সাইবার যুদ্ধের আপডেট : বাংলাদেশীদের দখলে ২০ হাজারেরও বেশি ভারতীয় ওয়েবসাইট


বাংলাদেশী হ্যাকারদের সঙ্গে ভারতীয় হ্যাকার গ্রুপ গুলোর শুরু হওয়া সাইবার যুদ্ধ চলছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপগুলোর দখলে রয়েছে ২০ হাজারেরও বেশি ভারতীয় ওয়েবসাইট। সরকারি প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট ছাড়াও ব্যক্তিগত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটও রয়েছে এ তালিকায়। বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপগুলোর ক্রমাগত আক্রমণ এখনও চলছে।

কাজ করছে একাধিক হ্যাকার গ্রুপ
বিবিএইচএইচ এর সাইবার যুদ্ধ ঘোষণার পর আরও কয়েকটি বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপ একাত্বতা প্রকাশ করে ভারতীয় ওয়েবসাইটগুলোতে আক্রমণ শুরু করেছে। ইতিমধ্যে ‘এক্সপায়ার সাইবার আর্মি’ এবং ‘বাংলাদেশ সাইবার আর্মি’ গ্রুপের নাম পাওয়া গিয়েছে। এরমধ্যে এক্সপায়ার সাইবার আর্মির একাধিক সদস্য সাম্প্রতিক হাইকোর্টের ওয়েবসাইট হ্যাকিংয়ের সঙ্গে জড়িত ছিল। আন্তর্জাতিক বেশকিছু হ্যাকার গ্রুপও কাজ করছে বাংলাদেশের পক্ষে।

প্রকাশ হয়ে পড়েছে পুলিশের ওয়েবসাইট ডাটাবেজ
বৃহস্পতিবার রাতের প্রথম আক্রমণেই ভারতীয় হ্যাকারদের কবলে পড়ে বাংলাদেশ পুলিশের ওয়েবসাইট থেকে অনেক তথ্য অনলাইনে প্রকাশ করে দিয়ে ভারতীয় হ্যাকাররা। প্রকাশিত একটি ডকুমেন্টে দেখা যায় পুলিশের ওয়েবসাইটের গুরুত্বপূর্ণ ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড রয়েছে সেখানে। একইভাবে হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে রাজশাহীর কমিশনারের ওয়েবসাইট, ফায়ারসার্ভিসের ওয়েবসাইট, বরিশাল জেলা প্রশাসনের ওয়েবসাইট সহ অর্ধশতাধিক সরকারি ওয়েবসাইট।

 

যোগ দিচ্ছে একাধিক আন্তর্জাতিক হ্যাকার গ্রুপও
বাংলাদেশ এবং ভারতীয় সাইবার আর্মির এ ‘সাইবার ওয়্যার’ বেশ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে আন্তর্জাতিক হ্যাকার কমিউনিটিগুলো। একাধিক আন্তর্জাতিক হ্যাকার গ্রুপ ইতিমধ্যে বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপের পক্ষ নিয়েছে বলে জানিয়েছে ‘ব্লাকহ্যাট হ্যাকার’ গ্রুপের একজন মডারেটর। প্রিয় টেক কে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক হ্যাকার গ্রুপ জেডএইচসি এবং দ্যা হ্যাকার আর্মি ইতিমধ্যে আমাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশী হ্যাকাররাও বেশ দক্ষ। ভারত তাদের সীমান্ত হত্যাকাণ্ড না থামালে আমরা পুরো ভারতের সাইবার স্পেস কে ‘হেল’ বানিয়ে দিবো।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় এবং আলোচিত হ্যাকার গ্রুপ অ্যানোনিমাস ও বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপগুলোর সঙ্গে কাজ করবে বলে ইতিমধ্যে তথ্য পাওয়া গেছে। তবে অ্যানোনিমাস অফিসিয়ালি কোন ভিডিও প্রকাশ করেনি বা তথ্য দেয়নি। এ ব্যাপারে বাংলাদেশী ব্লাকহ্যাট হ্যাকার গ্রুপের একজন মডারেটর জানান, অ্যানোনিমাসের শীর্ষস্থানীয়দের থেকে ইতিমধ্যে আমরা সম্মতি পেয়েছি।

বিঃদ্রঃ এই লেখাটি প্রিয় টেক ব্লগ থেকে নেওয়া

Views All Time
5
Views Today
6
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+