সম্মানিত জিহাদ উনার ফযীলত: কাফিররা যতই মাল-সম্পদ খরচ করুক না কেন, তারা মুসলমানদের নিকট পরাস্ত ও পরাজিত হবেই হবে


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন,
إِنَّ الَّذِينَ كَفَرُوا يُنْفِقُونَ أَمْوَالَهُمْ لِيَصُدُّوا عَنْ سَبِيلِ اللَّهِ فَسَيُنْفِقُونَهَا ثُمَّ تَكُونُ عَلَيْهِمْ حَسْرَةً ثُمَّ يُغْلَبُونَ وَالَّذِينَ كَفَرُوا إِلَى جَهَنَّمَ يُحْشَرُونَ.
অর্থ: “নিশ্চয়ই যারা কাফির তারা তাদের মাল-সম্পদ খরচ করে সম্মানিত মুসলমানদেরকে মহান আল্লাহ পাক উনার রাস্তা থেকে ফিরিয়ে রাখার জন্য। আর অচিরেই তারা পর্যায়ক্রমে (ক্বিয়ামত পর্যন্ত) খরচ করতেই থাকবে। তারপর সেটাই তাদের জন্য আফসুসের কারণ হবে। অতঃপর তারা পরাস্ত হবে, পরাজিত হবে। আর যারা কাফির তাদেরকে জাহান্নামে একত্রিত করা হবে।” সুবহানাল্লাহ! (সম্মানিত ও পবিত্র সূরা আনফাল শরীফ : সম্মানিত ও পবিত্র আয়াত শরীফ ৩৬)
এই সম্মানিত ও পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মাধ্যমে মহান আল্লাহ পাক তিনি সমস্ত জিন-ইনসান, তামাম কায়িনাতবাসী সবাইকে জানিয়ে দিয়েছেন যে, কাফির, মুশরিকরা সম্মানিত মুসলমান উনাদেরকে কাফির বানানোর জন্য, উনাদের বিরুদ্ধে তাদের মাল-সম্পদ অতীতে খরচ করছে, বর্তমানে করছে এবং ক্বিয়ামত পর্যন্ত খরচ করতেই থাকবে। নাউযুবিল্লাহ! কিন্তু সম্মানিত মুসলমান উনারা যদি মহান আল্লাহ পাক উনার, উনার মাহবূব হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রতি খালিছভাবে রুজু থাকে, উনাদের সম্মানিত আদেশ-নির্দেশ মুবারক উনাদের উপর দৃঢ়চিত্ত থাকে এবং উনাদের রেযামন্দি-সন্তুষ্টি মুবারক হাছিলের জন্য নিজেদের মাল-জান ব্যয় করে, তাহলে কাফির-মুশরিকরা সম্মানিত মুসলমান উনাদেরকে কোনো ক্ষতি করতে পারবে না। ইনশাআল্লাহ! বরং তারাই পরিপূর্ণরূপে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে এবং সম্মানিত মুসলমান উনারা হাক্বীক্বী ক্বামিয়াবী হাছিল করবেন। ইনশাআল্লাহ। সুবহানাল্লাহ!
তাই সমস্ত মুসলমান উনাদের জন্য ফরযে আইন হচ্ছে মহান আল্লাহ পাক উনার, উনার মাহবূব হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রতি খালিছভাবে রুজু থাকা, উনাদের সম্মানিত আদেশ-নির্দেশ মুবারক উনাদের উপর দৃঢ়চিত্ত থাকা এবং উনাদের রেযামন্দি-সন্তুষ্টি মুবারক হাছিলের জন্য নিজেদের মাল-জান ব্যয় করা।
মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সবাইকে সেই তাওফীক্ব দান করুন। আমীন!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে