রজবুল আছম্ম মাস উনার পহেলা রাতে নিশ্চিতভাবে দোয়া কবুল হয়।


পবিত্র শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছম্ম মাস উনার পহেলা রাতে নিশ্চিতভাবে দোয়া কবুল হয়। তাই সকল মুসলিম উম্মাহ উনাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে- এ মুবারক রাতে পবিত্র মীলাদ শরীফ ও পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ পাঠ করে বিশেষভাবে দোয়া-মুনাজাত করা এবং পরের দিন রোযা রাখা।

পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “যে মুসলমান পুরুষ-মহিলা উনারা মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক লাভের উদ্দেশ্যে পবিত্র শাহরুল্লাহিল হারাম রজবুল আছম্ম মাস উনার কোনো এক রাত ইবাদতে কাটাবে এবং দিনে রোযা রাখবে, মহান আল্লাহ পাক তিনি ওই বান্দা-বান্দী উনাদের আমলনামায় পূর্ণ এক বৎসর রাতে ইবাদত করার ও দিনে রোযা রাখার ছওয়াব লিখে দিবেন। সুবহানাল্লাহ!

এ মুবারক রাতে জাগ্রত থেকে যার যা নেক দোয়া, নেক আরজু রয়েছে তা বা’রে ইলাহী উনার নিকট পেশ করা। তবে দৃঢ়তার সাথে খালিছভাবে তা চাইতে হবে। কোনো প্রকার সন্দেহ পোষণ করা যাবে না। ইয়াক্বীন রাখতে হবে, ‘আমার সব দোয়া এবং সব আরজুই মহান আল্লাহ পাক তিনি অবশ্যই কবুল করবেন এবং অবশ্যই পূরণ করে দিবেন।’ এ মুবারক রাতে খাছভাবে পবিত্র মীলাদ শরীফ পাঠ ও পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ পাঠ করে তওবা-ইস্তিগফার ও দোয়া-আরজি দ্বারা মুসলমান তার ব্যক্তিগত, সামাজিক ও আন্তর্জাতিকভাবে সব বালা-মুছীবত থেকে সহজেই মুক্তি পেতে পারে।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে