লক্বব বা উপাধি নিয়ে কথোপকথন!


লক্বব বা উপাধি নিয়ে কথোপকথন
আল হিলাল

ডাক্তার: আচ্ছা, অনেকের নামের সাথে অনেক লক্বব দেখা যায়। যেমন হাফিযুল হাদীছ, কুতুবুল আকতাব- এরকম আরো অনেক। বিষয়টি কি নিজের ঢোল নিজে পিটানোর মতো ব্যপার নয় কি?
আল হিলাল: আচ্ছা তুমি নামের আগে ডাক্তার লিখছো। এটা কি নিজের প্রচার নয়? এছাড়াও আছে গইইঝ, ঋজঈঝ, গঝ, গউ এগুলো কি নিজের প্রচার নয়?
ডাক্তার: আমি ডাক্তার তাই লিখছি। আর ওগুলো আমার ডিগ্রি।
আল হিলাল: একই রকম ব্যাপার। একজন ওলীআল্লাহ তিনি অনেক যোগ্যতার অধিকারী থাকেন। তখন উনার যোগ্যতা প্রকাশ করতে ঐ লক্ববসমূহ ব্যবহার হয়।
ডাক্তার: আমারতো সার্টিফিকেট আছে, আমি দেখাতে পারবো কিন্তু যারা লক্বব ব্যবহার করছেন তারা কি দেখাতে পারবেন?
আল হিলাল: আপনার সার্টিফিকেট যেমনি দেখানো সম্ভব, তেমনি ওলীআল্লাহ উনাদের লক্বব লৌহে মাহফুজে লিখিত, তা দেখানো সম্ভব। কিন্তু দেখার যোগ্যতা থাকতে হবে।
ডাক্তার: আমার সার্টিফিকেট দেখতে যোগ্যতা লাগে না কিন্তু সেখানে দেখতে এত যোগ্যতা লাগার মানে হচ্ছে বিষয়টি সঠিক নয়?
আল হিলাল: আপনি যে সার্টিফিকেট দেখাবেন তা একটি কাগজ ভিন্ন কিছু নয়। আমি কি করে ভাববো এই কাগজের অধিকারী ব্যক্তি আসলেই যোগ্যতার অধিকারী?
ডাক্তার: সেটা আমার সাথে কথা বললেই বোঝা সম্ভব। আমার দ্বারা চিকিৎসা নিলেই সম্ভব।
আল হিলাল: তাহলে যাঁর নামের সাথে লক্বব আছে; উনার কাছে গেলে, ঊনার সাথে কথা বললেই বোঝা যাবে তিনি ঐ লক্ববসমূহ ব্যবহারে পরিপূর্ণযোগ্য এবং তিনি একজন ওলীআল্লাহ। বরং মনে হবে ঐ যোগ্যতা প্রকাশের লক্ববসমূহেরও তিনি অনেক ঊর্ধ্বে।

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে