আবু হুরাইরা -blog


...


 


হক্কানী-রব্বানী শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করা ফরয হওয়ার প্রমাণ 


  মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআনুল কারীম উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, أَطِيْعُوا اللهَ وَأَطِيْعُوا الرَّسُوْلَ وَأُولِي الْأَمْرِ مِنْكُمْ অর্থ: “তোমরা মহান আল্লাহ পাক উনাকে ও উনার রসূল নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদেরকে অনুকরণ কর



অশুভ বা কুলক্ষণ বিশ্বাস করা কুফরী


ফক্বীহুল উম্মত হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার থেকে বর্ণনা করেন। মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন,



সাইয়্যিদু সাইয়্যিদিশ শুহূরিল আ’যম পবিত্র রবীউল আউওয়াল শরীফ। যা আসতে আর মাত্র ১২ দিন বাকি।সুবহানাল্লাহ!


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) আপনি বলুন, মহান আল্লাহ পাক উনার ফদ্বল ও রহমত মুবারক অর্থাৎ আমাকে পাওয়ার কারণে তোমাদের উচিত ঈদ বা খুশি প্রকাশ করা।’ সুবহানাল্লাহ! আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ



প্রসঙ্গ: মসজিদে চেয়ারে বসে নামায প্রসঙ্গে ইফা’র ফতওয়া পরিবর্তন


‘মসজিদে চেয়ারে বসে নামায আদায় জায়িয নেই’ মর্মে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের দেয়া ফতওয়ায় দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হওয়ার এক দিনের মাথায় তা অস্বীকার করেছে সংগঠনটি। এভাবে ফতওয়া ঘুরিয়ে ফেলার কারণ সম্পর্কে জানা যায়, বর্তমান সরকারের কয়েকজন মন্ত্রী এই চেয়ারে বসে নামায আদায় করার



আল্লাহকে অবমাননার দায়ে মোশারফ করিম এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই


মোশারফ করিম কে না বলুন ! এবার অভিনেতা মোশারফ করিম মহান আল্লাহ পাক উনাকে নিয়ে ব্যঙ্গ করল Sikandar Box Er Hawai Gari – Part 3 ,এই নাটকের এক অংশে মোশারফ করিম আল্লাহ পাক উনাকে নিয়ে ব্যঙ্গ ডায়লগ দিয়েছে— নাটকের এক অংশে



বই মেলায় লেখক-প্রকাশকদের নিরাপত্তায় ওয়াচ টাওয়ার গুরুত্বপূর্ণ? নাকি বিতর্কিত বই নিষিদ্ধ করা গুরুত্বপূর্ণ?


একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে রিপোর্ট এসেছে, বই মেলায় লেখক প্রকাশকদের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ ওয়াচ টাওয়ার স্থাপন করা হচ্ছে, সাদা পোশাকে অধিক সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন থাকবে ইত্যাদি। খুব ভালো। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার্থে এসবের প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য। তবে প্রতিরোধের চেয়ে প্রতিকার উত্তম। অর্থাৎ যেসব কারণে



প্রসঙ্গ: বাংলাদেশী জাহাজে নজরদারি করতে চায় ভারত ॥ সন্দেহকারী কখনো বন্ধু হতে পারে না বরং শত্রুভাবাপন্ন


২০০৮ সালের মুম্বাই হামলার (২৬/১১ হামলা) জের ধরে ফের এরূপ হামলা প্রতিরোধের অজুহাত ধরে এবার বাংলাদেশ থেকে ছেড়ে যাওয়া জাহাজের গতিবিধির উপর কড়া নজরদারি করতে চাচ্ছে ভারত। যদিও ২০০৮ সালের মুম্বাইতে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় কোনো বাংলাদেশী জড়িত ছিলো না। কথিত আছে,



ভারতে বর্তমানে বিজেপি নয়, বিজেপি’র সাইনবোর্ডের আড়ালে আরএসএস তথা সঙ্ঘপরিবার ক্ষমতায় বসেছে।


নামসর্বস্ব সেকুলার সরকারের দুর্বলতা ও কাপুরুষতার ও কট্টর মুসলিমবিদ্বেষ পরায়ণতার কারণে ভারতে শিবসেনা, নবনির্মাণসেনা, রামসেনা ও আজকের হিন্দু রাষ্ট্রসেনার মতো উগ্রবাদী সংগঠনগুলো ফুলে ফেঁপে জেগে উঠেছে। তারা তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের লক্ষ্য বানাচ্ছে নিরপরাধ ও নিরীহ মুসলমানদেরকে। ভারতীয় পুলিশের সাথে দুইজন মুসলিম



সম্মানিত কুরআন শরীফ ও সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনাদের আলোকে সাইয়্যিদাতুনা হযরত আছ ছালিছাহ আলাইহাস সালাম উনাকে মুহব্বত করার বেমেছাল


আল্লাহ পাক তিনি উনার পবিত্র কালাম কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, قُلْ لَا أَسْأَلُكُمْ عَلَيْهِ أَجْرًا إِلَّا الْمَوَدَّةَ فِى الْقُرْبى وَمَنْ يَّقْتَرِفْ حَسَنَةً نَّزِدْ لَهُ فِيْهَا حُسْنًا إِنَّ اللهَ غَفُوْرٌ شَكُوْرٌ. অর্থ: “(হে আমার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন,



কোমল পানীয়ের নামে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে অ্যালকোহল, সরকারের উচিত অতিসত্বর এসব পানীয় নিষিদ্ধ করা


সম্প্রতি খবরে এসেছে, ‘শক্তিবর্ধক’, দৈহিক শক্তি বৃদ্ধিতে সহায়ক-এমন নাম দিয়ে অ্যালকোহল মিশ্রিত দৈহিক উত্তেজক ও শরীরের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন রকম পানীয় প্রকাশ্যে দেদারছে বিক্রি হচ্ছে। অথচ এদের গায়ে বিএসটিআরই-এর লোগো লাগানো আছে যা সত্যিই দুঃখজনক। তাছাড়া তরুণ প্রজন্মকে আকৃষ্ট করার জন্য



উম্মুল উমাম, সাইয়্যিদাতুন নিসা, আফযালুন নিসা, ক্বায়িম-মাক্বামে উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আম্মা হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “ছালিহীন তথা ওলীআল্লাহ উনাদের ছোহবত সমস্ত কায়িনাতবাসীর জন্য নূর তথা হিদায়েত ও রহমতস্বরূপ।” (মুকাশাফাতুল ক্বুলুব) অর্থাৎ হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের ছোহবত ইখতিয়ারের মাধ্যম দিয়েই সমস্ত কায়িনাতবাসী তথা জিন-ইনসান নূর তথা হিদায়েত



পবিত্র কুরবানীর হাট নিয়ে চলছে গভীর ষড়যন্ত্র সতর্ক হোন দেশবাসী!


বিগত কয়েকবছর থেকে দেখা যাচ্ছে কিছু ইসলামবিদ্বেষী মহল কুরবানীর হাট বন্ধ কারার জন্য নানা অযুহাত দেখিয়ে জোর প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রতিবছরের মত এই কুচক্রী মহল এবারও বেশ সক্রিয় হচ্ছে। এরা বিভিন্ন রকম ভুল তথ্য ছড়িয়ে কুরবানীর হাট সম্পর্কে প্রশাসনকে বিভ্রান্ত করার