মাসউদুর রহমান -blog


...


মাসউদুর রহমান
 


মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র সিলসিলা মুবারক বর্তমান সময় পর্যন্ত যেভাবে


আর ইমামুছ ছানী মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশের পূর্বে সম্মানিত ইমামত মুবারক উনার বিষয়টি সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছালিছ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নিকট



সন্তান জন্মের ব্যাপারে নাস্তিকদের বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য খন্ডন


============================ নাস্তিকদের আপত্তি : কুরানে বার বার উল্লেখ করা হয়েছে পুরুষের থেকে নির্গত বীর্য থেকে সন্তানের জন্ম হয় (Quran ৮৬:৫-৬, ৭৬:২, ২৩:১৩-১৪, ৫৩:৪৫-৪৬, ৮০:১৯, ২:২২৩)! কিন্তু স্ত্রীর ডিম্বানুর যে ভূমিকা সে ব্যাপারে কিছুই বলা হয়নি! এটা কি মুহম্মদের অজ্ঞতা ছাড়া অন্য



মুসলমান উনাদের জন্য ফরয হচ্ছে- হারাম বিষয়গুলো হতে বিরত থাকা ও শরয়ী পর্দা পালন করা


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘দাইয়্যূছ কখনো জান্নাতে প্রবেশ করবে না।’ নাউযুবিল্লাহ! মহাসম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে ‘যে ব্যক্তি পর্দা করে না ও অধীনস্থদের পর্দায় রাখে না, সে দাইয়্যূছ।’ টিভি চ্যানেল, ছবি, সিনেমা,



বাল্যবিবাহ নিয়ে বিভ্রান্তি


মগজ ধোলাই কার্যক্রম কতখানি কার্যকরি হতে পারে তার একটি প্রকৃষ্ট উদাহরণ হচ্ছে বাল্যবিবাহ নিয়ে আমাদের সমাজে চলমান উপলোব্ধিগত অবস্থান। বর্তমান যামানার মুসলমানরা বাল্যবিবাহকে শুধু অপছন্দই নয় বরং রীতিমতো ঘৃনা করতে শুরু করেছে। নাউযুবিল্লাহ! অথচ পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের



মহিলাদের জন্য উত্তম আমল হলো পর্দানশীন থাকা


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “মহিলারা পর্দার সাথে থাকবে। কেননা যখন তারা বের হয় তখন শয়তান উঁকিঝুঁকি দিতে থাকে।” অর্থাৎ তাদের দ্বারা কোনো পাপ কাজ সংঘটিত করানো যায় কিনা এ চেষ্টা করতে থাকে। নাঊযুবিল্লাহ! পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার



“দৃষ্টি শক্তি সতেজ রাখার অনন্য উৎস”


“দৃষ্টি শক্তি সতেজ রাখার অনন্য উৎস” খালিক্ব মালিক রব মহান রব্বুল আলামীন তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমাদের জন্য নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার জীবনী মুবারক উনার মধ্যেই রয়েছে উত্তম আদর্শ।” আর নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক



মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার দোয়ার প্রতিফলন স্বরূপ মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতনকারী কাফিরদের উপরে খোদায়ী গজব খোদায়ী গযবে সাড়ে চার


অতি সম্প্রতি তুষারপাতে সাদা হয়ে গেল লন্ডনের রাস্তাঘাট। সারাদিনই তুষারপাত হয়েছে লন্ডনে। শুধু লন্ডনই নয়, তুষারপাত হয়েছে গোটা বৃটেন জুড়ে। শহরে তুষারপাতের পরিমাণ ছিল ৩ সেন্টিমিটার। শহর থেকে কিছুটা দূরে উইকম্বে তুষারপাতের পরিমাণ ছিল ১৭ সেন্টিমিটার। দেশের কিছু অংশে সর্বোচ্চ ৩২



‘হিজরী সন’-এর প্রতি বিদ্বেষ করেই এলাহী বা ফসলী সন চালু করা হয়েছে


ভারতবর্ষে মুঘল সম্রাজ্য প্রতিষ্ঠার পর সম্রাটরা হিজরী পঞ্জিকা অনুসারে কৃষিপণ্যের খাজনা আদায় করতো। খাজনা আদায়ে নতুন প্রথা প্রণয়নের লক্ষ্যে মুঘল সম্রাট আকবর নতুন সনের প্রবর্তন করে। সম্রাটের আদেশ মতে জ্যোতির্বিজ্ঞানী ফতেহউল্লাহ সিরাজি সৌর সন এবং আরবী হিজরী সনের উপর ভিত্তি করে



পাবর্ত্য চট্টগ্রামে উপজাতি গোষ্ঠীগুলোকে উস্কানি দিচ্ছে বিদেশী এনজিওগুলো


পার্বত্য চট্টগ্রামে উপজাতি গোষ্ঠীগুলো উস্কে দেয়ার মূলে কাজ করছে বিদেশী কিছু সংস্থা, যেমন- জাতিসংঘ (ইহুদীসংঘ), ইউএনডিপি, কারিতাস, কেয়ার, আশা, সিসিডিবি’সহ আরো কিছু বিদেশী এনজিও। এরাই কুটবুদ্ধি ও কুপরামর্শ দিয়ে উপজাতি গোষ্ঠীগুলোকে ক্ষেপিয়ে রাখছে। এই উস্কে দেয়ার পেছনে উপজাতিদের মুলো দেখানো হয়-



সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উপলক্ষে খুশি প্রকাশ না করলে কঠিন শাস্তি ভোগ


পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, হযরত ঈসা আলাইহিস সালাম তিনি দোয়া করেছিলেন, “আয় আল্লাহ পাক! আয় আমাদের রব! আমাদের জন্য আপনি আসমান হতে (বেহেশতী খাদ্যের) খাদ্যসহ একটি খাঞ্চা নাযিল করুন। খাঞ্চা নাযিলের উপলক্ষটি অর্থাৎ খাদ্যসহ খাঞ্চাটি যেদিন নাযিল



নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ‘হায়াতুন্ নবী’ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ‘হায়াতুন নবী’। এ সম্পর্কে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “যারা মহান আল্লাহ পাক উনার রাস্তায় শহীদ হয়েছেন, তোমরা উনাদেরকে মৃত বলো না, বরং উনারা জীবিত। অথচ তোমরা তা উপলব্ধি



উযু করার নিয়মাবলী ও ফযীলত


উযুর ফযীলত: নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ক্বিয়ামতের দিন আমার উম্মতগণকে এ অবস্থায় পেশ করা হবে যে, তখন তাদের চেহারা দুনিয়ায় থাকতে যে উযু করেছিল উহার বরকতে এমন ঝকমক করতে থাকবে- যেমন ঘোড়ার