হারাম ছবির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো ফরয-ওয়াজিব


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “কোনো মু’মিন পুরুষ-মহিলার জন্য জায়িয হবে না- মহান আল্লাহ পাক তিনি এবং উনার রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনারা যে ফায়ছালা করেছেন, সেই ফায়ছালার মধ্যে স্বীয় মত পেশ করা। আর যে ব্যক্তি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নাফরমানী করবে সে প্রকাশ্য গুমরাহে গুমরাহ হবে।” (পবিত্র সূরা আহযাব শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ৩৬)
এই পবিত্র আয়াত শরীফ উনার সরাসরি বিরোধিতা করে ধর্মব্যবসায়ী নামধারী মিথ্যাবাদী মালানারা বলে বর্তমান যামানায় ছবির প্রয়োজন রয়েছে। নাঊযুবিল্লাহ!
মূলত, কোনো মুসলমানের জন্য কোনো অবস্থাতেই ছবি তোলা জায়িয নয়, কেননা যে ব্যক্তি প্রাণীর ছবি উঠাবে সেই রহমত ও জান্নাত থেকে বঞ্চিত হবে।
সুতরাং ছবির ব্যাপারে সতর্ক হওয়া সকল মুসলমান পুরুষ-মহিলার জন্য ফরয-ওয়াজিব উনার অন্তর্ভুক্ত তথা পবিত্র ঈমানী দায়িত্ব।
কাজেই ছবির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো দেশ ও জাতির জন্য একান্ত কর্তব্য। অতএব, মহান আল্লাহ পাক তিনি এই হারাম নাজায়িয ছবি থেকে বেঁচে থাকার তাওফীক দান করুন। (আমীন)
Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে