হায়াতে বা মউতে যারাই আল্লাহওয়ালাগণ উনাদের নিকটে থাকবে, তারাই রহমত পাবে


এক লোক একজন বুজুর্গ ব্যক্তি উনাকে প্রশ্ন করেছিল, মানুষ যে নসিহত করে তাকে যেন কোন আল্লাহওয়ালা ব্যক্তির পাশে কবর দেয়া হয়; এর হাক্বীকত কি? তখন ছিল গরম কাল। বুজুর্গ ব্যক্তি উনাকে বাতাস করা হচ্ছিল। তিনি বললেন, হে ব্যক্তি! তোমার গায়ে কি বাতাস লাগে? লোকটি বলল, জ্বী লাগে। বুজুর্গ ব্যক্তি বললেন, কিভাবে? তোমাকে তো বাতাস করা হচ্ছে না! লোকটি বলল, হুজুর, আপনাকে যে বাতাস করা হচ্ছে! আর আমি আপনার কাছে বসে আছি। যার কারণে বাতাস আমার গায়েও লাগছে। বুজুর্গ ব্যক্তি বললেন, তোমার প্রশ্নের উত্তরটা এখানেই। একজন আল্লাহওয়ালা ব্যক্তির উপর সবসময় মহান আল্লাহ পাক উনার রহমত বর্ষিত হতে থাকে। হায়াতে বা মউতে যারাই উনার নিকটে থাকে তারাই এই রহমতের একটা হিস্যা পায়। সুবহানাল্লাহ!

 

আমরা পাঁচ ওয়াক্ত নামাযে সূরা ফাতিহাতে আরজু করি, “আয় আল্লাহ পাক! আপনি আমাদের সরল পথ প্রদর্শন করুন।” সরল পথ কোনটি? “যাঁরা নিয়ামত প্রাপ্ত অর্থাৎ নবী, ছিদ্দীক, শহীদ, ছলেহীনগণ উনাদের পথ। নবী আলাইহিমুস্‌ সালাম হচ্ছেন এক তবক্বা।  আর ছিদ্দীক, শহীদ,ছলেহ হচ্ছেন আউলিয়ায়ে কিরামগণের তবক্বা। আমরাতো এখন সরাসরি হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে পাবো না। কিন্তু আল্লাহওয়ালাগণকে পাবো। উনাদের মাধ্যম (উছীলা) দিয়েই আমাদের হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও  সেখান থেকে মহান আল্লাহ পাক পর্যন্ত যেতে হবে। মহান রব্বুল আলামীন তিনি যেন আমাদের সেই তৌফিক দান করেন!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে