সাইয়্যিদ মুহম্মদ আব্দুল্লাহ বিন হামিদ ( অপূর্ব ) -blog


Only Ahle Sunnat Waal Jamaat Is The Right Way.....


 


মুসলমানরা যদি সঠিক জায়গায় যাকাত আদায় করেন, তাহলে উনারা পবিত্র ইছলাহ ও শান্তি লাভ করবেন!


সম্মানিত ইসলাম উনার পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে তৃতীয় স্তম্ভ হচ্ছেন পবিত্র যাকাত। পবিত্র যাকাত আর্থিক ইবাদতসমূহের মধ্যে অন্যতম। প্রত্যেক ধনী মুসলমানদের উপর পবিত্র যাকাত আদায় করা ফরয। পবিত্র যাকাত শব্দটি আরবী। উনার অর্থ পবিত্রতা বা বৃদ্ধি। সম্মানিত শরীয়ত উনার পরিভাষায় যাকাত হল



অনেকে বলে থাকে অমুক হুযুর বলে এটা সঠিক, তমুক হুযুর বলে ঐটা সঠিক! আমরা কার কাছে যামু!?


অনেকে বলে থাকে অমুক হুযুর বলে এটা সঠিক, তমুক হুযুর বলে ঐটা সঠিক! আমরা কার কাছে যামু!? আচ্ছা ভাই! অসুখ বিসুখ হলেও তো ডাক্তারের কাছে যান! তাইনা!? তখনতো এত বিতর্ক আর অনেকের পরামর্শের পরও ভালো ডাক্তার ঠিকই খুজে বের করেন! কেউ



ভারতীয় টিভি চ্যানেলগুলোই সম্ভ্রমহরণসহ তরুণ প্রজন্ম ধ্বংসের প্রধান কারণ!


সংস্কৃতি একটি দেশ ও জাতির পরিচয় বহন করে। ৯৭ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত আমাদের বাংলাদেশ সারা বিশ্বের বুকে ইসলামী দেশ হিসেবে তারকার মতো জ্বাজল্যমান। কিন্তু অতি দুঃখের বিষয় যে, এমন একটি মুসলিম দেশে (জাতিগতভাবে মুসলমানদের দ্বিতীয় প্রধান শত্রু) বিধর্মীদের অপসংস্কৃতিতে ছেয়ে গেছে।



ব্রিটিশরা বুঝলো, ভারতীয় চাটুকারেরা বুঝলো, পাকী হানাদাররাও বুঝলো। কিন্তু বাঙালি মুসলমানরাই বুঝলো না!


বর্তমানে এদেশের মানুষেরা ইউরোপ-আমেরিকায় যেতে চায়। কারণ তারা ইউরোপ-আমেরিকাকে ধনী মনে করে, আর বাংলাদেশকে মনে করে গরিব। কিন্তু মাত্র কয়েকশ বছর আগেও ইউরোপীয়রা মরিয়া হয়ে উঠেছিলো ভারতে আসতে। কারণ মুসলিমশাসিত ভারতবর্ষই তখন ছিল বিশ্বের সবচেয়ে ধনী অঞ্চল। আর এই ভারতবর্ষের সবচেয়ে



মহান আল্লাহ পাক উনার যারা ওলী উনাদের বিরোধিতাকারীরা মুসলমানের অন্তর্ভুক্ত নয়!


‘ওলীআল্লাহ’ অর্থ খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার বন্ধু, অভিভাবক, প্রতিনিধি। যিনি প্রকৃত ওলীআল্লাহ তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ-নিষেধ অনুযায়ী চলে থাকেন। সম্মানিত শরীয়ত ও পবিত্র সুন্নত মুবারক উনাদের পরিপূর্ণ পাবন্দ। তিনি মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টিপ্রাপ্ত ও প্রিয়



হক্কানী রব্বানী আলিম উনাদের ও উলামায়ে ‘সু’দের- পরিচয় হক্কানী রব্বানী আলিম উনাদের ও উলামায়ে ‘সু’দের- পরিচয় (দলিলভিত্তিক পোস্ট)


*ان شر الشير شرار العلماء وان خير الخيرالخير خيار العماء. অর্থঃ- “নিশ্চয়ই সর্বনিকৃষ্ট জীব হলো- উলামায়ে ‘ছূ’ বা দুনিয়াদার আলিম আর সর্বোৎকৃষ্ট হলেন উলামায়ে হক্ব। *اللّهُ وَلِيُّ الَّذِينَ آمَنُواْ يُخْرِجُهُم مِّنَ الظُّلُمَاتِ إِلَى النُّوُرِ . অর্থঃ- “আল্লাহ্ পাক মু’মিনদের (আল্লাহ্ওয়ালা) অভিভাবক।



সুমহান ৯ই রমাদ্বান শরীফ ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীম শরীফ (সোমবার)-এ মহান আল্লাহ পাক উনার কুদরত মুবারক উনার অনুপম বহিঃপ্রকাশ!


প্রাণের আক্বা খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতুল রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, কুতুবুল আলম, মুহ্ইউস সুন্নাহ, সুলত্বানুল আউলিয়া সাইয়্যিদুনা হযরত মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার আওলাদ, উনার নূরে চশম, লখতে জিগার, ওলীয়ে মাদারযাদ, ছাহিবুল খাইর, মুত্বহিরুল আ’যীম, নূরে মুকাররম, শামসে ইলাহী, মাহবুবে ইলাহী, নূরে রহমানী, ছাহিবে



সাইয়্যিদুনা হযরত খলীফাতুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি ওলীআল্লাহগণ উনাদের সমস্ত ছিফতগুলোর পরিপূর্ণ হিফাজতকারী। সুবহানাল্লাহ!


সাইয়্যিদুনা হযরত খলীফাতুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি ওলীআল্লাহগণ উনাদের সমস্ত ছিফতগুলোর পরিপূর্ণ হিফাজতকারী। সুবহানাল্লাহ! হযরত আউলিয়ায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাাইহিম উনাদের বিশেষ খুছুছিয়ত মবারক হলো; উনারা প্রথমত, যাহিদ বা দুনিয়া বিরাগী। ২, রগীব বা দায়িমীভাবে আখিরাতমুখী। ৩, নিজের আমল সম্পর্কে সর্বদা সজাগ



মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত ১২জন মহান খলীফা আলাইহিমুস সালাম উনাদের মধ্য থেকে অন্যতম একজন আখাচ্ছুল খাছ বিশেষ


মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- عَنْ حَضْرَتْ جَابِرِ بْنِ سَـمُرَةَ رَضِىَ اللهُ تَعَالـٰی عَنْهُ قَالَ سَـمِعْتُ رَسُوْلَ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُوْلُ لَا يَزَالُ الْاِسْلَامُ عَزِيْزًا اِلَى اثْنَىْ عَشَرَ خَلِيْفَةً كُلُّهُمْ مّـِنْ قُرَيْشٍ وَفِىْ رِوَايَةٍ



খলীফাতুল উমাম আল মানছূর আলাইহি সালাম উনার মুবারক আলোচনা মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কুরআন শরীফ, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ


মহান আল্লাহ পাক তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন- وَبَعَثْنَا مِنْهُمُ اثْنَيْ عَشَرَ نَقِيْبًا অর্থ: “আর আমি তাদের মাঝে ১২ জন নক্বীব তথা খলীফা প্রেরণ করেছি।” (সম্মানিত সূরা মায়িদা শরীফ : সম্মানিত আয়াত শরীফ- ১২) এই



খলীফাতুল উমাম হযরত আল মানছূর আলাইহিস সালাম উনাকে মুহব্বত করা ব্যতীত কেউ কস্মিনকালেও ঈমানদার হতে পারবে না!


মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, عَنْ حَضْرَتْ اَبِـىْ لَيْلـٰى رَضِىَ اللهُ تَعَالـٰى عَنْهُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَا يُؤْمِنُ عَبْدٌ حَتّٰى اَكُوْنَ اَحَبَّ اِلَيْهِ مِنْ نَفْسِهٖ وَاَهْلِـىْ اَحَبَّ اِلَيْهِ مِنْ اَهْلِهٖ وَعِتْرَتِـىْ



খলীফাতুল উমাম হযরত আল মানছূর আলাইহি সালাম!


মহান আল্লাহ পাক তিনি মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, وَبَعَثْنَا مِنْهُمُ اثْنَيْ عَشَرَ نَقِيْبًا অর্থ: “আর আমি তাদের মাঝে ১২ জন নক্বীব তথা খলীফা প্রেরণ করেছি।” (সম্মানিত ও পবিত্র সূরা মায়িদা শরীফ : সম্মানিত ও পবিত্র