সাইয়্যিদুল আউলিয়া, গাউছুল আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি ছিলেন ইলমে লাদুন্নীপ্রাপ্ত ওলীআল্লাহ


সাইয়্যিদুল আউলিয়া, গউছুল আ’যম সাইয়্যিদুনা হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার সাওয়ানেহে উমরী মুবারকে একটি বিশেষ ঘটনা বর্ণিত রয়েছে। একবার এক ব্যক্তি একটা আমল করার নিয়ত করেছে এভাবে যে, তার সাথে ওই সময় পৃথিবীতে আর কেউই শরীফ থাকতে পারবে না। যদি উক্ত আমলটা সে করতে না পারে তবে তার আহলিয়া তালাক হয়ে যাবে।
তার এ মাসয়ালার সমাধানের জন্য দীর্ঘদিন ব্যাপী অনেক আলিম-উলামা উনাদের কাছে যাওয়া হলো। উনারা সকলেই একই জবাব দিলেন যে, উক্ত ব্যক্তির আহলিয়া তালাক হয়ে গেছে। কারণ এমন কোনো আমল নেই, যে আমল সে শুধু একাই করবে আর কেউই করবে না। সে নামায পড়–ক, রোযা রাখুক, দান-ছদকা করুক, পবিত্র কুরআন শরীফ তিলাওয়াত করুক ইত্যাদি যে আমল বা ইবাদতই করুক না কেন পৃথিবীর কেউ না কেউ সেটা করবে। কাজেই তার আহলিয়া তালাক হয়ে গেছে।
অতঃপর যখন এ মাসয়ালাটির সঠিক কোনো সমাধান পাওয়া গেলো না, তখন এক ব্যক্তি গউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার পবিত্র দরবার শরীফ-এ যাওয়ার পরামর্শ দিলেন যে, উনার কাছে গেলে হয়তো মাসয়ালাটির সঠিক সমাধান পাওয়া যাবে। তখন সত্যিই উনার কাছে গিয়ে মাসয়ালাটি জিজ্ঞেস করা হলো।
মহান আল্লাহ পাক উনার খাছ লক্ষস্থল ওলী হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি মাসয়ালাটি শুনে কোনোরূপ চিন্তা-ফিকির ছাড়াই বলে দিলেন, এটা কঠিন কোনো মাসয়ালা হলো নাকি! ওই ব্যক্তিকে বলে দাও সে যেন পবিত্র মক্কা শরীফ চলে যায়। সেখানে সকলের তাওয়াফ বন্ধ করে দিয়ে সে যেন একাই তাওয়াফ করে। কারণ পবিত্র কা’বা শরীফ যমীনে দ্বিতীয়টি নেই। সে যখন তাওয়াফ করবে তখন যমীনে আর কেউই তাওয়াফ করতে পারবে না। ফলে তার আহলিয়া তালাক হবে না। সুবহানাল্লাহ!

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে