হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার নজীরবিহীন মুহব্বত


উম্মু আবীহা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম তিনি উনার আব্বাজান ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে এত মুহব্বত করতেন; যা মানুষের ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব না।
তার একটি উদাহরণ…
যখন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার সাক্ষাতে চলে যান, তখন উম্মু আবীহা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম তিনি সবসময় পবিত্র রওজা শরীফ উনার মধ্যে অবস্থান করতেন এবং অধিকাংশ সময় বেহুঁশ অবস্থায় থাকতেন।
সুবহানাল্লাহ…
আল্লামা হযরত জামী রহমতুল্লাহি তিনি শরহে জামী কিতাবে উম্মু আবীহা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার একটি ক্বাছীদা শরীফ উনার অংশ উল্লেখ করেন, অর্থাৎ মুকতাদায়ে মু’মিনাত, পাকদারে মদীনা, সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম, লখতে জিগারে রসূল, উম্মু আবীহা সাইয়্যিদাতুনা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম তিনি বলেন, “আমার আব্বাজান ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার জুদায়ীর কারণে আমার উপর এমন কষ্ট যাচ্ছে, এই কষ্ট যদি কোনো দিনের উপর রাখা হয়, তাহলে দিনটি রাতে পরিণত হবে। আর যদি কোনো রাতের উপর রাখা হয়, রাতটি দিনে পরিণত হবে।”
সুবহানাল্লাহ…
তাহলে ফিকিরের বিষয় তিনি নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি সাল্লাম উনাকে কত মুহব্বত করতেন। কায়িনাতের সমস্ত মহিলাদের জন্য ফরয হলো- মুকতাদায়ে মু’মিনাত, পাকদারে মদীনা, সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা আলাইহাস সালাম, লখতে জিগারে রসূল, উম্মু আবীহা সাইয়্যিদাতুনা হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনাকে সূক্ষ্মাতিসূক্ষ্ম, পুঙ্খানুপুঙ্খ অনুসরণ করা এবং উনার ছিরত-ছূরত মুবারককে মাড়ির দাঁত দিয়ে আঁকড়িয়ে ধরা।আল্লাহপাক আমাদেরকে সে তৌফিক দান করুন…
আমীন…

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে