ফরাজী ভাই -blog


...


ফরাজী ভাই
 


আহলু বাইতি শান মুবারক।


আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ মোদের মামদুজান আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ আলে মামদুজান। বিশাল ধরা টিকে আছে যাঁদের উছিলায় কুল কায়িনাত যেই কারনে অস্তিত্ব পায় হাবীবুল্লাহ উনার পরে হলেন যাঁদের শান। আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ মোদের মামদুজান আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ আলে মামদুজান। চান না কিছু



পর্দা বা বোরকার বিরোধিতাকারীরা মুসলমানগণ উনাদের অন্তর্ভুক্ত নয়। তারা কাট্টা কাফির ও চিরজাহান্নামী।


ম্মানিত ইসলাম পরিপূর্ণ দ্বীন বা জীবন বিধান। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে যেমন লেবাসের বর্ণনা রয়েছে, তেমনি লেবাসের মাধ্যমে পর্দা পালনের জন্যও সুদৃঢ় আদেশ মুবারক রয়েছে। আখিরী রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যে পবিত্র লেবাস



প্রসঙ্গ: পরিবেশ দূষণ ও যানজটের অজুহাতে কুরবানীর হাট ও জবাইয়ের স্থান দূরে সরিরে দেয়া। পবিত্র কুরবানী উনার পশুর হাট


মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, ১) “যে ব্যক্তি মহান আল্লাহ পাক উনার নিদর্শনসমূহের প্রতি সম্মান করবে, নিশ্চয়ই তা তাদের অন্তরের তাক্বওয়া বা পবিত্রতার কারণ।” (পবিত্র সূরা হজ্জ শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৩২) ২) “যে



নিজের যাকাত ফিতরা নিজেরাই বিতরণ করাটা শরীয়ত সম্মত নয়


মাসয়ালাটি শুনে নতুন মনে হতে পারে কিন্তু এটাই সত্য ও সঠিক মাসয়ালা যে, নিজের যাকাত ফিতরা নিজেরাই বিতরণ করাটা শরীয়ত সম্মত নয়। কেবল যাকাত-ফিতরার ক্ষেত্রেই নয় অনেক মাসয়ালাই মানুষ মনগড়াভাবে এবং সম্মানিত শরীয়ত উনার খিলাফ আমল করে থাকে। যেমন বাজার থেকে



اقرؤا هذه الجريدة (الاحسان الشريف)


العنوان الاصل من الجريدة الاحسان الشريف ************************************************************ قال الله سبحانه و تعالى “انما يريد الله ليذهب عن كم الرجس اهل البيت ويطهركم تطهيرا” اليوم العظيم المبارك ١٣ الرجب الحرام الشريف اظهر شأن ولادته المبارك حضرت امام الاول من اهل بيت رسول



আক্বায়িদু আহলিসসুন্নাহ ওয়াল জামায়াত।


আক্বায়িদু আহলিস্ সুন্নাহ ওয়াল জামায়াহ্ ***************************************** আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত উনার কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ আক্বীদাহ ***************************************** ১. মহান আল্লাহ পাক, মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সমস্ত নবী ও রসূল আলাইহিমুস্ সালাম ও হযরত



এক নজরে সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু আবীহা, বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত


সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু আবীহা, বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছানিয়াহ আলাইহাস সালাম উনার সবচেয়ে বড় পরিচয় মুবারক হচ্ছেন, তিনি হচ্ছেন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার লখতে



যা পড়তেই হবে,আমলও করতে হবে।


মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র ‘সূরা মুমতাহিনাহ শরীফ’ উনার ১ নম্বর পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “হে ঈমানদারগণ! তোমরা আমার শত্রু এবং তোমাদের শত্রুকে বন্ধু হিসেবে গ্রহণ করো না।” সমস্ত কাফির-মুশরিকরাই মহান আল্লাহ পাক উনার শত্রু এবং মুসলমান



গরু ছাগল মার্কা লোক


মুসলমান হওয়ার পরও যারা নিজেদের দ্বীন ইসলাম কে প্রাধান্য দেয় না, তারা সত্যিই নির্বোধ,অবুঝ সর্বোপরি চতুস্পদ যন্তুর চেয়ে খারাপ। @@@ যেমন সম্মানিত কুরবানী এটা মুসলমানদের ইবাদত।মুসলমান হয়ে যারা কুরবানীর হাট,কুরবানীর পশু,যবেহ করা ইত্যাদি বিষয়ে চু চেরা কিলকাল করে কাফিরদের ষড়যন্ত্র কে



নাউযুবিল্লাহ মিন সরকার


নাউযুবিল্লাহ মিন সরকার,ওয়াল গণতন্ত্র,ওয়াল মূর্খ,ওয়াল মুনাফিকীন,ওয়াল কাফিরীন,ওয়াল মুশরিকীন। ******************************** মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফে ইরশাদ মুবারক করেন ﺍﺣﻞ ﺍﻟﻠﻪ ﺍﻟﺒﻴﻊ ﻭ ﺣﺮﻡ ﺍﻟﺮﺑﻮﺍ .. অর্থঃআমি ব্যবসাকে করেছি হালাল আর সূদকে করেছি হারাম। এখানে কুরবানীর পশু,বা যেকোন বস্তু বেচা কেনা



কুরবানীর কবিতা


নাউযুবিল্লাহ মিন সরকার,ওয়াল গণতন্ত্র,ওয়াল মূর্খ,ওয়াল মুনাফিকীন,ওয়াল কাফিরীন,ওয়াল মুশরিকীন। ******************************** মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফে ইরশাদ মুবারক করেন ﺍﺣﻞ ﺍﻟﻠﻪ ﺍﻟﺒﻴﻊ ﻭ ﺣﺮﻡ ﺍﻟﺮﺑﻮﺍ .. অর্থঃআমি ব্যবসাকে করেছি হালাল আর সূদকে করেছি হারাম। এখানে কুরবানীর পশু,বা যেকোন বস্তু বেচা কেনা



ছি!হিন্দুরা কি অশালীন!!!!


ছি! কি বিশ্রী হিন্দুদের ধুতি। যা পরিধান করা আর না করা সমান ★***********★**************★ সুসভ্য, শালীন, মার্জিত, সাবলীল জাতি হচ্ছে মুসলমান। মুসলমানগণের পোশাকের প্রশংসা স্বয়ং মহান আল্লাহ পাক তিনি করেছেন। তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, “নিশ্চয়ই নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া