সিসি ক্যামেরা সরিয়ে পাপাচার মুক্ত পবিত্র হজ্জ করার ব্যবস্থা করুন


সউদী ওহাবী সরকার পবিত্র মক্কা শরীফ ও পবিত্র মদীনা শরীফ উনাদেরকে সন্ত্রাস মুক্ত রাখা ও সন্ত্রাসী চিহ্নিতকরণের অজুহাতে পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের খিলাফ করে পবিত্র মক্কা শরীফ ও পবিত্র মদীনা শরীফ-এ সিসি ক্যামেরা ফিট করেছে। ছবি তোলা যে মহাপাপ তা বেমালুম ভুলে গেছে। পৃথিবীর অসংখ্য ধর্মপ্রাণ খোদাভীরু মানুষ পবিত্র হওয়া ও পাপাচার থেকে মুক্ত হওয়ার আশায় পবিত্র হজ্জ করতে যায়। সউদী ওহাবী সরকারের শরীয়তবিরোধী সিসি ক্যামেরায় ছবি তোলার কারণে কোটি কোটি পাপের বোঝা মাথায় চেপে হাজী সাহেবগণ পবিত্র হজ্জ থেকে প্রত্যাবর্তন করে থাকেন। নাউযুবিল্লাহ! কেননা সম্মানিত ইসলামী শরীয়তে প্রাণীর ছবি তোলা, আঁকা, রাখা, দেখা সবই হারাম। যারা ছবি তোলে তারা আখিরাতে কঠিন শাস্তি ভোগ করবে। যেখানে ছবি থাকে সেখানে নামায, ইবাদত-বন্দেগী কিছুই হয় না। সেখানে খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার রহমত বর্ষিত হয় না। ছবির কারণে মানুষ বেপর্দা হয়, দাইয়্যূস বা বেপর্দা ব্যক্তি বেহেশতে প্রবেশ করবে না। পবিত্র মক্কা শরীফ বিজয়ের পূর্বে কাবা ঘরে ৩৬০টি মূর্তি ছিল। মানুষ যেগুলোর পূজা করে জাহান্নামী হতো। বর্তমানে সেখানে মূর্তির স্থলাভিষিক্ত হয়েছে সিসি ক্যামেরা যা দিয়ে অহরহ কোটি কোটি ছবি তোলা হচ্ছে। নাউযুবিল্লাহ!
পবিত্র মক্কা শরীফ ও পবিত্র মদীনা শরীফ-এ হাজার হাজার ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা ফিট করা হয়েছে। ক্যামেরাগুলো এত উন্নত যে, প্রতি সেকেন্ডে ৪০০ পর্যন্ত ছবি তুলতে সক্ষম। প্রতি সেকেন্ডে ৪০০ হলে ৪০০X৬০X৬০X২৪= ৩,৪৫,৬০,০০০টি একদিনে ১টি ক্যামেরায় ছবি উঠে। কমপক্ষে ১০০টি ক্যামেরা অতিক্রম করলে একজন হাজীর ৩,৪৫,৬০,০০০০০টি ছবি উঠে থাকে। একটি করে কবীরা গুনাহ হলে ৩,৪৫,৬০০০০০০টি (তিনশ’ পয়তাল্লিশ কোটি, ষাট লক্ষ) কবীরা গুনাহ ১ দিনে লিখা হয়।
তাহলে পবিত্র হজ্জ করে নেকী কোথায় হলো? সবই গুনাহে পরিণত হলো। নাজাত মিলবে কিভাবে? পবিত্র হজ্জ করার স্বার্থকতা কোথায়? কাজেই পাপাচার মুক্ত পবিত্র হজ্জ করার ব্যবস্থা করুন।
Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে