সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম তিনিই স্বয়ং ঈমান। সুবহানাল্লাহ!


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি বলে দিন, আমি তোমাদের নিকট কোনো বিনিময় চাচ্ছি না। আর চাওয়াটাও স্বাভাবিক নয়; তোমাদের পক্ষে দেয়াও কস্মিনকালে সম্ভব নয়। তবে তোমরা যদি ইহকাল ও পরকালে হাক্বীক্বী কামিয়াবী হাছিল করতে চাও; তাহলে তোমাদের জন্য ফরয হচ্ছে আমার হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করা, তা’যীম-তাকরীম মুবারক করা, উনাদের খিদমত মুবারক উনার আনজাম দেয়া।” [পবিত্র সূরা শূরা শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ২৩]
আর পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদেরকে খাওয়া পরার যে নিয়ামত মুবারক দিয়েছেন সেজন্য মহান আল্লাহ পাক উনাকে মুহব্বত করো। আর আমাকে মুহব্বত করো মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক লাভ করার জন্য। আর আমার হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করো আমার সন্তুষ্টি মুবারক লাভ করার জন্য।” (তিরমিযী শরীফ, মিশকাত শরীফ)
উক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের পরিপূর্ণ মিছদাক হচ্ছেন আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি হচ্ছেন হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্যতম মহান সদস্য। সুবহানাল্লাহ!
আর সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম উনাকে মাল ও জান দিয়ে মুহব্বত করা, উনার তা’যীম-তাকরীম মুবারক করা, উনার খিদমত মুবারক উনার আঞ্জাম দেয়া স্বয়ং মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার প্রিয়তম হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদেরই নির্দেশ মুবারক। সুবহানাল্লাহ!
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে আরো ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “মহান আল্লাহ পাক উনার কসম! ততক্ষণ পর্যন্ত কোনো মুসলমান ব্যক্তির অন্তরে পবিত্র ঈমান দাখিল হবে না (হাক্বীক্বীভাবে ঈমানদার হবে না) যতক্ষণ পর্যন্ত সে ব্যক্তি মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক উনার জন্য আমার সম্মানিত আওলাদ আলাইহিমুস সালাম বা সম্মানিত বংশধর আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত না করবে।” (মুসনাদে আহমদ শরীফ)
অর্থাৎ সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম উনাকে মুহব্বত করা ঈমান, মূলত তিনিই স্বয়ং ঈমান। সুবহানাল্লাহ! শুধু এতটুকু নয়, মহান আল্লাহ পাক তিনি স্বীয় ফদ্বল ও রহমতস্বরূপ উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অর্থাৎ উনার সম্মানিত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম অর্থাৎ সাইয়্যিদুনা হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম উনাকে হাদিয়াস্বরূপ লাভ করার কারণে খুশি প্রকাশের মাধ্যমে সর্বোত্তম আমল মুবারক করতে বলেছেন। সুবহানাল্লাহ!
অতএব, ঈদে বিলাদতে হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম অর্থাৎ সুমহান বরকতময় পবিত্র ৯ই জুমাদাল ঊলা শরীফ পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনারই অন্তর্ভুক্ত। সুবহানাল্লাহ!
মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম এবং মহাসম্মানিত হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা আমাদের সকলকে পবিত্র ৯ই জুমাদাল ঊলা শরীফ উপলক্ষে মাল ও জান দিয়ে হাক্বীক্বী খুশি প্রকাশ করার তাওফীক দান করুন। আর খাছভাবে হযরত হাদিউল উমাম আলাইহিস সালাম উনার মুহব্বত-মা’রিফাত, তায়াল্লুক,-নিসবত এবং আবাদুল আবাদের গোলামী নছীব করুন। (আমীন)

 

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে