মাসউদুর রহমান -blog


...


 


পবিত্র আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সাথে কোন সৃষ্টির মাঝে তুলনা করা যাবে না। উনারা সকল মিছালের উর্ধ্বে


এ প্রসঙ্গে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- قال النبى صلى الله عليه وسلم نـحن اهل البيت لايقاس بنا احد অর্থ : নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- আমরা, পবিত্র আহলু বাইত



মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র আইয়্যামুল্লাহ শরীফ উনাদের পরিচিতি মুবারক এবং পালনের গুরুত্ব, তাৎপর্য ও ফাযায়িল-ফযীলত মুবারক


اَيَّامٌ (আইয়্যামুন) শব্দ মুবারকখানা يَوْمٌ (ইয়াওমুন) শব্দ মুবারক উনার বহুবচন। অর্থ দিনসমূহ। আর শব্দ মুবারকখানা লফযে আল্লাহ (اَللهُ শব্দ মুবারক) উনার সাথে ইযাফত হয়ে- اَيَّامُ اللهِ (আইয়্যামুল্লাহ্) হয়েছেন। সুবহানাল্লাহ! আর اَيَّامُ اللهِ (আইয়্যামুল্লাহ্) উনার অর্থ হচ্ছেন- যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান



এক নজরে- সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন, আফদ্বলুন নাস ওয়ান নিসা বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা


সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম তিনি হচ্ছেন হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের মধ্যে বিশেষ ব্যক্তিত্বা মুবারক। সুবহানাল্লাহ! তিনি শুধু যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি নন এবং নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ



সুমহান বেমেছাল বরকতময় ৩রা ছফর শরীফ। সুবহানাল্লাহ!


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “হে হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম! নিশ্চয়ই আপনারা অন্য কোনো মহিলাদের মতো নন।” অর্থাৎ কোনো পুরুষ ও মহিলা কেউই আপনাদের মত নয়। সুবহানাল্লাহ! আজ সুমহান বেমেছাল বরকতময় ৩রা ছফর শরীফ। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ



হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম উনার


ইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন, উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম উনার ‘আযীমুশ শান নিসবতে ‘আযীম শরীফ প্রথম শাদী মুবারক: সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন,



মাযহাব মানা ফরয; অস্বীকারকারীরা গুমরাহ


মাযহাব অনুসরণ করার বিশেষ কয়েকটি খুছুছিয়ত- ১. সহীহ ও সুস্পষ্টভাবে সম্মানিত শরীয়ত পালন করা, ২. পবিত্র কুরআন মাজীদ ও পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের সঠিক তাফসীর ও ব্যাখ্যা জেনে আমল করা, ৩. ইজমাউল উম্মাহ ও ছহীহ ক্বিয়াস উনাদের মাসয়ালাগুলো সহজেই জানা, ৪.



উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র বরকতময় নসবনামাহ মুবারক


সাইয়্যিদাতু নিসায়ি ‘আলাল ‘আলামীন, আফদ্বলুন নাস ওয়ান নিসা’ বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উম্মুল মু’মিনীন সাইয়্যিদাতুনা হযরত আল হাদিয়াহ্ ‘আশার আলাইহাস সালাম তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র নসব মুবারকগত দিক থেকে সম্মানিত কুরাইশ বংশীয়। সুবহানাল্লাহ! উনার মহাসম্মানিত পিতা হচ্ছেন সাইয়্যিদুনা হযরত



ইতিহাসে এই প্রথম, নজিরবিহীন, অভূতপূর্ব, আশ্চর্যজনক, কিংবদন্তী, বিস্ময়কর ঘটনা…..


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুজূর পাক হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রশংসা মুবারক বর্ণনা করে সারা বিশ্বজুড়ে অনেক মাহফিল হয়। কোনটি হয় ১ দিন কোনটি হয় ২ দিন কোনটি হয় ৭দিন কোনটি বা হয় ৩০ দিনব্যাপী। কিন্তু সারা বছর এমনকি



বিধর্মীরা তাদের কথিত ধর্মীয় ঐতিহ্য লালন করতে অসভ্যতা, বর্বরতা, কুসংস্কারকে আঁকড়ে ধরে আছে; পক্ষান্তরে মুসলমানরা কাফিরদের সাথে মিশে নিজের


মালউন (অভিশপ্ত) সম্প্রদায় হিসেবে যবন, ম্লেচ্ছ, অস্পৃশ্য মূর্তিপূজারী (মুশরিক) জাতি কুখ্যাতি অর্জন করেছে বহু বছর আগে। পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “নিশ্চয়ই মুশরিকরা নাপাক।” (পবিত্র সূরা তওবা শরীফ, পবিত্র আয়াত শরীফ-২৮) কাফির-মুশরিকরা এখনো সভ্য সমাজে (মুসলমানদের সাথে) বাস



মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ এবং মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের আলোকে মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র ‘ফালইয়াফরহূ শরীফ’ সাইয়্যিদুল


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- قُلْ بِفَضْلِ اللهِ وَبِرَحْـمَتِهٖ فَبِذٰلِكَ فَلْيَفْرَحُوْا هُوَ خَيْرٌ مِّـمَّا يَـجْمَعُوْنَ. অর্থ: “আমার মাহবূব হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি সমস্ত জিন-ইনসান, তামাম কায়িনাতবাসী সবাইকে জানিয়ে



মুসলমানরা তাদের দ্বীনকে টিকিয়ে রাখার জন্য কতটুকু মাল ও সময় ব্যয় করে?


বিধর্মীদের পূজার সময় সমস্ত সরকারি হাই স্কুল ও কলেজগুলো থেকে সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের জোরপূর্বক পূজায় শরীক করানো হয়। নাউযুবিল্লাহ! ৯৮% মুসলমান অধ্যুষিত দেশ বাংলাদেশ, এই দেশ একটি স্বাধীন দেশ, ৩০ লাখ শহীদের তাজা রক্তে গোসল করেছে এদেশ, মুফতে স্বাধীনতা পাওয়া যায়নি। অনেক



হযরত খুলাফায়ে রাশিদীন আলাইহিমুস সালাম উনারা উনাদের খিলাফতকালে নাবিইয়ুর রহমাহ, নাজিইয়ুল্লাহ, নূরুম মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া


যেমন এ প্রসঙ্গে বিশ্ব সমাদৃত ও সুপ্রসিদ্ধ ‘আন নি’মাতুল কুবরা আলাল আলাম’ কিতাবে বর্ণিত রয়েছে- আফদ্বালুন নাস বা’দাল আম্বিয়া, খলীফাতু রসূলিল্লাহ হযরত আবূ বকর ছিদ্দীক্ব আলাইহিস সালাম তিনি বলেন- من انفق درهما على قرائة مولد النبى صلى الله عليه وسلم كان