সবাই সাবধান!! পবিত্র কুরবানী ঈদ আসলেই ‘মোটাতাজা গরুতে বিষ রয়েছে’ এমন মিথ্যা গুজব ছড়াতে তৎপর হয় ইসলামবিদ্বেষীরা


পবিত্র কুরবানী ঈদ আসলে একটি ইসলামবিদ্বেষী মহল মুসলমান উনাদের গরু কুরবানী থেকে বিরত রাখতে ‘মোটা তাজা গরুতে বিষ রয়েছে’- এমন মিথ্যা গুজব রটিয়ে থাকে। অথচ গরু মোটা তাজাকরণে যেসব ঔষধ প্রয়োগ করা হয়, তার মাধ্যমে মনুষ্য শরীরে ক্ষতি হওয়ার কোনো সম্ভবনাই নেই। এ সম্পর্কে ঢাকা কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালের প্রধান ভেটেরিনারিয়ান এ বি এম শহীদুল্লাহ’ বলেন-
“পশু মোটা-তাজাকরণের জন্য যে স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ ব্যবহার করা হয় তা সহনীয় পর্যায়ে। এতে গরুর কোনো ক্ষতি হয় না এবং মানুষের শরীরের জন্যও কোনো ক্ষতি নেই। কারণ এই ধরনের ওষুধ গরুকে খাওয়ানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। এছাড়া ৭৭ কেজি গোশতের মধ্যে যে পরিমাণ স্টেরয়েড থাকে, তার সমপরিমাণ স্টেরয়েড থাকে একটি ডিমে। অন্যদিকে প্রাকৃতিকভাবে কিছু সবজি আছে যার মধ্যে প্রচুর স্টেরয়েড থাকে। কিন্তু এতে তো আমাদের শরীরের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না। বরং উপকারই হচ্ছে। তবে পশুকে সহনীয় মাত্রার অধিক স্টেরয়েড দিলে পশুর বিভিন্ন রোগ দেখা দিতে পারে। এ ধরনের গরু একশ’র মধ্যে তিনটা পাবেন। আমাদের দেশে অনেকে বলে থাকে এই স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ ব্যবহারে মানুষের অতিরিক্ত মাত্রায় স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে।
তারা এই বিষয়ে জ্ঞানের অভাবে এমন বিভ্রন্তকর তথ্য দিচ্ছে। তারা কোনো গবেষণামূলক প্রমাণ দেখাতে পারেনি এবং পারবে বলেও আমি মনে করি না। (সূত্র: ইউরো নিউজ বিডি)
ঢাকা কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতালের প্রধান ভেটেরিনারিয়ান এ বি এম শহীদুল্লাহর বক্তব্য অনুযায়ী ‘গরু মোটাতাজাকারণে বিষ রয়েছে’- এ বক্তব্য মিথ্যা ছাড়া কিছু নয়। তাই পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিদ্বেষীদের এ ধরনের গুজব থেকে সবার সাবধান থাকা উচিত।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে