সাকরাইন পূজা: হিন্দুয়ানী অপসংস্কৃতির স্লো পয়জনিং


সাকরাইন উৎসব, মূলত পৌষসংক্রান্তি, ঘুড়ি উৎসব নামেও পরিচিত, বাংলাদেশে শীত মৌসুমের বাৎসরিক উদযাপন, ঘুড়ি উড়িয়ে পালন করা হয়। সংস্কৃত শব্দ ‘সংক্রান্তি’ ঢাকাইয়া অপভ্রংশে সাকরাইন রূপ নিয়েছে। পৌষ ও মাঘ মাসের সন্ধিক্ষণে, পৌষ মাসের শেষদিন সারা ভারতবর্ষে সংক্রান্তি হিসাবে উদযাপিত হয়।

#মকর সংক্রান্তি কী? এর উৎপত্তি বা ইতিহাসটাই বা কী?
প্রাচীনকাল থেকেই এ উৎসব চলে আসছে।
পুরাণের মধ্যেও এর উল্লেখ আছে। পুরাণ অনুযায়ী, মকর সংক্রান্তির এ মহাতিথিতেই মহাভারতের পিতামহ ভীষ্ম শরশয্যায় ইচ্ছামৃত্যু গ্রহণ করেছিল। আবার অন্য মত অনুযায়ী, এ দিনই দেবতাদের সঙ্গে অসুরদের যুদ্ধ শেষ হয়েছিল। বিষ্ণুদেব অসুরদের বধ করে তাদের কাটা মুণ্ডু মন্দিরা পর্বতে পুঁতে দিয়েছিল। তাই মকর সংক্রান্তির দিনই সমস্ত অশুভ শক্তির বিনাস হয়ে শুভ শক্তি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল বলে আজও মানা হয়ে থাকে। আবার অন্য মতে, সূর্য এ দিন নিজের ছেলে মকর রাশির দেবতা শনির বাড়ি এক মাসের জন্য ঘুরতে গিয়েছিল। তাই এই দিনটিকে বাবা ছেলের সম্পর্কের একটি বিশেষ দিন হিসাবেও ধরা হয়।

#একান্তই হিন্দুদের উৎসবঃ
পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার সাগরদ্বীপে প্রতি বছরই মকর সংক্রান্তিতে স্নানে হাজার হাজার পুণ্যার্থীর সমাবেশ হয়। ঢাকায় চলে পূজা ও প্রার্থনা। চলে পিঠে উৎসব ও পিঠে বানিয়ে দেবতার উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করা। মিষ্টি, লাড্ডু তো আছেই। চলে ঘুড়ি উৎসব। ঘুড়িতে করে দেবতার কাছে বার্তা পাঠানো যাবে, ঘুড়ি উৎসবটা এসেছে মূলত এই চিন্তা থেকেই। মৌলভীবাজারের মতো কোথাও কোথাও চলে রাতভর মাছের মেলা। সাকরাইন মূলত হিন্দু লোকউৎসব হলেও এখন এ দিনটি ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই পালন করে।

#পুরাণ ঢাকার সাকরাইন:
পুরাণ ঢাকায় সাকরাইন পহেলা মাঘে পালন হয়। তাই ১৪ জানুয়ারি এ উৎসব পালন করার কথা। তবে শাঁখারিবাজারের আদি হিন্দু পরিবারগুলি ১৫ জানুয়ারিকে পহেলা মাঘ মেনে এ উৎসব পালন করে।

অর্থাৎ এই সাকরাইন একান্তই হিন্দুদের ধর্মীয় উৎসব। অথচ আজকে সে উৎসব নামধারী মুসলমানেরা সার্বজনিনের দোহাই দিয়ে পালন করে! নাউযুবিল্লাহ

যার মাধ্যমে মুলত মুসলমান পৌত্তলিকতাকেই পালন করছে।
যে সকল নামধারী মুসলমান এ দিবস পালন করে তারা নিজেরাই সিধ্বান্ত নিক ” তারা কি মুসলমান হিসেবে মরতে চায় নাকি মুশরিক হয়ে?”
তথ্যসুত্রঃ
http://archive.is/8wLlZ , http://archive.is/OQFWr , http://archive.is/YeC2G

Credit@ Dr. Muhammad Talha

Views All Time
1
Views Today
7
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+