আশিকুর রহমান -blog


...


 


সামর্থ্যহীন গরিবদের পবিত্র কুরবানী করতে সরকারীভাবে অর্থ বরাদ্দ দেয়া হোক


সংখ্যালঘু-বিধর্মীরা মূর্তিপূজা করার সময় ধনী-গরিব প্রত্যেককে মুসলমানের খাজাঞ্চীখানা থেকে সরকারি অর্থ বরাদ্দ দেয়া হয়। অথচ সরকারের বরাদ্দকৃত এ টাকার মালিক মূলত মুসলমানরাই। কারন এ দেশের আয়ের পুরোটাই মুসলমানদের অবদান। কথা হলো, এদেশে পবিত্র কুরবানী দিতে সামর্থ্য রাখে না কিংবা তিন বেলা



বিদআতের পরিচয়, বিদআত কাকে বলে কত প্রকার ও কী কী বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।


উসূলের কিতাবে উল্লেখ রয়েছ যে, اصول، لمشرع ثلثة القران- الحديث- الاجماع ورابعها القياس- (نور الانوار) অর্থঃ- “মূলতঃ ইসলামী শরীয়ত উনার ভিত্তি হলো তিনটি। পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফ,পবিত্র ইজমা শরীফ এবং চতুর্থ হলো- পবিত্র ক্বিয়াস শরীফ।” (নুরুল আনোয়ার)  মহান আল্লাহ রাব্বুল



শিয়া সম্প্রদায় ও তাদের কুফরি আকিদা


শিয়াদের পরিচিতি:  শিয়া একটি বাতিল বা ভ্রান্ত ফিরকা। যারা হযরত আলী আলাইহিস সালাম উনাকে অনুসরনের দোহাই দিয়ে সাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু আনহুম উনাদের চরম বিরোধীতা করে তাদের শিয়া বলে। এদেরকে রাফেযী ও বলা হয়ে থাকে। ইসলামের বিরুদ্ধে ইহুদীদের এক সুদূরপ্রসারী চক্রান্তের ফসল



পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এমন এক মহান আমল, এমন এক ঈদ, যদি কোন মানুষ এই ঈদ


۞ পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এমন এক মহান আমল, এমন এক ঈদ, যদি কোন মানুষ এই ঈদ পালন করে অবশ্যই সে প্রতিদান পাবেই পাবে। ۞ , মানুষের সমগ্র জীবনের অনেক আমল থাকে, সে আমল আল্লাহ পাক উনার দরবারে



সাইয়্যিদুল মুরসালিন, ইমামুল মুরসালিন, খতামুন নাবিয়্যিন, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনিই সৃষ্টির মূল। উনাকে সৃষ্টি না


╰☆╮সাইয়্যিদুল মুরসালিন, ইমামুল মুরসালিন, খতামুন নাবিয়্যিন, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনিই সৃষ্টির মূল। উনাকে সৃষ্টি না করা হলে মহান আল্লাহ পাক কিছুই সৃষ্টি করতেন না। ╰☆╮ , ✲ হযরত ওমর ইবনুল খাত্তাব রাদ্বিআল্লাহু তা’য়ালা আনহু থেকে বর্নিত, عن



১৭ই রমাদ্বান শরীফ দিনটি ৫টি কারণে সম্মানিত।


আজ ১৭ই রমাদ্বান শরীফ দিনটি ৫টি কারণে সম্মানিত। কারণগুলো হলো- ১) এ দিনে যিনি হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার হৃদয় সঙ্গিনী, জান-মাল উৎসর্গকারিণী সাইয়্যিদাতুনা হযরত কুবরা (হযরত খাদিজাতুল কুবরা) আলাইহাস সালাম উনারা মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন উনার



রমাদ্বান শরীফ উনার মর্জাদা সম্পর্কে একটি ঘটনা।


    রমাদ্বান শরীফ একেবারেই আমাদের দ্বারপ্রান্তে এসে দাঁড়িয়েছে । তাই রমাদ্বান শরীফ নিয়ে আমার জানা অনেক আগের একটি ঘটনা আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। – আরব দেশের এক এলাকায় একজন ইহুদী মহিলা বসবাস করত। সে মারা যাবার পর এক বুজুর্গ ব্যক্তি



বিভিন্ন ইসলামিক বিশেষ বিশেষ দিবসে মানব শয়তানরা নেক ছূরতে ধোঁকা দেয়।


নেক ছূরতে ধোঁকা।   , খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি শয়তানের ধোঁকা থেকে বাঁচার জন্য মানবজাতিকে দোয়া শিক্ষা দিয়েছেন যে- ‘আউযুবিল্লাহি মিনাশ শায়তনির রযীম’। অর্থাৎ এই দোয়া বলার সাথে সাথে শয়তান চলে যাবে এবং মানবজাতি বেঁচে যাবে। কিন্তু যখন



হিন্দুদের বর্বরতার শেষ কোথায়!!!


  এবার ফেণীতে ঘটল মুসলিম যুবকের উপর এক লোমহর্ষক আক্রমন!! এক মুসলিম মায়ের কোল খালি করে দিল বর্বর, ম্লেছ, সন্ত্রাসী হিন্দুরা…! সংখ্যালঘুর নাম দিয়ে সরল প্রাণ মুসলমানদের উপরে আর কত নির্যাতন চালাবে বর্বর, সন্ত্রাসী হিন্দুরা!!! আর মৌনতা নয়। সকল মুসলমানরা একসাথে



ঐতিহাসিকভাবে প্রমাণিত যে, বর্তমানে প্রচলিত বাংলা সন প্রকৃতপক্ষে মোগল বাদশাহ আকবর কর্তৃক প্রবর্তিত ফসলী সনের আধুনিক রূপ |


ঐতিহাসিকভাবে প্রমাণিত যে, বর্তমানে প্রচলিত বাংলা সন প্রকৃতপক্ষে মোগল বাদশাহ আকবর কর্তৃক প্রবর্তিত ফসলী সনের আধুনিক রূপ | বাদশাহ আকবর নিজে বাঙালি বা বাংলাদেশী বা তার মাতৃভাষা বাংলা ছিলো না | তাহলে কি করে মোগল বাদশাহ আকবর কর্তৃক প্রবর্তিত ফসলী সন,



নাট্যকর্মী তনু হত্যা, ধর্মান্তরিত খ্রিস্টান হত্যা ও হিন্দু পুরোহিত হত্যার নেপথ্যে ভারতীয় সংস্থা


কয়েকদিন আগে কুড়িগ্রামে হোসেন আলী (৬৫) নামক এক ধর্মান্তরিত খ্রিস্টানকে খুন করা হলো। পত্রিকাগুলো হেডিংয়ে বারবার ‘ধর্মান্তরিত’ শব্দ লাগিয়ে খবরটি প্রচার করছে, যেন ধর্মান্তরিত হওয়ার কারণেই তাকে হত্যা করা হয়েছে। (http://goo.gl/7cSo6X) এখন বিষয়টি হলো, ঐ ব্যক্তিটি ধর্মান্তরিত হয়েছে আজকে কালকে নয়,



রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বাতিলের প্রক্রিয়া: যার সূত্রপাত ঘটেছিল একটি সিনেমা হল থেকে…


  ‘মুন সিনেমা হল মামলা’ সম্পর্কে সাধারণ মানুষদের কয়জন জানেন? কেউই হয়তো কিছু জানেননা, কারণ সাধারণ মানুষ ব্যস্ত রয়েছে ক্রিকেট খেলা ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে। অথচ এই ‘মুন সিনেমা হল’ মামলাকেই ঘুরিয়ে-পেঁচিয়ে এমন এক রায় দেয়া হয়েছে, যাতে বাতিল হয়ে গিয়েছে