‘পিলখানা হত্যাকাণ্ড ছিল সুদূরপ্রসারী নীলনকশা’


বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘‘বিডিআর ট্রাজেডি কোনো সাধারণ হত্যাকাণ্ড বা বিদ্রোহ ছিল না। এটা ছিল একটি সুদূরপ্রসারী নীলনকশা। একটি জাতির ভবিষ্যৎকে ভেঙ্গে খান খান করে দেয়ার জন্য এই নীল নকশা করা হয়েছিল।’’

মির্জা আলমগীর বলেন, ‘‘স্বাধীনতা যুদ্ধের নয় মাসেও আমাদের এতজন সেনা কর্মকর্তা মারা যাননি। এটা কোনো সাধারণ হত্যাকাণ্ড বা বিদ্রোহ ছিল না।’’তিনি বলেন, ‘‘উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপানোর জন্য সরকার নাসিরউদ্দিন পিন্টুকে গ্রেফতার করেছে। যিনি কোনোভাবেই এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত না। সরকার এর মাধ্যমে বোঝাতে চেয়েছে বিএনপি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত।’’

তিনি বলেন, ‘‘এই ষড়যন্ত্রের জন্যই আমেরিকার হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয় যে, বাংলাদেশের সেনাবাহিনীতে ৩৭ ভাগ জঙ্গী রয়েছে।’’

মির্জা আলমগীর বলেন, ‘‘একদিকে বিডিআর হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে জাতীয় নিরাপত্তা ধ্বংস করা হয়েছে। অন্যদিকে সংবিধান সংশোধন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বাতিল করে দেশকে অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দেয়া হয়েছে।’’

তিনি বলেন, বাংলাদেশকে পরনির্ভরশীল জাতিতে পরিণত করার জন্য দেশের অর্থনীতিকে পঙ্গু করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সরকারের ব্যর্থতার কারণে মানুষের জীবন দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। সাংবাদিক দম্পত্তি সাগর-রুনি নিজেদের ঘরের বেড রুমে নিহত হয়েছেন। কি লজ্জার কথা, প্রধানমন্ত্রী বলছেন ‘আমরা বেডরুম পাহারা দিতে পারবো না’। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে বলেন, ‘‘হত্যা হতে পারে। কিন্তু আপনি পরিহাস করবেন না।’’

মির্জা আলমগীর বলেন, দেশের এখন সবচেয়ে দুঃসময় চলছে। আসুন সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে স্বৈরাচারী সরকারকে হটাতে আন্দোলন করি।

বিগ্রেডিয়ার হান্নান শাহ বলেন, ‘‘আমি বেঁচে থাকলে আর বিএনপি ক্ষমতায় এলে বিডিআর হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ব্যবস্থা না নেয়ার জন্য তৎকালীন সেনাপ্রধান মইন উ আহমেদ এর অবশ্যই বিচার করা হবে।’’

মেজর জেনারেল অব. সৈয়দ ইবরাহিম বলেন, ‘‘আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি পিলখানা ট্রাজেডির জন্য বর্তমান সরকারই দায়ী।’’

মূল

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+