সাইবার যুদ্ধ থামাতে চাইলে ভারত সরকারকে কয়েকটি শর্ত মানতে হবে -বাংলাদেশ সাইবার আর্মি


আজ রাতে ভারত সরকারকে একটি ভিডিও মেসেজ দিয়েছে বাংলাদেশ সাইবার আর্মি। সেখানে ভারত সরকারের উদ্দেশ্যে কয়েকটি শর্ত দেয়া হয়েছে যা না মানলে সাইবার যুদ্ধ বন্ধ করা হবে না বলে স্রেফ জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ সাইবার আর্মি। সম্পূর্ণ মেসেজটি নিম্নরুপঃ

“বাংলাদেশের জনগণকে অভিনন্দন

আমরা ‘বাংলাদেশ সাইবার আর্মি’, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এবং শক্তিশালী গ্রুপ, সবাইকে আমরা ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমাদেরকে সাপোর্ট করার জন্য।
আমরা আরও ধন্যবাদ জানাচ্ছি সেইসব ব্লগারদের যার বিভিন্নভাবে আমাদেরকে অনুপ্রেনা দিয়েছে।
এই জটিল পরিস্থিতিতে সবাইকে আমাদের পাশে থাকার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।
আমারা আরও ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমাদের সেই সব ভাইদের যারা আমাদের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একটি একক লক্ষ্য অর্জনের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

ভারতীয় হ্যাকাররা বাংলাদেশের কয়েকটি সরকারি ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে।
আমরা জানি সাইটগুলোর সিকিউরিটি খুব দুর্বল। কিন্তু, তারপরও আমরা কোনভাবেই তাদেরকে এই কাজ করতে দিতে পারি না।
আমরা তাই আমাদের অ্যাকশনে যেতে বাধ্য হয়েছি। দেয়ালে পিঠ ঠেকা অবস্থায় এই কাজটি করা ছাড়া আমাদের আর কোন উপায় ছিল না।

এই পরিস্থিতে ইন্ডিয়াকে নিচের পয়েন্টগুলো মানতে হবে তা যেই বিষয়েই হোক না কেনঃ
১) বাংলাদেশি ওয়েবসাইটগুলো হ্যাক বন্ধ করা এবং যে কোন প্রকারের বাংলাদেশি সাইবার স্পেসে অ্যাকসেস করা থেকে সম্পূর্ণরূপে বিরত থাকতে হবে।
২) বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া বর্ডারে বাংলাদেশি নিরীহ নাগরিকদের হত্যা করা বন্ধ করতে হবে।
৩) টিপাইমুখ বাঁধ বন্ধ করতে হবে।
৪) তিস্তা পানিবণ্টন চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে হবে।
৫) ইন্ডিয়ান মিডিয়া বাংলাদেশে প্রচার বন্ধ করতে হবে অথবা বাংলাদেশি মিডিয়াকে ইন্ডিয়ায় প্রবেশ করতে দিতে হবে।
৬) বিএসএফ এর বাংলাদেশ-বিরুদ্ধ যে কোন কাজ বন্ধ করতে হবে এবং বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তাদের ক্রিতকর্মের জন্য শাস্তি দিতে হবে।
৭) সর্বশেষ, কিন্তু সামান্যতম নয়, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যায়-এরকম যে কোন প্রকারের সব কাজ যে কোনভাবেই হোক না কেন ইন্ডিয়াকে বন্ধ করতে হবে।

যদি এগুলা মানা না হয়, তাহলে আমাদের পরবর্তী অ্যাটাক হবে আরও ভয়াবহ। আপনারা হয়ত এখন ধারনা পেয়েছেন আমরা কি করতে পারি। কিন্তু, এটা তো মাত্র শুরু! আমাদের পরবর্তী লক্ষ্যবস্তু হবে ভারতীয় অর্থনৈতিক ব্যবস্থা, যোগাযোগ ব্যবস্থা এবং আইটি সেক্টর এবং আমরা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, সেগুলা ধংস হয়ে যাবে!

কোন রাজনৈতিক গ্রুপ বা সংস্থার সাথে আমাদের কোন প্রকারের সম্পর্ক নেই।
আমরা সন্ত্রাসী নই, আমরা শুধু আমাদের সাইবার স্পেসকে রক্ষা করছি।
আমরা গোপনীয়তা এবং নির্যাতন ঘৃণা করি এবং যুদ্ধে আমাদের কতজন মারা গেল-এটা কোন ব্যাপারই না আমাদের কাছে।
বাংলাদেশি হ্যাকার পরাজিত হবার মত নয়। আমরা যতবারই ব্যর্থ হই না কেন, ধংসস্তুপ থেকে প্রতিবারই আমরা ঠিকই আবার উঠে দাঁড়াতে পারি।
আমরা বাংলাদেশ সাইবার আর্মি।
একক স্বত্বায় আমরা সবাই একতাবদ্ধ
শূন্য দিয়ে বিভক্ত।
ক্ষমা আশা করবেন না।
এগুলা ভুলে যাবেন-এই আশাও করবেন না।

ইন্ডিয়া,
আমরা আসছি”

 

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+