শরীয়তের বিষয়গুলো কারো কাছে কঠিন মনে হলে, তার করণীয় কি?


পরিচিত অপরিচিত অনেক মহিলার মুখে একটা আক্ষেপ শুনেছি, “আপনারা কী সুন্দর পর্দা করেন! দ্বীন ইসলামের নিয়ম কানুন মেনে চলেন! আমিও তো কত চাই এভাবে চলতে, কিন্তু পারিইনা! একবেলা নামায পড়লে আরেকবেলা ছুটে যায়! নেকাব দিলে দম বন্ধ হয়ে আসতে চায়! কীভাবে যে নাযাত পাব?”
 
সবাই হিদায়েত পেতে চায়, সবাই নাযাত পেতে চায়। কিন্তু নফস আর শয়তানের বাঁধাকে অতিক্রম করে সেই মঞ্জিলে মকসুদে পৌঁছা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয়না। শয়তান শরীয়তকে কঠিন আর দুনিয়ার চাকচিক্যকে আকর্ষণীয় রূপে উপস্থাপন করে। এই জাল থেকে বেরিয়ে আসার উপায় কি? উপায় হল, যিকরুল্লাহ!
 
হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে বুসর রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার হতে বর্নিত, একদা এক ব্যক্তি হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নিকটে এসে আরজু করলেন, ইয়া রসুলুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! শরীয়তের বিষয়গুলো আমার কাছে অত্যধিক কঠিন মনে হচ্ছে। আমাকে দয়া করে এমন একটি উপায় অবহিত করুন, যাতে আমি ইস্তিকামত (অবিচল)থাকতে পারি। হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করলেন, আপনার জিহ্বাকে সবসময় মহান আল্লাহ্‌ পাক উনার যিকির দ্বারা সজীব রাখবেন। (আবু দাউদ, তিরমিযী, ইবনে মাজাহ) সুবহানআল্লাহ!
 
মহান আল্লাহ্‌ পাক আমাদের সবাইকে দায়িমীভাবে যিকিরে মশগুল থাকার তৌফিক দান করুণ!
Views All Time
3
Views Today
8
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+