ফারুক -blog


.............


ফারুক
 


শিক্ষানীতির নীতিই যখন প্রশ্নবিদ্ধ: পাঠ্যপুস্তক, নাকি অমুসলিম-বিধর্মীদের ‘প্রশংসা-পুস্তক’?


বেখবর বাংলার কোটি কোটি মুসলমান! মুশরিক ও নাস্তিক-মুরতাদদের প্লানগুলো একে একে বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রশাসনের প্রতিটি স্তরে স্তরে হিন্দুকরণ ও নাস্তিকদের পদায়নের পর এখন এ দেশের স্কুল, কলেজ, মাদরাসাসহ সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাঠ্যপুস্তকগুলোকে সেই নীলনকশা বাস্তবায়নের আয়ত্তে আনা হয়েছে এবং হচ্ছে। ক্লাস ওয়ান



দলিত বিক্ষোভে উত্তাল মহারাষ্ট্র


দলিত বিক্ষোভে উত্তাল ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্য। রাজ্যজুড়ে বিআর অম্বেদকরের নাতি তথা ভারিপ বহুজন মহাসঙ্ঘের প্রধান প্রকাশ অম্বেদকরের ডাকা বন্ধ চলছে। এই বন্ধকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে আগাম ব্যবস্থা হিসেবে বিপুল পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। গতকাল সকাল থেকেই ভারিপ



ইমামুল আউওয়াল সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি পূত-পবিত্র ও অতীব সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম


মহান আল্লাহ পাক তিনি সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনাকে বিশেষ মর্যাদা দিয়েছেন। অর্থাৎ মহান আল্লাহ পাক তিনি সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনাকে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস



অমঙ্গল শোভাযাত্রা: কাট্টা শেরেকী অনুষ্ঠান যা কুসংস্কারে পরিপূর্ণ। হিন্দু দেব-দেবী বাহনের প্রকাশ্য পূজা


অমঙ্গল শোভাযাত্রা হিন্দু জনগোষ্ঠীর ধর্ম ও সংস্কৃতির অংশ। মূলত, দেব-দেবীকে উদ্দেশ্য করে এসব আচার অনুষ্ঠানের মাধ্যমে একটি সংখ্যালঘু গোষ্ঠী কল্যাণ কামনা করে থাকে। হিন্দুদের প্রতিটি দেবতার এক একটি বাহন রয়েছে। সংখ্যালঘু হিন্দু একটি জনগোষ্ঠীর ধর্মীয় বিশ্বাস মোতাবেক- পেঁচা (অ)মঙ্গলের প্রতীক ও



মুসলিমপ্রধান দেশে শিক্ষার পাঠ্যসূচিতে রুচিশীল ও মহাজ্ঞানী সভ্যজন উনাদের জীবনী মুবারক অন্তর্ভুক্ত করা জরুরী


মুসলিমপ্রধান দেশে শিক্ষার পাঠ্যসূচিতে রুচিশীল ও মহাজ্ঞানী সভ্যজন উনাদের তথা হযরত আম্বিয়া আলাইহিমুস সালাম, হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের রহমতপূর্ণ ও বরকতপূর্ণ জীবনী মুবারক অন্তর্ভুক্ত করা জরুরী। মুসলিমপ্রধান বাংলাদেশে শিক্ষা কার্যক্রম তথা পাঠ দান পাঠ্যসূচিতে অবশ্যই রুচিশীল মহাজ্ঞানী, মহামানবগণ উনাদের



বিনতু রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদাতুনা হযরত আন নূরুছ ছানিয়াহ আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত সাওয়ানেহ উমরী মুবারক আলোচনা


সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, اِنَّ ذِكْرَ الصَّالـحِيْنَ تَنْزِلُ الرَّحْمَةُ অর্থ: “নিশ্চয়ই ওলীআল্লাহগণ উনাদের আলোচনা মুবারক করলে সম্মানিত রহমত মুবারক নাযিল হয়।” সুবহানাল্লাহ্!(ইহইয়ায়ে ‘উলূমিদ্দীন, ফাদ্বাইলে আশারাহ লিযামাখশারী, কাশফুল খফা) এখন চিন্তা-ফিকিরে বিষয় যে, যদি ওলীআল্লাহ উনাদের আলোচনা মুবারক



দলিতদেরকে কুকুর বললো ভারতীয় মন্ত্রী


  ভারতে সম্প্রতি দুই দলিত শিশু হত্যার ব্যাপারে এক মন্ত্রী জানিয়েছে, ওই হত্যাকা-ের ব্যাপারে সরকারের কোনো দায়বদ্ধতা নেই। শুধু তাই নয়; ভি.কে সিং নামে ওই মন্ত্রী গতকাল এক বিতর্কিত মন্তব্য করেছে। সে বলেছে, কেউ যদি কুকুরের গায়ে ঢিল ছোড়ে এর জন্য



কেবলমাত্র ইলিশ পরিচর্যার দ্বারা বর্তমান বাজেটের শতগুণ বেশি আয় সম্ভব। সম্ভব লক্ষ লক্ষ কোটি টাকা আয় করা। সে আয়


মৎস্য অধিদপ্তরের হিসাবে দেশের মোট মৎস্য উৎপাদনে ইলিশের অবদান ১১ শতাংশ। ২০১৩-১৪ অর্থবছরের হিসাব অনুযায়ী, বর্তমানে বছরে ইলিশ উৎপাদন হচ্ছে ৩ দশমিক ৮৫ লাখ টন, যার বাজারমূল্য ১৭ হাজার কোটি টাকা। জিডিপি’তে ইলিশের অবদান ১ শতাংশ। পাঁচ লাখ জেলে সরাসরি ইলিশ



ঘাঘড়া লস্কর খান মসজিদ, শেরপুর


মোঘল সম্রাজ্যের প্রায় সোয়া দুইশ’ বছরের পুরনো শেরপুরের ঘঘড়া লস্কর ‘খান বাড়ী’ জামে মসজিদটি আজও দাঁড়িয়ে আছে কালের সাক্ষী হয়ে। স্থাপত্যকলার অনুপম নিদর্শন ঐতিহাসিক এ ‘খান বাড়ী’র মসজিদটি শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতি উপজেলার ঘাগড়া লস্কর গ্রামে অবস্থিত। তাই কালের আবর্তে এ মসজিদের



একমাত্র ইহুদী, মুশরিক আর বিধর্মীরাই ঈদে মীলাদুন নবীর বিরোধিতা করে থাকে


মহান আল্লাহ রব্বুল আলামীন পবিত্র কুরআন শরীফ-এ ইহুদী এবং মুশরিককে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে উল্লেখ করেছেন। ইহুদীদের সর্বাধিক আক্রোশ ছিলো নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি; যে কারণে তারা উনাকে শহীদ পর্যন্ত করার কোশেশ করেছিলো,



বাংলাদেশের জনসংখ্যা আসলে কত?


গত বুধবার ২০ অক্টোবর জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল ‘বিশ্ব জনসংখ্যা পরিস্থিতি প্রতিবেদন ২০১০’-এর তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। এতে বলা হয়, বাংলাদেশের বর্তমান জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৪৪ লাখ ২৫ হাজার। আবার এ বছরের জুলাই মাসে আমেরিকার সেন্ট্রাল ইনটেলিজেন্স এজেন্সির (সিআইএ) ওয়ার্ল্ড ফ্যাক্ট বুকে



সংবিধান পরিবর্তন!


এক সময় কিছু রাজনীতিবিদদের মুখে সর্বদায় খই ফুটত, ‘যদি ৭২’র সংবিধানে ফেরত যাওয়া যায় তবে ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলগুলো নিষিদ্ধ হবে।’ কিন্তু সরকার সংবিধান পরিবর্তন করলেও দেখা যাচ্ছে, ধর্মভিত্তিক রাজনীতি চালু রাখার ঘোষণা দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী। তাহলে কি আমরা বুঝব যে, সংবিধান পরিবর্তনটা