স্বয়ং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নিজেই সম্মানিত শা’বান শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশের ব্যাপারে বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করেছেন


মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে,
عَنْ اُمِّ الْـمُؤْمِنِيْـنَ الثَّالِثَةِ سَيِّدَتِنَا حَضْرَتْ اَلصِّدِّيْقَةِ عَلَيْهَا السَّلَامُ (سَيِّدَتِنَا حَضْرَتْ عَائِشَةَ عَلَيْهَا السَّلَامُ) قَالَتْ كَانَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَتَحَفَّظُ مِنْ هِلَالِ شَعْبَانَ مَا لَا يَتَحَفَّظُ مِنْ غَيْرِهِ.
অর্থ: “উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ্ সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বাহ্ আলাইহাস সালাম উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খ¦াতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সম্মানিত শা’বান শরীফ মাস উনার চাঁদের ব্যাপারে যতটুকু সতর্কতা অবলম্বন করতেন, অন্য কোনো মাসের চাঁদের ব্যাপারে ততটুকু সতর্কতা অবলম্বন করতেন না।” সুবহানাল্লাহ! (মুসনাদে আহমদ ৪১/৪২২, ছহীহ ইবনে হিব্বান ৮/২২৮, মুসনাদে ইসহাক্ব ৩/৯৬০, আল মু’জাম লি ইবনিল মুক্বরী ১/৩১১, সুনানে দারাকুত্বনী ৩/৯৮, মুস্তাদ্রকে হাকিম ১/৫৮৫, আস সুনানুল কুবরা লিল বাইহাক্বী ৪/৩৪৭ ইত্যাদি)
মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে আরো ইরশাদ মুবারক হয়েছে,
عَنْ حَضْرَتْ اَبِـىْ هُرَيْرَةَ رَضِىَ اللهُ تَعَالـٰى عَنْهُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ اَحْصُوْا هِلَالَ شَعْبَانَ لِرَمَضَانَ.

অর্থ: “হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তা‘য়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, তোমরা সম্মানিত রমাদ্বান শরীফ মাস উনার জন্য সম্মানিত শা’বান শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করো, গণনা করো।” সুবহানাল্লাহ! (তিরমিযী শরীফ, মুস্তাদরকে হাকিম ১/৫৮৭, আস সুনানুল কুবরা লিল বাইহাক্বী ৪/৩৪৭, মা’রিফাতুস সুনান ওয়াল আছার ৬/২৩৪, শরহুস সুন্নাহ লিল বাগবী ৬/২৪০, আল মাফাতীহ্ ফী শরহিল মাছাবীহ্ ৩/১৬)

এই মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার ব্যাখ্যায় সম্মানিত হানাফী মাযহাব উনার বিশিষ্ট্য ফক্বীহ্, আল্লামা হযরত ইমাম হুসাইন ইবনে মাহমূদ ইবনে হাসান মুয্হিরী যাইদানী কূফী শীরাযী হানাফী রহমতুল্লাহি আলাইহি (বিছাল শরীফ ৭২৭ হিজরী শরীফ) তিনি বলেন,
يَعْنِـىْ اُطْلُبُوْا هِلَالَ شَعْبَانَ وَاعْلَمُوْهُ وَعَدُّوْا اَيَّامَهٗ.
অর্থ: “অর্থাৎ তোমরা শা’বান শরীফ মাস উনার চাঁদ তালাশ করো, তা স্মরণে রাখো এবং উনার দিনসমূহ গণনা করো।” সুবহানাল্লাহ! (আর মাফাতীহ্ ফী শারহিল মাছাবীহ্ ৩/১৬)

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে