১লা এপ্রিল তথা এপ্রিল ফুলের নির্মম ইতিহাস


‘এপ্রিল ফুল’ বাক্যটা মূলত ইংরেজি। অর্থ এপ্রিলের বোকা। এপ্রিল ফুল ইতিহাসের এক হৃদয় বিদারক ঘটনা।
৭১১ উমাইয়া শাসনামলে মুসলমানদের স্পেন জয়ে গড়ে উঠেছিলো গ্রানাডা ও কর্ডোভায় প্রায় ৮০০ বছরের আলোড়ন সৃষ্টিকারী সভ্যতা। কিন্তু মুসলিম শাসকরা যখন পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনার কথা একেবারে ভুলে গিয়ে জন-সাধারণের সুখ-শান্তির মূলে পদাঘাত করে ভোগ বিলাসে মত্ত হয়, তখন তারা হারিয়ে ফেলে পবিত্র ইসলামী চেতনা। তাদের এই দুর্বলতার সুযোগে খ্রিস্টান সন্ত্রাসী ও যালিমরা চারিদিকে মুসলিম শাসকদের বিরুদ্ধে সুসংগঠিত হতে থাকে। খ্রিস্টানরা সুযোগ বুঝে মসজিদে অবস্থানরত মুসলমানদের আগুন লাগিয়ে নৃশংসভাবে শহীদ করার মাধ্যমে বিশ্বাসঘাতকতার পরিচয় দেয়। যে দিন এসব নির্মম নৃশংসতা কর্মকা- করে ছিলো, সে দিন ছিল “১লা এপ্রিল ১৪৯২ সাল”। সেদিন খ্রিস্টানরা আনন্দে আত্মহারা হয়ে বলে ছিল “হায় মুসলমান! এপ্রিল ফুল, তোমরা এপ্রিলের বোকা।” স্পেনীয়দের দ্বারা মুসলমানদেরকে বোকা হিসেবে ঘোষণা দেয়ার এই নিষ্ঠুর বিশ্বাসঘাতকতা বা শঠতাকে স্মরণীয় রাখার জন্য খ্রিস্টান জগৎ প্রতিবছর ১লা এপ্রিল পালন করে থাকে রসিকতার সাথে, যা মুসলমানদের জন্য বড় বেদনাদায়ক।
ইতিহাসের হৃদয়বিদারক ঘটনা সম্পর্কে অজ্ঞ না হলে এপ্রিল ফুল কোনো মুসলিমকে আনন্দ দান করতে পারে না। এখন আমরা কি পহেলা এপ্রিল হাসি-আনন্দের সাথে “এপ্রিল ফুল ডে” উদযাপন করব, নাকি ইউরোপের বুকে অসহায় মুসলিম নারী-পুরুষ, শিশুদের নৃশংস শাহাদাতের ঘটনা স্মরণে দুঃখ অনুভব করব?
‘এপ্রিল ফুল’ উদযাপন তথা একে অন্যকে বোকা বানিয়ে, মিথ্যা বলে আনন্দ লাভ করার প্রচেষ্টা মূলত খ্রিস্টানদের খুশিতে খুশি হওয়া ও মুসলিম শহীদদের অবমাননা করা। নাউযুবিল্লাহ!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে