সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র জীবনী মুবারক-ধারাবাহিক।


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র জীবনী মুবারক-ধারাবাহিক।
***************************************************************************
হাদীছে কুদসী শরীফ উনার মধ্যে উল্লেখ করা হয়েছে,,,,
كنت كنزا مخفيا فاحببت ان اعرف فخلقت الخلق لاعرف
“আমি গুপ্ত ছিলাম। আমার মুহব্বত হলো যে, আমি জাহির হই। তখন আমি আমার (রুবুবিয়্যত) জাহির করার জন্যই সৃষ্টি করলাম মাখলূকাত (আমার হাবীব হুযূর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে)।”
 
পূর্ব প্রকাশিতের পর —
*****************
আখিরী রসূল, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আনুষ্ঠানিকভাবে নুবুওওয়াত প্রকাশ ও এতদসম্পর্কিত মু’জিযা শরীফ
******************************************************
 
নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আনুষ্ঠানিক নুবুওওয়াত শরীফ প্রকাশের সময় অসংখ্য আগণিত মু’জিযা শরীফ সংঘটিত হয়েছে। যেমন-
হাদীছ শরীফ-এ ইরশাদ হয়েছে,
وأخرج حضرت البيهقى رحمة الله عليه من طريق حضرت إبن اسحاق رحمة الله عليه قال- حدثنى حضرت عبد الملك بن عبد بن أبى سفيان بن العلاء بن جارية الثقفى رحمة الله عليه، عن بعض أهل العلم ان رسول الله صلى الله عليه وسلم حين أراد الله كرامته وابتدأه بالنبوة كان لا يمر بحجر ولا شجر إلا سلم عليه وسمع منه، فيلتفت رسول الله صلى الله عليه وسلم خلفه وعن يمينه وعن شماله ولا يرى إلا الشجر وما حوله من الحجارة، وهى تحييه بتحية انبوة السلام عليك يا رسول الله صلى الله عليه وسلم،
অর্থ: হযরত ইমাম বাইহাক্বী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি হযরত ইবনে ইসহাক রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার থেকে বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, আমার নিকট বর্ণনা করেছেন হযরত আব্দুল মালিক ইবনে আব্দুল্লাহ ইবনে আবূ সুফিয়ান ইবনে আলা ইবনে জারিয়া আছ ছাকাফী রহমতুল্লাহি আলাইহি এবং জনৈক আলিম থেকে বর্ণনা করেন যে, নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি যখন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার এক বিশেষ মু’জিযা শরীফ প্রকাশ করার ইচ্ছা করলেন, তখন উনার আনুষ্ঠানিকভাবে নুবুওওয়াত শরীফ প্রকাশের সূচনা করলেন। এ সময় নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যে কোনো বৃক্ষ ও পাথরের নিকট দিয়ে গমন করতেন সেটাই উনাকে সালাম দিতো; যা তিনি শুনতে পেতেন। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পিছনে ও ডানে-বামে তাকালে বৃক্ষ ও পাথর ছাড়া অন্য কিছু দেখতে পেতেন না। বৃক্ষ ও পাথর উনাকে ‘আসসালামু আলাইকা ইয়া রাসূলাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলে সালাম দিতো।” (খছায়িছুল কুবরা ১ম খ- ১৫৯ পৃষ্ঠা) (ইনশাআল্লাহ চলবে)
Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে