সুন্নত মুবারক উনার বিরোধিতাকারীরাই পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার বিরোধিতাকারী


হযরত ইমাম মালিক রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার মুয়াত্তা শরীফ উনার মধ্যে বর্ণনা করেন, মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “আমি তোমাদের জন্য দুটি পবিত্র নিয়ামত মুবারক রেখে যাচ্ছি, এই দুটি পবিত্র নিয়ামত মুবারক যতদিন তোমরা আঁকড়িয়ে ধরে থাকবে, ততদিন তোমরা গুমরাহ হবে না। এর একটি হলো, মহান আল্লাহ পাক উনার কিতাব- পবিত্র কুরআন শরীফ আর অন্যটি মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র সুন্নত।”
যেসব আলিম নামধারী ব্যক্তিরা বলে থাকে, এতো সুন্নত পালন করা লাগে না। নাঊযুবিল্লাহ!
তারাই এখন হারাম ছবি তোলা, আঁকা-রাখাকে জায়িয বলতেছে। তারা টিভি চ্যানেল দেখে থাকে, টিভি চ্যানেলে প্রোগ্রাম করে থাকে, হারাম গণতন্ত্র করছে ইসলামী নাম দিয়ে। নাঊযুবিল্লাহ! বেপর্দা হওয়া কবীরা গুনাহ অথচ তারা বেপর্দা হচ্ছে, এত পর্দার দরকার নেই বলে গুমরাহীমূলক ফতওয়া দিচ্ছে। নাঊযুবিল্লাহ!
প্রথমত, এরা পবিত্র সুন্নত পালনের উপর গুরুত্ব না দিয়ে গুমরাহ হয়েছে এবং পরবর্তীতে পর্দার বিরোধিতা করে কুফরীতে আকন্ঠ নিমজ্জিত হয়েছে। মূলত, এরাই সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ, সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উদযাপনের বিরোধিতা করে থাকে। নাউযুবিল্লাহ!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে