আবরার -blog


দেখতে মোটেও সুদর্শন নই। গায়ের রং উজ্জল শ্যামলা। তবে অনেকে ফর্সা বলে । সাধারণ উচ্চতার অধিকারী। ব্যক্তি জীবনে ভীষণ অগোছালো একজন মানুষ। আমি নিজেই আমার আত্মার অধিনায়ক । আমার স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ আমায় ছুড়ি দিয়ে বধ করার সমান । জীবন থেকে কৃত উপলব্ধি লেখালেখির একমাত্র পূঁজি। পৃথিবীর কাছে খুব বেশি কিছু চাওয়ার নেই, তবে পৃথিবীর মালিকের কাছে আবদার অনেক। কিছুটা রগচটা আর একরোখা ধরনের মানুষ। খুবই মিশুক, তবে ব্যক্তিগত বিষয়ে ভীষণ আত্মকেন্দ্রিক। প্রতিদিনই লালিত স্বপ্নের পরিমাণ বাড়ছে... বাড়ছে স্বপ্ন । নিজেকে গড়ার দেশ গড়ার।


 


ইমামুর রাসিখীন, গারীক্বে¡ বাহরে বিছাল, শাহিদে তাজাল্লিয়াতে যুল জালাল, যিকরানে কা’বায়ে মাকছূদ, আরবাবে হিদায়িত, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুত


মুবারক নাম ও পরিচিতি: আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুত তাসি’ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবম ইমাম অর্থাৎ সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুত তাসি’ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।



বিশ্বের সবচাইতে বেশি নারী নির্যাতন হয় এবং নারী অধিকার খর্ব করা হয় যেখানে…


  ১. সম্ভ্রমহরণ ও শ্লীলতাহানি হয়রানি: যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি ৪৫ সেকেন্ডে সম্ভ্রমহরণের শিকার হয় একজন নারী আর বছরে এই সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ায় সাড়ে ৭ লাখে। (সূত্র: দি আগলি ট্রুথ, লেখক মাইকেল প্যারেন্টি)। আর ব্রিটেনে প্রতি ২০ জনের মধ্যে একজন নারী ধর্ষিত হয়।



মহাসম্মানিত পবিত্র কুরআন শরীফ উনার আলোকে-সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি জানিয়ে দিন, আমি তোমাদের নিকট কোনো বিনিময় চাচ্ছি না। আর চাওয়াটাও স্বাভাবিক নয়; তোমাদের পক্ষে দেয়াও কস্মিনকালে সম্ভব নয়। তবে তোমরা যদি ইহকাল



ভারত কোনো ক্ষেত্রেই বাংলাদেশের সাথে কোনো চুক্তি, সমঝোতা ও প্রতিশ্রুতি রক্ষা করছে না। মুহুরীর চরে বাংলাদেশের অধিকার মেনে


বাংলাদেশ ভারতের মধ্যে আলোচিত বিরোধপূর্ণ ভূমি মুহুরীর চর। পরশুরাম উপজেলার বিলোনিয়া সীমান্তে মুহুরী নদীর পাশে এ চরের অবস্থান। এর কর্তৃত্ব নিয়ে বহুবার বাংলাদেশ ভারতের মধ্যে লড়াই হয়েছে। এ চর দখলে নিতে মরিয়া ভারত। ১৯৪৭ সালে দেশ বিভাগের পর থেকে মুহুরীর বিশাল



যুগে যুগে উলামায়ে ‘সূ’রা পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার চরম ক্ষতি করেছে


শের শাহ শূরীর নিকট পরাজিত সম্রাট আকবরের পিতা হুমায়ূন যখন সপরিবারে পলায়ন করছিল, তখন বর্তমান পাকিস্তানের অমরকোটে এক রাজপ্রাসাদে আকবরের জন্ম। প্রথম জীবনে লেখাপড়ার সুযোগ না পেলেও বৈরাম খাঁর নিকট যুদ্ধ বিদ্যায় হাতেখড়ি তার। অপরিণত বয়সেই তাকে সাম্রাজ্যের দায়িত্ব নিতে হয়েছিল।



পবিত্র রমাদ্বান শরীফ সংশ্লিষ্ট আমল


পবিত্র রমাদ্বান শরীফ মাস সমাগত। সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমান এ মাসে ইবাদত-বন্দেগী করে মহান আল্লাহ পাক এবং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি হাছিল করতে চাইবেন। কিন্তু সৃষ্টির নিকৃষ্ট জীব উলামায়ে ‘সু’ গং তাদের মনগড়া কিছু ফতওয়ার



রাজাকার নিজামীর রায়


নিজামীর রায় আগামীকাল দিবে ।। যাক ফেবুতে বৃষ্টির পর একটা জাতীয় ইস্যুর আগমন হতে যাচ্ছে । ফেবু ,ব্লগে কত ত্যানা প্যাচানি আর লেজ ধইরা কয়েকদিন টানাটানি দেখুম তার ইয়াত্তা নাই ।।।



দিল্লীর মসনদে জামাত


জামাতে হিন্দু (মোদী) বসতে যাচ্ছে দিল্লীর মসনদে। বাংলাদেশের রাজনীতিতে যে এটার প্রভাব পরবে না তেমনটি নয়। দাঙ্গাবাজ ও সাম্প্রদায়িক উগ্র নেতা মোদী কিভাবে দিল্লী চাকা ঘোরান তার উপর অনেক কিছু নির্ভর করে। অনুমান করে বলা যায়, মুসলিম বিদ্বেষী পররাষ্ট্রনীতি হিন্দু মুসলান



আর কত লাশ চাই গডফাদারদের?


একজন নির্যাতিত সাংবাদিকে বলেছিল :- ৫৪ হাজার বর্গমাইলের একটি কারাগারের নাম “বাংলাদেশ”। সেদিন কথাটা খুব একটা আমলে নেওয়া হয়নি কিন্তুু আজ সত্যিই মনে হচ্ছে এটিই পৃথিবীর সবচেয়ে বৃহৎ কারাগার। যার প্রাচীন নাম “সোনার বাংলাদেশ” হলেও এর বর্তমান নাম “ডিজিটাল বাংলাদেশ”। এখানে



স্বীকার করল ট্রাইবুনাল রেজিষ্টার


ঘটনা সত্য যে রায়ের আগে রায় ফাঁস হয়েছে, স্বীকার করল ট্রাইবুনাল রেজিষ্টার। যারা বলছে তারা ডাহা মিথ্যাচার ও অপপ্রচার করছে। তারা দেশের শত্রু – ইনু ৬ষ্ঠ তলার কোনো কম্পিউটারে .… ডিস্ক নাই – আইন প্রতিমন্ত্রী কথাগুলো মিলিয়ে দেখলে মনে হয় ইচ্ছা



যাকাত বন্টন ব্যাবস্থা ও বাংলাদেশ


ঈদের শপিং করতে মার্কেটে যাওয়া হয়নি এখনো । গত বার ঈদের আগের রাতে ২ বন্ধুকে নিয়ে একটা পাঞ্জাবি কিনেছিলাম । মার্কেটে গেলে প্রায় বিতিন্ন দোকানে দেখা যায় যে ‘যাকাতের লুঙ্গি শাড়ি পাওয়া যায়’ নামক সাইনবোর্ড । যার অধিকাংশই ২৫০-৩০০ টাকার শাড়ি



কেমন নেতা হবেন ?


৬০০ কয়েদী ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন একটা কারাগারে ২৫ হাজারের মত কয়েদীর বসবাস ছিল ম্যাক্সিকোর এক দাঙ্গার সময় । বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সুযোগে পুলিশের উপর হামলা চালায় কয়েদীরা । পুলিশ সামলাতে না পেরে বৃষ্টির মত গুলি ছুড়তে লাগল । এতে বিশৃঙ্খলা আরো বৃদ্ধি