মাসউদুর রহমান -blog


...


মাসউদুর রহমান
 


যারা মসজিদ ভাঙবে, মসজিদ ভাঙ্গার কাজে সাহায্য-সহযোগিতা করবে এবং সমর্থন করবে, তাদের প্রত্যেকেরই জায় ঠিকানা হচ্ছে জাহান্নাম


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, المسجد بيت الله والمدرسة بيتى অর্থ: “মসজিদ মহান আল্লাহ পাক উনার ঘর আর মাদ্রাসা আমার ঘর।” সুবহানাল্লাহ! সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে আরো



মুসাফিরী পথের দূরত্ব সম্পর্কে বিশেষ তাজদীদ মুবারক প্রকাশ


  খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুশ শরী‘য়াহ ওয়াত তরীক্বাহ, কুতুবুল ‘আলম, মুজাদ্দিদে আ‘যম, আল গওছুল আ’যম, সুলত্বানুল আওলিয়া, মাখযানুল মা’রিফাহ, খযীনাতুর রহমাহ, মুঈনুল মিল্লাহ, লিসানুল উম্মাহ, তাজুল মুফাসসিরীন, রঈসুল মুহাদ্দিছীন, ফখরুল ফুক্বাহা, হাকীমুল হাদীছ, হুজ্জাতুল ইসলাম, সাইয়্যিদুল মুজতাহিদীন, মুহইস সুন্নাহ, মাহিউল বিদয়াহ,



কুল-মুসলিমাতের তরে যিনি উসওয়াতুন হাসানাহ


মহিলা আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিন্না উনাদের সম্পর্কে আলোচনা আসলে মানুষ দু’একজনের মাঝেই সীমাবদ্ধ থাকে। কিন্তু এই আখিরী যামানাতেও এমন অনেক মহান ব্যক্তিত্বা রয়েছেন, উনাদের সম্পর্কে খুব কম মানুষের অবগতি রয়েছে। হ্যাঁ, তবে খুব কম সংখ্যক লোক উনাদের সম্পর্কে জানলেও উনাদের হাক্বীক্বত



জোড়া লাগাও জোড়া ভেঙ্গো না, জোড়া ভাঙ্গলে কিছুই পাবে না


এ পৃথিবীর সকল সৃষ্টি ও দ্বীনী অঙ্গনে জোড়তত্ত্ব কার্যকর রয়েছে। এ জোড়া থেকেই নব নব সৃষ্টির হয় উন্মেষ। যার নেই কোনো শেষ। তবে নিম্নে এর মধ্য থেকে কয়েকটি জোড়ার করছি সমাবেশ- (১) পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র আহলে বাইত শরীফ উনাদের



পবিত্র কুরবানীকে যারা অপচয় বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে তাদের বোধশক্তি বিকল হয়ে পড়েছে


  পবিত্র কুরবানী উপলক্ষে মুসলমানরা এত লক্ষ লক্ষ গরু, খাসি, দুম্বা বা ভেড়া জবাই দিয়ে নাকি অপচয় করছে। নাউযুবিল্লাহ! আর তা চিন্তা করতে করতে অস্থির হয়ে এক মুরতাদ লিখেছে- “মুসলমানরা ফি-বছর লাখ কুড়ি গরু-ছাগল ছুরির নিচে ফেলেন পবিত্র কুরবানী উনার নামে।



সাইয়্যিদাতুন নিসা হযরত উম্মু মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম তিনি ক্বায়িম-মাক্বামে উম্মু রসূলিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম


যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার লক্ষ্যস্থল আওলাদে রসূল, মুজাদ্দিদে আ’যম ইমাম ঢাকা রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিতা মাতা সাইয়্যিদাতু নিসায়িল আলামীন, ক্বায়িম-মাক্বামে উম্মু রসূলিল্লাহ আলাইহাস সালাম, আওলাদুর রসূল আমাদের সম্মানিতা হযরত দাদী হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম



নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নিকট মহিলাদের মধ্যে উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত


উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দিক্বা আলাইহাস সালাম উনার সম্পর্কে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে- عن انس رضى الله تعالى عنه قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم احب النساء الى حضرت عائشة عليها السلام ومن الرجال ابوها. অর্থ:



পবিত্র সুন্নত তথা দ্বীন ইসলাম থেকে দূরে সরে যাওয়ার পরিণাম অত্যন্ত ভয়াবহ


মহান আল্লাহ পাক তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সমস্ত উম্মতকেই সর্বশ্রেষ্ঠ জান্নাত হাদিয়া করবেন এবং সর্বোচ্চ সম্মানে অধিষ্ঠিত করবেন। সুবহানাল্লাহ! তবে তাঁকে অবশ্যই হাক্বীকী ‘বান্দা’ ও ‘উম্মত’ হতে হবে। এজন্য মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ



প্রচলিত ছয় উছূলী চিল্লাওয়ালা তাবলীগ জামাত হচ্ছে শয়তানের প্ররোচনায় সৃষ্ট একটি দল


চিল্লাওয়ালা তাবলীগ কিন্তু পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ সম্মত কোনো পথ নয়। এটা তাদের মুরুব্বী ইলিয়াসের বক্তব্য দ্বারাই প্রমাণিত যে তাবলীগ হচ্ছে এস্তেদারাজের ফল। এস্তেদারাজ কি জিনিস জানেন? এস্তেদারাজ হচ্ছে শয়তানের ওয়াসওয়াসা দ্বারা কোনো মানুষের দস্বপ্নে অথবা আত্মিকভাবে তৈরি



নাস্তিকদের নিয়েই ‘শিক্ষা কমিটি’


  দেশব্যাপী মুসলমানদের ব্যাপক প্রতিবাদ ও আন্দোলনের মুখে পাঠ্যবই থেকে যেসব গল্প, কবিতা ও প্রবন্ধ বাদ দেয়া হয়েছিলো; সেগুলো আবারো সংযোজিত হচ্ছে নাস্তিক্যবাদী ও হিন্দুত্ববাদীদের দাবিতে। পাঠ্যবই থেকে ‘ও-তে ওড়নার’ বদলে ‘ওজন’ শব্দ ও ছবি অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। এ রকম আরো



তাইয়াম্মুম ওয়াজিব হওয়ার শর্ত:


  (১). মুসলমান হওয়া, (২). বুদ্ধিমান হওয়া, (৩). বালেগ/বালেগা হওয়া, (৪). হাদাছ (উযূ ও গোসল উনাদের কারণ) বর্তমান থাকা, (৫). হায়িয বা মাসিক মাজুরতা না থাকা, ৬. নিফাস বা সন্তান প্রসবের পর মাজুরতা না থাকা, ৭. যেসব বস্তুর দ্বারা তাইয়াম্মুম জায়িয



উম্মুল উমাম, সাইয়্যিদাতুন নিসা, আফযালুন নিসা, ক্বায়েম-মাক্বামে উম্মুল মু’মিনীন হযরত আম্মা হুযূর ক্বিবলা আলাইহাস সালাম উনার ছোহবত ইখতিয়ার করা


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “ছালিহীন তথা ওলীআল্লাহ উনাদের ছোহবত সমস্ত কায়িনাতবাসীর জন্য নূর তথা হিদায়েত ও রহমতস্বরূপ।” (মুকাশাফাতুল ক্বুলুব) অর্থাৎ হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের ছোহবত ইখতিয়ারের মাধ্যম দিয়েই সমস্ত কায়িনাতবাসী তথা জিন-ইনসান নূর তথা হিদায়েত