‘’থাবা বাবা ওরফে রাজিব’’ নাস্তিক নয়, সে ছিল একজন ইসলাম বিদ্বষী, মুরতাদ।


শাহবাঘের আন্দোলনে যারা আয়োজক তাদের অন্যতম একজঅনের নাম আহমেদ রাজিব হায়দার। তার ব্লগের নাম ‘’থাবা বাবা-ধর্মকারী’’ নিজেকে অনলাইন ব্লগার হিসাবে পরিচয় দিলেও সে একজন কট্টর ইসলাম ও মুসলিম বিদ্বেষী,বাম এক্টীভিষ্ট। শুধু রাজিব নয়, আসিফ মহিউদ্দীন শাহবাগ আন্দোলনের অন্যতম একজন এবং স্বঘোষিত নাস্তিক। সব্বাই তাদেরকে নাস্তিক বললেও তারা আসলে নাস্তিক নয়,তারা ইসলাম বিদ্বেষী মুরতাদ। তাদের অবস্থান শুধু ইসলামের বিরুদ্ধে, অন্য কোন ধর্মের বিরুদ্ধে নয়।

বর্তমান সরকার এসব নাস্তিক ও মুরতাদদেরকে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে মদদ দিচ্ছে,তাদের পক্ষে সাফাই গাচ্ছে। এমনকি ঐ মুরতাদ রাজীবকে জাতীয় সংসদে বাকশালী আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্যরা দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের প্রথম শহীদ এর খেতাবও দিয়েছে। সরকার কি অন্ধ হয়ে গেছে নাকি মূর্খ হয়েই আছে? সরকার বলছে যে রাজিবের ব্লগটি তার মৃত্যুর কিছুক্ষণ পরেই খোলা হয়েছে, হায়রে মূর্খের দল!!! একটি ব্লগ কি ২ ঘণ্টায় বানানো সম্ভব? ডোমেইন টি আপডেট হতেও সর্বনিম্ন ২৪ ঘণ্টা লাগে। আরেকটি মহল বলছে রাজিব নিষ্পাপ। ঠিক আছে সব মেনেন নিলাম যে রাজিবের ব্লগ ফেক ছিল, তাহলে রাজিবের ফেসবুক একাউন্ট কি ফেক ছিল? সেখনে কিছু নমুনা আজও রয়ে গেছে কালের সাক্ষী হয়ে। সরকারের কাছে আমার একটা প্রশ্ন নাস্তিক-মুরতাদদের বাচাতে এত আগ্রহী কেন তারা?তারা কি মুসলমানের অনুভূতিটুকো বঝে না? ৯৫% মুসলমান এর দেশ বাংলাদেশ। কোন নাস্তিক-মুরতাদ এর ঠায় নেই এ দেশে। এখন ই সময় এদের বিরোদ্ধে আন্দোলন ঘড়ে তোলার। এত কিছু প্রকাশ্য প্রমাণ থাকা স্বত্বেও একশ্রেণীর দাজ্জাল নামীয় বোবা শয়তান তথা সরাকারি দলের সাথে জোট করা ধর্মব্যাবসায়ী নেতারা চুপ করে আছে,কেউ কেউ রাজনৈতিক ফায়দা লুটার জন্য নাস্তিক-মুরতাদ ব্লগারদের পক্ষে অবস্থান নিচ্ছে,নাস্তিকদের পক্ষে সাফাই গাইছে। আবার ওরাই মুসলমান বলে পরিচয় দেয় । লজ্জা থাকা উচিত। আজ প্রশ্ন উঠেছে নাস্তিকদের বিরোদ্ধে কিন্তু এক শ্রেণীর লোভী বলছে এরা রাজাকার , জামাত শিবির। আরে বোকার দল নাস্তিকের বিরোদ্ধে কথা বলা আর মুসলমান , টুপি, দাড়ি যদি রাজাকার,জামাত শিবির হয় তাহলে তো রাজাকার,জামাত,শিবিরকে তো আরও উপরে তুলে দিলাম আমরা। এটা রাজাকার,জামাত,শিবির এর আন্দোলন নয় । এটা মুসলমানদের অস্ত্যিতের আন্দোলন। ইসলামের পক্ষের আন্দোলন। তোমরা জামাত-শিবির, রাজাকারের বিচার কর।
তবে রাজাকারের নিরপেক্ষ বিচার হতে হবে, এতে আওয়ামীলীগ এ লুকিয়ে থাকা রাজাকারদেরও বিচারের আওতাধীন করতে হবে। একটা ইস্সু তৈরী করে ইসলামকে অবমাননা করবে তা আমরা মেনে নেইনি কোনদিন আর নেবও না। আজ যারা বোবা শয়তান সেজে আছ , দেখেও না দেখার ভান করছ। আর কতদিন থাকবে। দেয়ালে যখন পিঠ ঠেকে যাবে তখন হিটলারের মত আত্যহত্ত্যা করবে। এখনও সময় আছে ইসলামকে নিয়ে যারা বাড়াবাড়ি করছে তাদের বিরোদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলো। মুসলমানদের অস্তিত্য নিয়ে হাসি তামাসা করছে একশ্রেণীর নাস্তিকেরা। যাদের আবার মুসলমানীয় কায়দায় জানাজা হয়। ভাবতে অবাক লাগে কি হচ্ছে এই সব। এটা কি একটা মুসলিম দেশ না ইহুদি , খৃষ্টানদের দেশ। আর শেষ কথা হচ্ছে মুসলমান কখনও আগ বাড়িয়ে আক্রমন করে না । আক্রমন আসলেই শুধু তার জবাব দেয় আর এর জবাব এমন হয় যা নবী রাসূলদের যুগ হতে অনেক প্রমাণ আছে। তাই মুসলমানদের ক্ষেপিয়ে তুলো না। ব্লগার রাজিব যে একটা নাস্তিক তার আর কি প্রমান লাগবে তোমাদের। সব্বাই ক্লান্ত হয়ে গেছে প্রমান দিতে দিতে। না তোমরা এই কথায় বিশ্বাসী যে ” তোমরা যতই বোঝাও আর প্রমান দাও আমি তো বুঝবনা” এই বিশ্বাসী হয়ে থাকলে। পড়ে থাক এই নিয়ে । অহেতুক ঢুসাঢুসি করতে আসো না।

প্রিয় পাঠকদের জন্য নিহত রাজিব হায়দারের ‘’থাবা বাবা’’ ব্লগের কিছু লেখা /পোষ্ট এখানে সংযোক্ত করলাম
রাজিব হায়দারের ‘’থাবা বাবা’’ ব্লগ থেকেঃ

১)আমাদের প্রিয় নবি মুহাম্মাদ সাঃ কে “আহাম্মক” বলে গালি দিয়েছেন এ নাস্তিক রাজিব। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
২)হেরা গুহাকে নারির গোপন অঙ্গের সাথে তুলনা করেছেন এ কুলাংগার রাজিব। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
৩)নামাজের সিজদা কে পুরুষাঙ্গের যন্ত্রণার কারনে উপুড় হয়ে পড়ে থাকার সাথে তুলনা করেছিলেন মুরতাদ রাজিব। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
৪) মুসলিমদের ‘’টেররিস্ট’’ আখ্যা দেয়া অন্যায়, তাদের জন্য উপযুক্ত নাম হল ‘’সিরিয়াল কিলার’’। (posting date 9 July 2011)
৫)আল্লা নাকি জোড়া মিলায় নারী-পুরুষ পৃথিবীতে পাঠাইছে… কারণ স্বামীর পাঁজরের হাড় দিয়েই স্ত্রীকে বানানো হয়েছে। একজনের পাঁজরের হাড়ে তৈরি স্ত্রী যাতে অন্যের হাতে না যায়, তাই আল্লা জোড়া মিলিয়েই পাঠায়। কিন্তু একসাথে ৪ খানা স্ত্রী রাখার মানে কী তাহলে? পুরুষের পাঁজরে হাড্ডি ৪ খানা কম, নাকি জোর-যার-মুল্লুক-তার নিয়মে অন্যের হাড় দখল করে খাবার ভেস্তী পারমিশান? (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
৬)হে ঈমান্দার বান্দাসকল, তোমাদের জন্য অজস্র রসময় কথা গুপ্ত রহিয়াছে হাদিস শরিফে। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)

সহীহ আল-ধর্মকারী
ইছলাম একটি পূর্ণাঙ্গ জীবনবিধান বিধায় যৌনাঙ্গও তার এখতিয়ারভুক্ত। ফলে মুছলিমদের শয্যায় ও বাথরুমেও ইছলাম অনিবার্যভাবে উপস্থিত। যেমন, ইছলামী আইন অনুসারে – দণ্ডায়মান অবস্থায় এস্তেনজা এস্তেমাল করা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, সে কথা সকলেই জানে। কিন্তু ইছলামের নবী কি এই প্রথা মেনে চলতো? না, দুটো হাদিস থেকে স্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে, নবীজি খাড়ায়া খাড়ায়াও মুততো। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
Narated By Hudhaifa:
I saw Allah’s Apostle coming (or the Prophet came) to the dumps of some people and urinated there while standing.
Sahih Bukhari Volume 003, Book 043, Hadith Number 651
Narated By Abu Wail:
Abu Musa Al-Ash’ari used to lay great stress on the question of urination and he used to say, “If anyone from Bani Israel happened to soil his clothes with urine, he used to cut that portion away.” Hearing that, Hudhaifa said to Abu Wail, “I wish he (Abu Musa) didn’t (lay great stress on that matter).” Hudhaifa added, “Allah’s Apostle went to the dumps of some people and urinated while standing.”
Sahih Bukhari Volume 001, Book 004, Hadith Number 226

৭)নবীজির পরে বানরের মেরাজ
নবীজি যেমন মেরাজে গিয়ে নিরাপদে ও সশরীরে পৃথিবীতে প্রত্যাবর্তন করেছিল, ঠিক সেই ধাঁচেই যেন ইছলামী বিগ্যানীরা এক বানরকে মহাশূন্যে পাঠায় এবং আবার তাকে ফেরতও নিয়ে আসে। কিন্তু এই ছহীহ ইছলামী সাফল্য প্রকৃতপক্ষে নবীজির মেরাজ-এর মতোই অলৌকিক ভাওতাবাজি ছাড়া আর কিছুই নয়। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
POSTING DATE: ২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৩

দেখুন আল কোরআন কে কি ভাবে অবমাননা করল নাস্তিক রাজিব!!

আল কোরআন ২২:১৮
৮)তুমি কি দেখনি যে, আল্লাহকে সিজদা করে যা কিছু আছে আসমানে, যা কিছু আছে জমিনে, সূর্য, চন্দ্র, নক্ষত্র, পর্বতমালা, বৃক্ষলতা, জীবজন্তু এবং মানুষের মধ্যে অনেকে…
বুঝলাম, ভাইরাস-ব্যাকটেরিয়াও আল্লাহকে সিজদা করে। তবে কেউ দেখেছেন কি?
এমন মজার চুটকি আল-কুরান ছাড়া আর কৈ পাইবেন? আল-কুরান পড়ুন, নিজে হাসুন, অন্যদেরও হাসান। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
লেখাটি পোষ্ট করা হয়েছে ২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৩

৯)আল কোরআন ৪:৫৬
যারা আমার আয়াতকে প্রত্যাখ্যান করেছে, অবশ্যই আমি তাদের আগুনে জ্বালাব, যখন তাদের চামড়া জ্বলে-পুড়ে যাবে, তখন আমি তা পাল্টে দেব অন্য চামড়া দিয়ে যাতে তারা শাস্তি আস্বাদন করে।
বর্বর আল্লাপাকের নিষ্ঠুর শাস্তির নমুনা দেখুন। সৃষ্টিকর্তার এমন নৃশংস হুমকি আল-কুরান ছাড়া আর কৈ পাইবেন? (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)

১০) আল কোরআন ১৮:৩১
জান্নাত, যার পাদদেশে প্রবাহিত হয় নহরসমূহ, তাদেরকে সেখানে পরানো হবে স্বর্ণের কঙ্কন এবং মিহি ও পুরু রেশমের সবুজ পোষাক ও তারা সেথায় হেলান দিয়ে সুসজ্জিত পালঙ্কের উপর উপবিষ্ট থাকবে।
আল্লাপাক মানুষকে বেহেশতের জলসাঘররূপী লোভনীয় বর্ণনা দিচ্ছেন। আমার প্রশ্ন হচ্ছে: বেহেশতে এসি, টিভি, ওভেন, ফ্রীজ, ল্যাপটপ এবং ফেসবুক – এগুলো কি থাকবে না? আল-কুরানে এসবের কথা নেই কেন? নাকি আল্লাপাক ওগুলোর নামই শোনেননি জীবনে?
এমন মজার চুটকি আল-কুরান ছাড়া আর কৈ পাইবেন?
আল-কুরান পড়ুন, নিজে হাসুন, অন্যদেরও হাসান। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)

১১) আল কোরআন ১৯:৮৬
আমি পাপীদেরকে তৃষ্ণার্ত অবস্থায় জাহান্নামের দিকে তাড়িয়ে নিয়ে যাব।
আল্লা আসলেই খুব রসিক লোক। তিনি নিজেই পাপীদেরকে জাহান্নামে তাড়িয়ে নিয়ে যাবেন!
এমন মজার চুটকি আল-কুরান ছাড়া আর কৈ পাইবেন? (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)

১২) আল কোরআন ১৭:৮৬
যদি আমি ইচ্ছে করতাম তবে যে ওহী আমি আপনার প্রতি নাযিল করেছি তা অবশ্যই ছিনিয়ে নিতে পারতাম, তখন আমাকে মোকাবিলা করার জন্য আপনি কোন সাহায্যকারীও পেতেন না।
এইবার বুঝুন আল্লা কত হীনমন্যতায় ভোগেন! এই ফানি কথাগুলো তার না বললে কি চলত না?
এমন মজার চুটকি আল-কুরান ছাড়া আর কৈ পাইবেন? (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)

১৩) হজরত মহাউন্মাদ ও কোরান-হাদিস রঙ্গঃ নামের বইটির প্রকাশক ধর্মকারী যেটি রাজিবের ছধ্ব নাম। (নাউযুবিল্লাহ্‌ মিন্‌ যালিক)
Posting date:2 July 2011

উপরের সকল পোষ্ট গুলো আহমেদ রাজিবের ব্লগ থেকে নেয়া। প্রিয় পাঠক শাহবাগের আন্দোলনে কি কোন মুসলিম যোগদান করতে পারে?
ধর্মবিদ্বেষী মুরতাদরা কিভাবে মুসলমানদের হেয় করছে তা জানতে নিচের এই সাইটটিতে ভিজিট করুন।
Link: http://www.dhormockery.net

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে