সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

সম্মানিত সুন্নত মুতাবেক আমল করার মধ্যেই সম্মানিত সন্তুষ্টি রেযামন্দি নিহিত


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, আমার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি বলুন, যদি তোমরা মহান আল্লাহ পাক উনার মুহব্বত পেতে চাও, তাহলে আমার অনুসরণ করো। তাহলে মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদেরকে মুহব্বত করবেন। তোমাদের গুনাহ ক্ষমা করবেন এবং তোমাদের প্রতি তিনি ক্ষমাশীল ও দয়ালু হবেন। সুবহানাল্লাহ! (পবিত্র সূরা আলে ইমরান শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ৩১)
এই সম্মানিত আয়াত শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি মুসলমান উনাদের জন্য নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার অনুসরণ করা ফরয করে দিয়েছেন। যাঁরা উনার অনুসরণ করবেন উনাদের জন্য অনেক সুসংবাদও দিয়েছেন। সুবহানাল্লাহ!
মহান আল্লাহ পাক তিনি উনাদেরকে মুহব্বত করবেন, উনার গুণাহগুলি ক্ষমা করে দিবেন, দুনিয়াতে আখিরাতে সবসময় তিনি উনাদের প্রতি ক্ষমাশীল ও দয়ালু থাকবেন। সুবহানাল্লাহ!
মহান আল্লাহ পাক তিনি যাঁদেরকে মুহব্বত করবেন, যাদের গুণাহগুলি সর্বদা ক্ষমা করতে থাকবেন, যাঁদের প্রতি সর্বদা দয়ালু হবেন, উনারাতো মহান আল্লাহ পাক উনার খাছ ওলী (বন্ধু) হবেন। সুবহানাল্লাহ! উনারা সবসময় মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের খাছ সন্তুষ্টির মধ্যে অবস্থান করবেন এবং উনাদের কোন চিন্তা পেরেশানী থাকবে না। সুবহানাল্লাহ!
মহান আল্লাহ পাক তিনি অন্য পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যা নিয়ে এসেছেন তা তোমরা শক্তভাবে আঁকড়িয়ে ধরো। আর তিনি যা থেকে তোমাদেরকে বিরত থাকতে বলেছেন, তা থেকে তোমরা বিরত থাকো। আর এ ব্যাপারে মহান আল্লাহ পাক উনাকে ভয় করো। নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি কঠিন শাস্তিদাতা। (পবিত্র সূরা হাশর শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৭)
এ পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যেও মহান আল্লাহ পাক তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে অনুসরণ করা ফরয করে দিয়েছেন। সুবহানাল্লাহ! যারা উনাকে অনুসরণ করবে না, তাদেরকে কঠিন শাস্তি দেয়া হবে, এ বিষয়েও সতর্ক করেছেন।
প্রত্যেক মুসলমান উনাদের জন্য প্রতিটি আমলে সম্মানিত সুন্নত উনার ইত্তেবা করতে হবে। তাহলে উনারা সর্বদা রহমত, সাকীনা লাভ করে শান্তিতে থাকবেন। সুবহানাল্লাহ!
বর্তমান যামানায় দেখা যায়, মুসলমান উনারা কাফির মুশরিক বেদ্বীন বদদ্বীনদের পোশাক পরছে, তাদের নিয়ম-নীতি পালন করছে। নাউযুবিল্লাহ! এজন্য কাফিররা মুসলমান উনাদের জুলুম নির্যাতন করছে, বিনা কারণে শহীদ করছে, অধিকার থেকে বঞ্চিত করছে। নাউযুবিল্লাহ! মুসলমান উনাদের মধ্যে যারা এই জুলুম নির্যাতন থেকে, ফিতনা ফাসাদ থেকে বাঁচতে চান, উনাদের জন্য দায়িত্ব কর্তব্য হচ্ছে। খালিছভাবে ইস্তেগফার তওবা করে কাফির মুশরিক বেদ্বীন বদদ্বীনদের পোশাক ছেড়ে দিয়ে সুন্নতী পোশাক পরা, তাদের নিয়ম-নীতি সব বাদ দিয়ে সম্মানিত সুন্নত মুতাবেক সমস্ত আমল করা। তবেই উনারা সর্বদা রহমত সাকিনা লাভ করবেন, কামিয়াবী হাছিল করবেন। সুবহানাল্লাহ!
মহান আল্লাহ পাক তিনি যেন মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম এবং উনার সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সম্মানার্থে পরিপূর্ণভাবে সম্মানিত সুন্নত মুতাবেক আমল করার এবং দুনিয়াতেও আখিরাতে কামিয়াবী হাছিল করার তাওফিক দান করেন। আমিন!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে