রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম পরিবর্তন ও কিছু যৌক্তিক আলোচনা


আজব এক ইস্যুকে বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রের টপ নিউজ মিডিয়ায় হাইলাইট করা হচ্ছে। বলা হচ্ছে যে, বাংলাদেশের রাষ্ট্রধর্ম ইসলামকে পরিবর্তন করতে হবে। তবে ওই একই খবরে এটাও বলা হচ্ছে যে বাংলাদেশের ৯২% এর অধিক জনসংখ্যা মুসলমান। (দেখতে পারেন-http://goo.gl/npxbeC)

রাষ্ট্রধর্ম পরিবর্তন করার পেছনে তারা যুক্তি দেখিয়েছে যে এদেশে নাকি বেহিসাবে নাস্তিক, হিন্দু ও শিয়া হত্যা(!) করা হয়। (দেখতে পারেন- http://goo.gl/jlPz2f)

এদের অন্তঃসার-শূন্যতার প্রমান হিসেবে বলা লাগে যে, শিয়া জনগোষ্ঠী কিন্তু মুসলিম। রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম যদি বাদ দেয়া হয় তবে শিয়া মুসলমানরাও কিন্তু একই পরিমান কষ্ট পাবে যতটা পাবে সুন্নি মুসলমানরা।

প্রকৃতপক্ষে বাংলাদেশের ৯৮% জনগন মুসলমান। এখন বলা লাগে যে, “গণতন্ত্র বলে তো একটা কথা আছে।” গণতন্ত্র বলে যে, দেশের জনগণই সকল ক্ষমতার উৎস। অর্থাৎ দেশের ৫১% অথবা তার বেশী জনগন যেটা বলবে ওটাই প্রযোজ্য হবে। সেখানে যদি ৯৫-৯৮% অথবা তার বেশী জনগণ একটি ধর্মকে সমর্থন দিয়ে থাকে তবে সরকার ও বিচার বিভাগেরও সাধ্য নেই যে তার বিরুদ্ধে মত দিবে। তবে হ্যাঁ, জোর করে দিলে সেটা আলাদা ব্যাপার। স্বৈরাচারী শাসন ব্যবস্থার আশংকাকে যদি বাদ দেয়া হয়, তবে কোন অবস্থাতেই মুসলিম সর্বস্ব রাষ্ট্র বাংলাদেশে ইসলামকে রাষ্ট্রধর্ম হতে বরখাস্ত করা তো দুরের ব্যাপার, এই কথা উচ্চারন করাও সাধারণ জনগনের ধর্মানুভুতিতে জোরদার আঘাত বৈ নয়।

12800167_1115416531826149_436132794013726721_n
আর গুটিকয়েক নাস্তিক ও হিন্দু-খ্রিস্টানরাই কিন্তু বিশ্বব্যাপী গণতন্ত্রের দালালি করে থাকে। এখন এরা যদি গণতন্ত্রবিরোধী কথা বলে বেড়ায়, তবে তাদের ভাবমূর্তি বুঝতে বেশী কষ্ট হবার কথা নয়। এই সুযোগ-সন্ধানী সমাজের কীটগুলি দিনকয়েক আগেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, গদিনশীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক শিক্ষক হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মত বাংলাদেশ ও বাঙ্গালী জাতির অন্যতম প্রধান নেতৃবৃন্দের নামে কুৎসা রটনা করেছে। এমনকি ধর্মপ্রান প্রধানমন্ত্রীর শালীন পোশাক-আশাকের বিরুদ্ধাচরন করতেও ছাড়ে নি। (দেখতে পারেন আমার একটি পছন্দনীয় লিখা- https://goo.gl/8PQdfd)

তবে দেশের জনগণ যেভাবে দিনে দিনে ইসলাম ধর্মের শিক্ষা ভুলে খেলাধুলা, নাচ-গান, টিভি-সিনেমা ইত্যাদির পেছনে উঠেপড়ে লেগেছে, তাতে দেশের রাষ্ট্রধর্ম কি ইসলাম নাকি সেক্যুলারিজম নাকি সরাসরি হিন্দু ধর্ম ঘোষণা করা হল তাতে তাদের মোটেও মাথাব্যথা থাকবে না। তাদের ধর্ম-কর্ম, দেশপ্রেম আর জাতিসত্বা- সমস্ত কিছুই ক্রিকেট ব্যাট-বলের সংঘাতের মাঝেই সীমাবদ্ধ।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে