শ্রেষ্ঠ সর্বোত্তম উম্মাত উনাদের রাহবার শাফিউল উমাম হযরত শাহদামাদ আউওয়াল আলাইহিস সালাম


আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, كنتم خير امة اخرجت للناس- تأمرون بالمعروف وتنهون عن المنكر وتؤمنون بالله- অর্থ: “আপনারাই হলেন সর্বোত্তম উম্মত। মানবজাতির কল্যাণের জন্যই আপনাদেরকে সৃষ্টি করা হয়েছে। আপনারা সৎকাজের নির্দেশ দান করবেন এবং অসৎকাজে বাধা দিবেন। আর মহান আল্লাহ পাক উনার প্রতি ঈমান আনবেন।” (পবিত্র সূরা আলে ইমরান শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ ১১০) সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সরাসরি উম্মত হওয়ার কারণে উনাদের এই মর্যাদা-মর্তবা, বুযুর্গী, সম্মান তথা শ্রেষ্ঠত্ব। কেননা পূর্ববতী জাতির মধ্যে এরূপ অনেক লোকেরই আবির্ভাব ঘটেছিলো যে, যারা সৎ কাজে আদেশ দান এবং অসৎ কাজে বাধা প্রদান করেছিলেন। উনার মহান আল্লাহ পাক উনার প্রতিও নির্ভেজাল ঈমান রেখেছিলেন। কিন্তু উনারা এই শ্রেষ্ঠত্বের মাক্বাম লাভ করতে পারেননি। কাজেই একথা সমজেই অনুমেয় যে, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার উসীলায়, উনার বদৌলতে উম্মতে হাবীবী যে মর্যাদার উচ্চাসনে সমাসীন হয়েছেন হয়েছেন। এই উচ্চাসনে অধিষ্ঠিত ব্যক্তিত্বের দায়িত্ব কর্তব্য হচ্ছে সৎ কাজে আদেশ এবং অসৎ কাজে বাধা প্রদান করা। মহান আল্লাহ পাক এবং উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার একান্ত রহমত, বরকত, দয়া-দান, ও ইহসানের বদৌলতের বিশেষ এক শ্রেণীর মানুষ এই দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। ক্বিয়ামত পর্যন্ত তাদের ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে। কুতুবুল ইরশাদ, বাবুল ইলমি ওয়াল হিকাম, ক্বায়িম মাক্বামে হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি হচ্ছেন উনাদের মধ্যমণি রাহবার তথা পথপ্রদর্শক। তিনি যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম এবং সাইয়্যিদাতুন নিসায়িল আলামীন, ক্বায়িম মাক্বামে হযরত উম্মুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, উম্মুল উমাম, আওলাদে রসূল সাইয়্যিদাতুনা হযরত আম্মা হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনাদের খাছ তরবিয়ত বা তত্ত্বাবধানে অতিবাহিত হয় উনার মুবারক জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত, সময়। মা’রিফাত-মুহব্বতের অমীয় সুধা পানে যিনি ধন্য। তাকওয়া-পরহেজগারিতায় যিনি আ’লা দরজার অধিকারী। মহান সুন্নাত মুবারক উনার পায়রবীতে যিনি বেমেছাল ব্যক্তিত্বের অধিকারী। আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার উম্মতের কল্যাণ কামনায় যিনি সব সময় লিপ্ত। সারা দুনিয়ার খিলাফত আলা মিনহাজিন নুবুওওয়াত প্রতিষ্ঠার কাজে যিনি সর্বদা ব্যস্ত। মজলুম-অত্যাচারিত, নিপিড়িত, নির্যাতিত মুসলিম উম্মাহ-এর নাজাতের চিন্তায় যিনি লিপ্ত তিনি হচ্ছেন কুতুবুল ইরশাদ, বাবুল ইলমি ওয়াল হিকাম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা হযরত শাফিউল উমাম আলাইহিস সালাম। উনার পবিত্র বিলাদত শরীফ উনার এই মহান দিনে আমরা যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার খাছ ফয়েজ-তাওয়াজ্জুহ প্রার্থনা করছি। আমীন! আমীন!

Views All Time
2
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে