‘ডেড সি’ থেকে মানুষ কেনো শিক্ষা গ্রহণ করে না???


পৃথিবীর অনেক সম্প্রদায় তাদের কৃত অপকর্মের শাস্তি পেয়েছে; যার উল্লেখ কুরআন মজিদে রয়েছে। এসব শাস্তির নিদর্শন আজো পৃথিবীতে বিদ্যমান। পরবর্তী উম্মতের শিক্ষার জন্য এ নির্দশনগুলো জরুরী। মধ্যপ্রাচ্যের ‘ডেড সি’ (মৃত সাগর) ভীতিকর মনে হয়। হযরত লূত আলাইহিস সালাম উনার সম্প্রদায় সমকামিতা, ডাকাতি ও খুন-খারাবিতে অভ্যস্ত ছিলো। এসব পাপাচার থেকে উম্মতকে ফিরিয়ে আনতে হযরত লূত আলাইহিস সালাম তিনি অনেক কোশেশ করেছেন। উম্মত ক্ষ্যান্ত হয়নি। শেষ পর্যন্ত আল্লাহ পাক তিনি শাস্তি হিসেবে পুরো জনপদ ধ্বংস করে দেন। হযরত জিবরীল আলাইহিস সালাম তিনি পুরো সম্প্রদায়কে উপরে উঠিয়ে উল্টো ফেলে দেন। ধ্বংস হয়ে যায় হযরত লূত আলাইহিস সালাম উনার সম্প্রদায় এবং সৃষ্টি হয় নিম্নাঞ্চলের। এ অঞ্চলে জর্ডান নদীর পানি জমা হয়ে সৃষ্টি হয় সাগর। এভাবে ‘ডেড সি’র জন্ম। সাগরের পানি এতো লবণাক্ত যে কোনো প্রাণী এ পানিতে বাঁচে না। অভিশপ্ত এ এলাকা সাগরের লেভেল থেকে অনেক নিচে। অনেক গভীর থেকে মাটি উঠিয়ে পুরো জনপদকে চাপা দেয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়। সংক্ষেপে এটা হলো ‘ডেড সি’র কাহিনী। আর সমকামীদের চরম শাস্তি। সমকামীরা কি এ ইতিহাস জানে না!

Views All Time
2
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে