এবং ছয় টাকায় বিক্রি করলেন। অতঃপর সেই টাকা দিয়ে কিছু ক্রয় করার মনস্থ করলেন। ইত্যবসরে এক ভিক্ষুক হাঁক দিল।
 
হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু সেই টাকা সেই ভিক্ষুককে দিয়ে দিলেন। এর কিছুক্ষণ পর আর এক বেদুইন আসলো, তার কাছে একটি বড় মোটা তাজা উষ্ট্রী ছিল। সে বললো, হে আলী ! এ উষ্ট্রীটি ক্রয় করবেন। হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বললেন আমার কাছে টাকা নেই। বেদুইন বললো বাকীতে নিয়ে নিন, এ বলে উষ্ট্রীটির রশি উনার হাতে দিয়ে চলে গেল।
 
কিছুক্ষন পর অপর আর একজন বেদুইন উপস্থিত হয়ে বললো, হে আলী ! এ উষ্ট্রী বিক্রি করবেন? হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি বললেন নিয়ে নাও। নগদ তিনশ নিন, এ বলে তিনশ দিয়ে বেদুইন উষ্ট্রীটি নিয়ে চলে গেল। এরপর হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি প্রথম বেদুইনকে তালাশ করলেন কিন্তু পাওয়া গেল না। অগত্যা ঘরে ফিরে আসলেন। ঘরে এসে দেখলেন যে, হযরত ফাতেমা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা উনার পাশে হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বসে আছেন। হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনাকে দেখে মুচকি হাসি মুবারক হেসে বললেন, হে আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু! উষ্ট্রীর কাহিনী আপনি নিজে শুনাবেন, নাকি আমি শুনাবো ! হযরত আলী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি আরয করলেন, ইয়া হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আপনি-ই শুনান।
হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বললেন, প্রথম বেদুইন ছিলেন হযরত জিবরীল আলাইহিস সালাম এবং দ্বিতীয় বেদুইন ছিল হযরত ইসরাফীল আলাইহিস সালাম এবং উষ্ট্রীটি ছিল জান্নাতের, যেটার উপর জান্নাতে হযরত ফাতেমা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহা তিনি আরোহণ করবেন।
আল্লাহ পাক উনার কাছে আপনার দান সেই ছয় টাকা যা ভিক্ষুককে দিয়েছন, খুবই পছন্দ হয়েছে এবং আল্লাহপাক আপনাকে দুনিয়াতে উষ্ট্রীর ক্রয় বিক্রয়ের বাহানায় এর প্রতিদান দিয়েছেন।
 
(সুবহানাল্লাহ)
 
উপরের ঘটনা দ্বারা দুটি বিষয় প্রতিপাদিত হলো, হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইলমে গইব উনার অধিকারী, উনার কাছে কোন কিছুই লুকায়িত নেই। ২য়ত্ব, দান করার পুরস্কার স্বয়ং আল্লাহপাক নিজে বান্দাদেরকে দিয়ে থাকেন।
Views All Time
2
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে