পেসমেকার -blog


...


 


স্টেরয়েড জাতীয় বড়ি ,ইনজেকশন দিয়ে নয় , প্রাকৃতিক পদ্ধতিতেই বাংলাদেশে পশু মোটাতাজাকরন করা হয় – ১


কোরবানির ঈদের আগে গরু কিনতে গেলে মোটাতাজা গরু দেখলেই মনে করা হয় ইঞ্জেকশন দিয়ে মোটা করা গরু। কিন্তু এটা সম্পূর্ণ ভুল ধারণা। প্রাকৃতিক উপায়েই ৩-৪ মাসের মধ্যে গরু মোটাতাজাকরণ করা যায়। গরু মোটাতাজাকরণ বা বীফ ফ্যাটেনিং (Beef Fattening) বলতে এক বা



গরু মোটাতাজাকরণের প্রাকৃতিক পদ্ধতি


বাংলাদেশে  গোস্ত ছাড়া বিভিন্ন উৎসব পালন, চিন্তা করাই যেনো অমূলক।  কোরবানি উপলক্ষকে সামনে রেখে যারা গরু মোটাতাজাকরণে আগ্রহী তাদের আগে থেকেই প্রস্তুতি নেয়া দরকার। গরু মোটাতাজাকরণ বা বীফ ফ্যাটেনিং (Beef Fattening) বলতে এক বা একাধিক গরু বা বাড়ন্ত বাছুরকে একটি নির্দিষ্ট



গ্রোথ হরমোন ছাড়া গরু মোটাতাজাকরণ পদ্ধতি


কোনো গ্রোথ হরমোন ব্যবহার ছাড়াই যেভাবে গবাদিপশুর বেশি গোশত নিশ্চিত করা যায়, সে সম্পর্কে কিছু পদ্ধতি স্বল্প পরিসরে আলোকপাত করা হল:অধিক গোশত উৎপাদনের জন্য ২ থেকে ৩ বছর বয়সের শীর্ণকায় গরুকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় খাদ্য সরবরাহ করে হূষ্টপুষ্ট



প্রাকৃতিক কোরবানীর জন্য গরু মোটাতাজাকরণ পদ্ধতি 


কিছুদিন পরেই আসছে মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহা তথা কুরবানীর ঈদ। সাধারণত বাংলাদেশে মানুষ কোরবানী করার জন্য গরুকেই বেছে নেই। আর সেটা যদি হয় মোটাতাজা তবে আনন্দের সীমা থাকে না। তাই কুরবানীকে সামনে রেখে যেসকল খামারী গরু মোটাতাজাকরণে আগ্রহী



বিধর্মীদের হাতে তুলে দেয়া লাখেরাজ সম্পত্তিই বর্তমানে দেবোত্তর সম্পত্তি। 


  সম্প্রতি হাইকোর্ট রায় দিয়েছে যে- সিলেটের রাগিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ও তারাপুর চা বাগান নিয়ে দেবোত্তর সম্পত্তি। যার ফলে প্রশাসন তারাপুর চা বাগান সরকারি প্রশাসন বিধর্মীদেরকে দিয়ে দেয় এবং রাগিব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ও উক্ত এলাকায় বসবাসরত মুসলমানদের উচ্ছেদ করার



ইসলামিক পশু জবাই পদ্ধতিটি হচ্ছে বিজ্ঞান সম্মত পদ্ধতি


  আপনার কি মনে হয় ইসলামিক পশু জবাই পদ্ধতিটি খুব নিষ্ঠুর? আসুন দেখা যাক, বিজ্ঞান কি বলে – গবেষণা: জার্মানির Hanover University এর প্রফেসর Wilhelm Schulze এবং তার সহযোগী Dr. Hazim এর নেতৃত্বে একটি গবেষণা পরিচালিত হয়। গবেষনার বিষয়বস্তু ছিল :



রাষ্ট্রদ্রোহী মালউন রানা দাস গুপ্তকে ফাসিতে ঝোলানো হোক


রানা দাসগুপ্তের ধৃষ্টতা সীমাহীন! একদিকে সে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদিকে আহবান করতেছে -বাংলাদেশে সরাসরি হস্তক্ষেপ করতে, আবার দিল্লিতে গিয়ে মোদির সাথে দেখা করে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা দিয়ে আসছে।সে নরখাদক মোদিকে বলেছে বাংলাদেশের উপর হস্তক্ষেপ করতে। রানা যা করেছে, সেটা পরিস্কার সংবিধানবিরোধী



ভারতের বাংলাদেশে চাকরীর বাজার দখল করার পর এবার গার্মেন্টস শিল্প ধ্বংস করার আঘাত।


ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভা একটি বিশেষ প্যাকেজ অনুমোদন করেছে, যাতে ২০১৮ সালের মধ্যে অন্তত ৪৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বস্ত্র ও পোশাক বিদেশে রপ্তানি করতে পারে তারা। এজন্য ফহিন্নি ভারতের কোষাগারের ওপরে বাড়তি ৫৫০০ কোটি টাকার বোঝা চাপবে। কিন্তু ভারতীয় বস্ত্র শিল্পকে বিশ্ব



ফাহিম হত্যাকান্ড এবং কিছু প্রশ্ন


মাদারীপুরে শিক্ষকের উপর হামলায় গ্রেপ্তার গোলাম ফাইজুল্লাহ ফাহিম রিমান্ডে থাকা অবস্থায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। কারা সন্ত্রাসী, কারা তৈরি করে, কারা পৃষ্ঠপোষক, কারা সন্ত্রাসী-গুপ্তহত্যা টিকিয়ে রেখে সুবিধা পেতে চায় -সব প্রশ্নের উত্তর আছে এই একটি হত্যাকাণ্ডের মধ্যে ছিল। কিন্তু এসকল



ভারত উদ্বেগ প্রকাশ করলে বাংলাদেশ কেন পারেনা ?


মুসলমানের রক্তে রঞ্জিত নরখাদক মোদী বাংলাদেশে কথিত হিন্দু হত্যার হুমকীতে উদ্বেগ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বার্তা দিয়েছে। অথচ এই নরপশু মোদী গুজরাটে হাজার হাজার মুসলমান শহিদ করেছে। মুসলমানের রক্তের উপর দাঁড়িয়ে ক্ষমতায় এসেছে। শুধুমাত্র গরুর গোশত বাসায় আছে এই গুজবে মুসলমান



সচিবালয় নয়, হিন্দুয়ালয়


—- একটু নজর বুলিয়ে নিন আপনি কোন দেশে বাস করছেন? ——— হিন্দু কর্মকর্তাদের নিচের তালিকা দেখলে সহজেই বোঝা যায় সচিবালয়ের নেমপ্লেটগুলোতে হিন্দু নামের আধিপত্য কেমন? বর্তমান সচিব : ১. ঊরুন দেব মিত্র, ২. উজ্জ্বল বিকাশ দত্ত, ৩. রণজিত কুমার বিশ্বাস। বর্তমান



আইএস এর স্রষ্টা আমেরিকা ইসরাইলে হামলা করা হোক।


মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হওয়ার খবর পেয়েই বাংলাদেশে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় তাদের সহযোগিতা দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে আসছে। আমেরিকা- ১) অন্যদেশে আইনি প্রক্রিয়ায় খুনেরও বিরুদ্ধে দাড়ায়।যারা খুনীর মৃত্যুও সইতে পারে না।এমন একটি কথিত মানবিক দেশ আজ নিজেই আক্রান্ত