সত্য মানুষকে দেয় মুক্তির পথ আর মিথ্যা মানুষকে দেয় হালাক বা ধ্বংসের পথ


হাদীছ শরীফ-এ ইরশাদ হয়েছে, “সত্য মানুষকে মুক্তি দান করে আর মিথ্যা মানুষকে হালাক বা ধ্বংস করে।”
এ হাদীছ শরীফ-এর বাস্তব প্রতিফলন আমরা দেখতে পাই গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আওলিয়া হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার জীবনী মুবারক-এর মধ্যে।
“কালায়িদুল জাওয়াহির” কিতাবে বর্ণিত রয়েছে, হযরত শায়খ মুহম্মদ আওয়ানি রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি বলেছেন, আমি হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার নিকট উপস্থিত হয়ে জিজ্ঞেস করলাম! হে আল্লাহ পাক উনার ওলী! আপনি কোন্ বিষয়ের উপর নিজের কাজের ভিত্তি স্থাপন করেছিলেন? উত্তরে তিনি বললেন, সত্যের উপর, আমি কখনো মিথ্যা কথা বলিনি।
হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি ইলম শিক্ষার উদ্দেশ্যে কতিপয় ব্যবসায়ীদের সাথে যখন বাগদাদের দিকে রওয়ানা হলেন পথিমধ্যে ৬০ জন ডাকাত ব্যবসায়ীদের উপর আক্রমণ করে বসলো। একজন ডাকাত আমার কাছে উপস্থিত হয়ে জানতে চাইলো, আমার কাছে কিছু আছে কিনা? আমি বললাম, ৪০টি দীনার (স্বর্ণমুদ্রা) আছে। সে বললো, কোথায় আছে? বললাম, আমার বগলের নিচে জামার সাথে সেলাই করা আছে। সে মনে করলো, আমি হয়তো বিদ্রƒপ করে বলছি, তাই সে আমাকে ছেড়ে চলে গেলো। অপর একজন এসে ওইরূপ জিজ্ঞেস করলো, সেও উপরোক্ত প্রকার উত্তর শুনে আমাকে ছেড়ে চলে গেলো। তারা উভয়ে ডাকাত সরদারের নিকট উপস্থিত হয়ে আমার প্রদত্ত উত্তর জানালো। অতঃপর সে আমাকে তলব করায় আমি উঁচু ভূমিতে উপনীত হলাম- যে স্থানে সে লুণ্ঠিত মালামাল বণ্টন করছিলো। তৎপরে আমাকে সে বললো, আপনার নিকট কিছু আছে কি? আমি বললাম, ৪০টি দীনার আছে। আমার কথা অনুযায়ী আমার বগলের নিচ হতে ৪০টি দীনার প্রাপ্ত হয়ে সে বললো, আপনাকে কোন জিনিস স্বীকার করতে উৎসাহিত করেছে? আমি বললাম, আমার মা সত্য কথা বলতে আমার নিকট থেকে অঙ্গীকার গ্রহণ করেছেন, আমি উনার গৃহীত অঙ্গীকার ভঙ্গ করতে পারবো না। এটা শুনে ডাকাত সরদার কেঁদে ফেললো এবং বলতে লাগলো, আমি এত বৎসর যাবৎ আল্লাহ পাক উনার অঙ্গীকার ভঙ্গ করছি। অতঃপর সে আমার নিকট তওবা করলো। তার সহচরেরাও তাকে বলতে লাগলো, আপনি যেরূপ দস্যুবৃত্তিতে আমাদের নেতা ছিলেন এখন তওবার ক্ষেত্রেও আমরা আপনাকে নেতা হিসেবে গ্রহণ করছি। তখন আমার নিকট সমস্ত ডাকাত তওবা করলো এবং ব্যবসায়ীদের লুণ্ঠিত মালামাল ফেরত দিয়ে দিলো। সুবহানাল্লাহ।

Views All Time
2
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+