মাসউদুর রহমান -blog


...


 


অমঙ্গলযাত্রা নিয়ে জাহিল মূর্খদের মূর্খতাসূচক বক্তব্য


বৈশাখী পূজার একদিন আগে এক বক্তা বলেছে- কথিত অমঙ্গযাত্রা নাকি মুঘল আমল থেকেই হয়ে আসছে। আর মঙ্গল শব্দটার সাথে নাকি হিন্দুয়ানীর কোনো সম্পর্ক নেই। এমন খবর শুনে দেখে দেশের শিশু-কিশোর থেকে সব শ্রেণী পেশার মানুষ একপ্রকার হতবাক বললেও চলে। কারণ, যদিও



অমুসলিম জাতিসমূহের বংশপরম্পরায় পালনীয় বিশেষায়িত মুসলিমবিরোধী খাদ্যাভ্যাস-সংস্কৃতি-পোশাকরীতি ও মুসলমানদের করণীয়


অস্ট্রেলিয়ার সিডনি রাজ্যের লিভারপুল শহরে একটি ‘আন্তঃধর্মীয় সম্মেলনে’র আয়োজন করেছিল লিভারপুল সিটি কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ। সম্মেলনে আগতদের মধ্যে মুসলিম অতিথি থাকায় খাবারের মেন্যুতে স্বাভাবিকভাবেই শুকরের গোশত রাখা হয়নি। কিন্তু তাতে করে ফুঁসে উঠে উক্ত এলাকার মেসিডোনিয়ান খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সদস্যরা। স্থানীয় পত্রিকা ‘সিডনি



বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল দেশের উচিত মহাপবিত্র মি’রাজ শরীফ উপলক্ষে বাধ্যতামূলক ছুটি ঘোষণা করা


হযরত নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, হযরত রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, নরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সীমাহীন বেমেছাল সুমহান শানসমূহ উনাদের মধ্যে একটি অন্যতম বিশেষ শান বা মর্যাদা-মর্তবা মুবারক হচ্ছেন পবিত্র মি’রাজ শরীফ। যা বিশ্বাস



পবিত্র যাকাত আদায়ের বিষয়ে চু-চেরা করা ঈমানদারের লক্ষণ নয়


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মাঝে একটি ঘটনা বর্ণিত আছে। ঘটনাটি পর্দার হুকুম নাযিল হওয়ার পূর্বের ঘটনা। যখন মহিলা ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নছীহত মুবারক শুনতে সরাসরি আসতেন। সেই সময়



পবিত্র লাইলাতুল মি’রাজ শরীফ উনার সুমহান সম্মানার্থে মুসলমানদের জন্য করণীয়


আরবী মাস উনার মধ্যে অন্যতম সম্মানিত মাস হলো পবিত্র মাহে রজবুল হারাম বা রজব মাস। এই পবিত্র রজবুল হারাম মাস উনার ২৭ তারিখ রাত্রে সংঘটিত হয় পবিত্র মি’রাজ শরীফ। এই সম্মনিত লাইলাতুল মি’রাজ শরীফ হলো যিনি মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল,



বিধর্মী লেখকের স্বীকারোক্তি: শিশুকাল থেকেই তারা শিক্ষা দেয় যে, মুসলমানরা তাদের শত্রু


রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি উনার মজলিস মুবারকে নিয়মিত একখানি নছীহত মুবারক করে থাকেন। তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, কাফিররা তাদের শিশুসন্তানদেরকে প্রথমেই যে শিক্ষাটি দিয়ে থাকে, তাহলো মুসলমানরা তাদের শত্রু। নাউযুবিল্লাহ! কিন্তু কোনো মুসলমানকে কি দেখানো



বেপর্দার কুফল: সমাজে ব্যাপকহারে বাড়ছে বিবাহ বিচ্ছেদ


বিবাহবিচ্ছেদ বৃদ্ধির পেছনে কথিত সমাজবিদ, নারীবাদীরা যে যে-ই কারণই উল্লেখ করুক, এর পেছনে প্রধানতম কারণ হচ্ছে সম্মানিত দ্বীন ইসলামে ফরয (বাধ্যতামূলক) নির্দেশিত পর্দা। বেপর্দা হওয়ার কারণেই একজন মহিলা পরপুরুষের সাথে খোলামেলা আলাপচারিতা কিংবা অবৈধ সম্পর্ক করার সুযোগ পায়। আর পর্দা লঙ্ঘন



পর্দা করা কোন সরকারী নিয়ম নয়, এটা মহান আল্লাহ পাক উনার মুবারক বিধান


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) আপনি ঈমানদার নারীগণকে বলুন, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে নত রাখে এবং তাদের ইজ্জত ও আবরু হিফাজত করে। তারা যেন তাদের সৌন্দর্য প্রদর্শন না করে। তবে চলাচলের কারণে



আজ পবিত্র রজবুল হারাম শরীফ উনার ১লা জুমুয়াহ উনার রাত। অর্থাৎ মহাপবিত্র লাইলাতুর রগায়িব শরীফ উনার রাত


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘মহান আল্লাহ পাক উনার নিদর্শন সম্বলিত দিবসগুলিকে স্মরণ করিয়ে দিন সমস্ত কায়িনাতকে। নিশ্চয়ই এর মধ্যে ধৈর্যশীল ও শোকরগোজার বান্দা-বান্দীদের জন্য ইবরত ও নছীহত রয়েছে।’ সুবহানাল্লাহ! আজ রাতটিই পবিত্র রজবুল হারাম শরীফ উনার ১লা জুমুয়াহ



পবিত্র যাকাত সংশ্লিষ্ট মাসয়ালা-মাসায়িল সমূহের বিবরণ


পবিত্র যাকাত উনার নিছাব কাকে বলে: যে পরিমাণ অর্থ-সম্পদ বা নগদ অর্থ কোন ব্যক্তির সাংসারিক সকল মৌলিক প্রয়োজন বা চাহিদা মিটানোর পর অতিরিক্ত সম্পদ যা সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণ অথবা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রৌপ্য অথবা ঐ সমপরিমাণ অর্থ-সম্পদ নির্দিষ্ট তারিখে পূর্ণ



মাহে রজবুল হারাম উনার আইয়্যামুল্লাহ শরীফসমূহ:


১ রজবুল হারাম: ক) আবু রসূলিনা ও উম্মু রসূলিনা আলাইহিমাস সালাম উনাদের নিসবতে আযীমাহ শরীফ দিবস। খ) তারিখ হিসেবে লাইলাতুর রগায়িব শরীফ। গ) সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল খ¦মিস মিন আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস।



পবিত্র যাকাত সংশ্লিষ্ট মাসয়ালা-মাসায়িল সমূহের বিবরণ


পবিত্র যাকাত উনার নিছাব কাকে বলে: যে পরিমাণ অর্থ-সম্পদ বা নগদ অর্থ কোন ব্যক্তির সাংসারিক সকল মৌলিক প্রয়োজন বা চাহিদা মিটানোর পর অতিরিক্ত সম্পদ যা সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণ অথবা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রৌপ্য অথবা ঐ সমপরিমাণ অর্থ-সম্পদ নির্দিষ্ট তারিখে পূর্ণ