সউদী ওহাবী ইহুদী সরকারের মিথ্যা চাঁদ দেখার দাবীর কারণে ১৪৩৫ হিজরীর হাজীদের হজ্জ বাতিল হতে যাচ্ছে


আমরা বাংলাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর পালন করেছি ২৯শে জুলাই ২০১৪ ঈসায়ী, মঙ্গলবার। তার মানে, আমরা চাঁদ দেখেছিলাম ২৮শে জুলাই ২০১৪ ঈসায়ী, সোমবার দিবাগত সন্ধ্যায়।
আপনারা জানেন, আমাদের একদিন পূর্বে সউদী আরব ঈদ পালন করেছিল।

এদিকে আমরা পবিত্র যিলক্বদ মাসের চাঁদ খুঁজেছিলাম ২৬শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, মঙ্গলবার দিবাগত সন্ধ্যায়। তাহলে সউদী আরবের চাঁদ খোঁজার কথা কবে? অবশ্যই ২৫শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী দিবাগত সন্ধ্যায়।

কিন্তু ২৫শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী তারিখ দিবাগত সন্ধ্যায় পৃথিবীর কোথাও চাঁদ দেখা যায়নি। আর মহাকাশ বিজ্ঞানের হিসাব অনুযায়ীও তা ছিল অসম্ভব।
শুধু তাই নয়, বাংলাদেশ যেদিন পবিত্র যিলক্বদ মাসের চাঁদ খুঁজেছে, সেদিন অর্থাৎ ২৬শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, মঙ্গলবার দিবাগত সন্ধ্যায় বাংলাদেশে চাঁদ দেখা যায়নি এবং মহাকাশ বিজ্ঞানের হিসাব অনুযায়ী চাঁদ দেখা যাওয়াও ছিল অসম্ভব। এমনকি সউদী আরবেও চাঁদ দেখা যাওয়া ছিল অসম্ভব এবং বাস্তবে দেখা যায়নি। ওয়েব সাইটে প্রমাণ দেখুন; সউদী মহাকাশ বিজ্ঞানীরা নিজেরাই তাদের বক্তব্য দিয়েছে।

উপরের চিত্রের তথ্যে দেখা যাচ্ছে- (১) ২৬শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, মঙ্গলবার আভা সিটি থেকে ড. আইয়ুব পেটেল জানায়, আকাশ ছিল আংশিক মেঘাচ্ছন্ন, বায়ুম-লের অবস্থা ছিল ঘোলা, খালি চোখে চাঁদ দেখা যায়নি। (২) বুরাইদা সিটি থেকে সালেহ আল সাব (মহাকাশ বিজ্ঞানী) জানায়, আকাশ ছিল আংশিক মেঘাচ্ছন্ন, বায়ুম-লের অবস্থা ছিল পরিষ্কার, কিন্তু খালি চোখে চাঁদ দেখা যায়নি।

উপরের চিত্রের তথ্যে দেখা যাচ্ছে- (১) ২৬শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, মঙ্গলবার আভা সিটি থেকে ড. আইয়ুব পেটেল জানায়, আকাশ ছিল আংশিক মেঘাচ্ছন্ন, বায়ুম-লের অবস্থা ছিল ঘোলা, খালি চোখে চাঁদ দেখা যায়নি। (২) বুরাইদা সিটি থেকে সালেহ আল সাব (মহাকাশ বিজ্ঞানী) জানায়, আকাশ ছিল আংশিক মেঘাচ্ছন্ন, বায়ুম-লের অবস্থা ছিল পরিষ্কার, কিন্তু খালি চোখে চাঁদ দেখা যায়নি।

ছবিটি বড় করে দেখতে চাইলে ছবি উপর ক্লিক করুন

কিন্তু তারপরেও অর্থাৎ চাঁদ দেখা না গেলেও সউদী আরবে পবিত্র যিলক্বদ মাস শুরু করা হয়েছে ২৭শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী বুধবার থেকে। আরো মজার বিষয় রয়েছে, ২৭শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার যেদিন মাস শুরু হয়েছে, সেদিনও সউদী আরবে চাঁদ দেখা যায়নি। প্রমাণ দেখুন-

উপরের চিত্রের তথ্যে দেখা যাচ্ছে- (২) ২৭শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার বুরাইদা সিটি থেকে সালেহ আল সাব (মহাকাশ বিজ্ঞানী) জানায়, আকাশ ছিল আংশিক মেঘাচ্ছন্ন, বায়ুম-লের অবস্থা ছিল পরিষ্কার, কিন্তু খালি চোখে চাঁদ দেখা যায়নি।

উপরের চিত্রের তথ্যে দেখা যাচ্ছে- (২) ২৭শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার বুরাইদা সিটি থেকে সালেহ আল সাব (মহাকাশ বিজ্ঞানী) জানায়, আকাশ ছিল আংশিক মেঘাচ্ছন্ন, বায়ুম-লের অবস্থা ছিল পরিষ্কার, কিন্তু খালি চোখে চাঁদ দেখা যায়নি।

ছবিটি বড় করে দেখতে চাইলে ছবি উপর ক্লিক করুন

কিন্তু তারপরেও সউদী ওহাবীরা চাঁদ না দেখেই মাস গণনা শুরু করেছে। প্রমাণ দেখুন-

উপরের চিত্রের তথ্যে দেখা যাচ্ছে- সউদী আরবে পবিত্র যিলকদ মাস শুরু হয়েছে ২৭শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার চাঁদ না দেখেই।

উপরের চিত্রের তথ্যে দেখা যাচ্ছে- সউদী আরবে পবিত্র যিলকদ মাস শুরু হয়েছে ২৭শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার চাঁদ না দেখেই।

ছবিটি বড় করে দেখতে চাইলে ছবি উপর ক্লিক করুন

এবার আপনাদের বলছি, বাংলাদেশ যেহেতু ২৮শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, বৃহস্পতিবার যিলক্বদ মাস শুরু করে করেছে, তাহলে পবিত্র যিলহজ্জ মাসের চাঁদ তালাশ করবে ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৪ ঈসায়ী, বৃহস্পতিবার। কিন্তু সেদিন বাংলাদেশে চাঁদ দেখা যাওয়ার কনো সম্ভাবনাই থাকবে না অর্থাৎ বাংলাদেশ পবিত্র যিলক্বদ মাস ত্রিশ দিনে পূর্ণ করতে যাচ্ছে।
তাহলে আপনারাই বলুন, ২৭শে আগস্ট ২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার মাস শুরু করে কি করে ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৪ ঈসায়ী, বুধবার সউদী আরবের ওহাবীরা চাঁদ দেখবে? অসম্ভব। এখান থেকে আমরা কি পেলাম-

১) পবিত্র যিলকদ মাস সউদী আরবে সঠিক তারিখে শুরু হয়নি।
২) ফলে ভুল তারিখে সউদী আরবের ওহাবীরা পবিত্র যিলহজ্জ মাসের চাঁদ খুঁজবে।
৩) আবার যেদিন খুঁজবে সেদিন চাঁদ দেখা যা¬¬-ওয়ার কোনো সম্ভাবনাই থাকবে না।

তারপরেও কি আপনারা বলবেন- বিশ্বের সকল হাজীদের এ বছরেও হজ্জ আদায় হবে?

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে