সাইয়্যিদাতুনা হযরত নিবরাসাতুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার সন্তুষ্টি মুবারক উনার মধ্যেই মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার সন্তুষ্টি মুবারক নিহিত


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন,

قُلْ لَا أَسْأَلُكُمْ عَلَيْهِ أَجْرًا إِلَّا الْمَوَدَّةَ فِي الْقُرْبى

অর্থ: “হে আমার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি বান্দাদেরকে, উম্মতদেরকে, সারা কায়িনাতবাসীকে, জিন-ইনসানকে বলে দিন, জানিয়ে দিন যে, তোমাদের নিকট কোনো বিনিময় চাওয়া হচ্ছে না, চাওয়াটাও স্বাভাবিক নয়, তোমাদের পক্ষে দেয়াও কস্মিনকালে সম্ভব নয়; বরং তোমাদের জন্য এটা চিন্তা-কল্পনা করাটাও কাট্টা কুফরী ও চির জাহান্নামী হওয়ার কারণ হবে। তবে তোমরা যদি যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার এবং আমার মা’রিফত-মুহব্বত ও সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক পেতে চাও, ইহকাল ও পরকালে চরম-পরম কামিয়াবী হাছিল করতে চাও, তাহলে তোমাদের জন্য ফরয-ওয়াজিব হচ্ছে আমার নিকটাত্মীয় তথা হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম এবং হযরত আওলাদে রসূল ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদেরকে মুহব্বত করা, তা’যীম-তাকরীম করা, উনাদের সম্মানিত খিদমত মুবারক উনার আঞ্জাম দেয়া।” সুবহানাল্লাহ! (পবিত্র সূরা শূরা শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ- ২৩)
আর যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন,

وَأَحِبُّوْنِى لِـحُبِّ اللهِ ، وَأَحِبُّوْا أَهْلَ بَيْتِىْ لِـحُبِّىْ

“তোমরা যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার মুহব্বত তথা মুহব্বত, মা’রিফত, সন্তুষ্টি, রেযামন্দি মুবারক লাভ করার জন্য আমাকে মুহব্বত করো। আর আমার মুহব্বত তথা মুহব্বত, মা’রিফত, সন্তুষ্টি, রেযামন্দি মুবারক লাভ করার জন্য আমার পূত-পবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করো।” সুবহানাল্লাহ! (তিরমিযী শরীফ, আল মু’জামুল কাবীর, মুস্তাদরকে হাকিম, শু‘য়াবুল ঈমান, মিশকাত শরীফ ইত্যাদি)
উপরোক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ ও পবিত্র পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের থেকে এই বিষয়টি অত্যন্ত সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হলো যে, হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মা’রিফত, মুহব্বত, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক উনার মধ্যে যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাদের মা’রিফত, মুহব্বত, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক নিহিত রয়েছে। সুবহানাল্লাহ!
তাই যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার এবং যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের মা’রিফত, মুহব্বত, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক পেতে হলে, ইহকাল ও পরকালে চূড়ান্ত কামিয়াবী হাছিল করতে হলে হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করা, তা’যীম তাকরীম করা, উনাদের সম্মানিত খিদমত মুবারক উনার আঞ্জাম দেয়া প্রত্যেক মুসলমান পুরুষ-মহিলার জন্য, প্রত্যেক কায়িনাতবাসীর জন্য ফরয-ওয়াজিব। সুবহানাল্লাহ!
সাইয়্যিদাতুনা হযরত নিবরাসাতুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি হচ্ছেন সর্বকালের, সর্বযুগের সর্বশ্রেষ্ঠ মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিস ছলাতু ওয়াস সালাম উনার মুবারক লখতে জিগার তথা সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পূত-পবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ! তাই তিনি হচ্ছেন উপরোক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের পরিপূর্ণ মিছদাক্ব। সুবহানাল্লাহ! সুতরাং উনার মা’রিফত-মুহব্বত ও সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক উনার মধ্যে মুজাদ্দিদে আ’যম মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিস ছলাতু ওয়াস সালাম উনার, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাদের মা’রিফত, মুহব্বত, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক নিহিত রয়েছে। সুবহানাল্লাহ!
তাই প্রত্যেক মুসলমান পুরুষ-মহিলার জন্য, প্রত্যেক কায়িনাতবাসীর জন্য, প্রত্যেক মাখলুকাতের জন্য ফরয-ওয়াজিব হচ্ছে সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, ত্বাহিরা, ত্বইয়িবা, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদাতুনা হযরত নিবরাসাতুল উমাম আলাইহাস সালাম উনাকে মুহব্বত করা, তা’যীম-তাকরীম করা, উনার সম্মানিত খিদমত মুবারক উনার আঞ্জাম দেয়া, উনার মা’রিফত, মুহব্বত, সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক লাভ করা। তবেই আমরা মুজাদ্দিদে আ’যম, ছাহিবু ইলমিল আউওয়ালি ওয়াল আখিরী, মুহইস সুন্নাহ মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিছ ছলাতু ওয়াস সালাম উনার, যিনি সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এবং যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাদের হাক্বীক্বী মা’রিফত-মুহব্বত ও মুবারক সন্তুষ্টি-রেযামন্দি মুবারক লাভ করতে পারবো এবং ইহকাল ও পরকালে চরম-পরম কামিয়াবী হাছিল করতে পারবো। আর এটা হচ্ছে সম্মানিত নিয়ামতে ‘উযমা’ মুবারক।
যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সবাইকে এই সম্মানিত নিয়ামতে ‘উযমা’ মুবারক নছীব করুন। আমীন।

Views All Time
2
Views Today
7
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে