হযরত কুতুবুদ্দীন আইবেক রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার জীবনি সংক্ষেপে


 

তিনি যখন ছোট ছিলেন জৈনিক সওদাগর তুর্কিস্থান থেকে নিশাপুর নিয়ে আসে।এবং উনাকে কাজী ফখরুদ্দীন ইবনে আব্দুল আজীজের কাছে বিক্রি করে দেয়। কাজী সাহেব ছিলেন হযরত ইমাম আবু হানীফা রহমতুল্লাহি উনার বংশধর।

কাজীসাব উনাকে কৃতদাসের মত রাখলেন না বরং পুত্রসুলভ ব্যবহার করে গেলেন। এমনকি উনার পুত্রদের মত হযরত কুতুবুদ্দীন আইবেক রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে শিক্ষা-দীক্ষা দিতে লাগলেন।কাজীসাবের অধীনেই তিনি ইসলামীর সব শিক্ষার দিকগুলো রপ্ত করেন।

কিন্তু ভাগ্য উনার প্রতি সুপ্রসন্ন ছিল না। কাজী ফখরুদ্দীনের ইন্তেকালের পর উনার জীবনে আবারও বিপদ নেমে আসে।
কাজীসাবের পুত্ররা উনাকে জনৈক সওদাগরের হাতে বিক্রী করে দেয়।ঐ সওদাগর উনাকে তোহফা স্বরুপ হযরত শেহাবুদ্দীন মুহাম্মদ ঘুরী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে দেন। এই তোহফার বিনিময়ে সুলতান ঐ সওদাগরকে মোটা অংকের নজরানা দিতে ভুল করলেন না।

এভাবে তিনি সুলতানের আশ্রয়লাভে ধন্য হন। উনার হাতের কনিষ্ঠ আঙ্গুল যেহেতু ভাঙ্গা ছিল ,এজন্য সকলে উনাকে আইবেক ডাকা শুরু হয়। যা উনার নামের সাথে এখনও আমরা ব্যবহার করি…
তিনি ছিলেন ভারতের প্রথম সুলতান এবং গজনীর সুলতান হযরত শেহাবুদ্দীন মুহাম্মদ ঘুরী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার প্রধান জেনারেল।

কথিত আছে , ভারতের বেনারস রাজ্য জয়ের পর , ওই রাজ্যের অসংখ্য হাতি সুলতান মুহাম্মদ ঘুরী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে উপহার দেওয়া হয়। তার মধ্যে শুভ্র-সফেদ একটি হাতি ছিল।
ঐযুগে সাদা হাতিকে কল্যালের প্রতীক মনে করা হত। এবং সেযুগে সাদা হাতি ছিল বিরল।

যুদ্ধে ব্যবহৃত অল্প হাতিই তাদের মুহুতের ইশরায় সুলতানকে সালাম করল। কিন্তু এক বিস্ময়কর অধ্যায়ের জন্ম দিয়ে সাদা হাতিটি মাহুতের ইশারায় সুলতানকে সালাম করলো না।
মাহুত বহু চেষ্টা করলো , বারবার পীড়াপীড়ি করায় হাতিটি মাহুতকে মেরে ফেলতে উদ্যত হল।

এ অবস্থা দেখে সুলতান মুহাম্মদ ঘুরী রহমতুল্লাহি আলাইহি হাতিটিকে ছেড়ে দিলেন। এবং কিছু একটা মনে করে , হাতিটিকে হযরত কুতুবুদ্দীন আইবেক রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাকে উপহার দিলেন। এই হাতি সারা জীবন হযরত কুতুবুদ্দীন আইবেক রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার সাথে ছিল। উনার ও হাতি মাঝে এমন সখ্য পয়দা হয়েছিল যে, উনার ইন্তেকালের তিনদিন পর হাতিটিও শোকে মারা গিয়েছিল।

ইতিহাস জাতির দর্পণ।গর্বের বিষয় হচ্ছে, আমাদের রয়েছে গৌরবোজ্জল ইতিহাস। যা প্রতিনিয়তই অজ্ঞতা এবং জানার অনীহার দরুণ চাপা রয়ে যাচ্ছে বইয়ের পাতায়। ইতিহাস জানা জরুরি কেননা ইতিহাস বড় নির্দয়-নিষ্ঠুর, মেরুদন্ড সম্পন্ন জাতির শিড়দাড়া ভেঙ্গে দিতে পারে এই ইতিহাস।

Views All Time
1
Views Today
4
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে