গোলামে আক্বা -blog


অতি সাধারণ একজন গোলাম !


 


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে দায়িমীভাবে ছানা-ছিফত বা প্রশংসা মুবারক করার পদ্ধতি


কোন পদ্ধতি বা নিয়মে মহান আল্লাহ পাক উনার শ্রেষ্ঠতম রসূল, সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সুমহান শানে দায়িমীভাবে ছানা-ছিফত মুবারক করতে হবে সে ব্যাপারে কাউকে কোনরূপ চিন্তা-ফিকির করার কোনই প্রয়োজন



বিধর্মী-মূর্তিপূজারীদের নামগুলো কি মানুষের নামের মতো শোনায়?


বিধর্মী-মূর্তিপূজারীপন্থী নাস্তিকগুলো মুসলমান বাঙালিদের নাম নিয়ে মাঝে মাঝে অপপ্রচার করে। তারা হিংসায় মরে যে, কেন মুসলমানরা আরবী-ফারসী নাম রাখে? জবাবে শুরুতে বলতে চাই, ‘বাঙালি নাম’ বলতে বিধর্মী-মূর্তিপূজারীরা যা বোঝায়, সেগুলো মূলত অর্ধ-তৎসম নাম। যেমন বৈষ্ণব থেকে বোষ্টম, কৃষ্ণ থেকে কেষ্ট এগুলো



ক্বায়িম-মাক্বামে হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম, সাইয়্যিদাতুন নিসা, মুতহ্হারাহ্, মুতহ্হিরাহ্, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার মহাসম্মানিত ও


সাইয়্যিদাতুন নিসা, মুতহ্হারাহ্, মুতহ্হিরাহ, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম উনার নছীহত মুবারক থেকে আমরা যা বুঝতে পেরেছি তা যথাযথভাবে তুলে ধরার কোশেশ করছিÑ সাইয়্যিদাতুন নিসা, মুতহ্হারাহ্, মুতহ্হিরাহ, সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল উমাম আলাইহাস সালাম তিনি বলেন, মহান আল্লাহ পাক তিনি শূরা



পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনকারী উনাদেরকে স্বয়ং নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনিই শাফায়াত মুবারক করবেন


পরকালে মানুষের মুক্তিতে শাফায়াত বা সুপারিশ করবে কে? হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম উনারা ব্যতিত আর কেউ কি মানুষের জন্য সুপারিশ করতে পারবে? শাফায়াতের একচ্ছত্র ক্ষমতাই বা কার? এককথায় মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টিপ্রাপ্ত বান্দাগণ উনারাই শাফায়াতপ্রাপ্ত এবং শাফায়াত করার অনুমতি প্রাপ্ত।



সমাজে অপরাধের সংখ্যা বৃদ্ধি: ৯৮ ভাগ মুসলমানের এদেশে অন্য কিছু নয় একমাত্র পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ


চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ সব ধরনের অপরাধ বেড়েছে। উদ্বেগজনকভাবে। রীতিমতো জ্যামিতিক হারে। বেড়েছে শিশু ও নারী অপহরণ। কয়েক বছর ধরেই সম্ভ্রমহরণের ঘটনা বেড়েছে। একথা ঠিক যে, গণতান্ত্রিক ব্যবস্থায় সব অপরাধ নির্মূল করা যাবে না। তবে কমানো যাবে। কিন্তু চুরি, ডাকাতি, খুন, দুর্নীতি



হে পিতা-মাতা! আপনার সন্তান পাঠ্যবই থেকে কি শিখছে?


আপনিতো খুব করে ভাবছেন আপনার সন্তান স্কুল-কলেজে গিয়ে খুব করে পড়াশুনা করে অনেক বড় কিছু হবে। কিন্তু আপনি কি ভেবে দেখেছেন আপনার এ সন্তান আপনারই আদর্শ থেকে ছিটকে পড়ছে। আপনি যে দ্বীন-ধর্ম শিক্ষা করে বড় হয়েছেন, যে ঈমান নিয়ে আপনি পিতা-মাতা



পুরুষদের ন্যায় মহিলাদেরও দ্বীনী তা’লীম গ্রহণ করা ফরযে আইনের অন্তর্ভুক্ত


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, “প্রত্যেক মুসলমান পুরুষ-মহিলার জন্য ইলম অর্জন করা ফরয।” বর্তমানে দেখা যায়, দেশে-বিদেশে পুরুষরা বাইয়াত গ্রহণ করে, যিকির-ফিকির করে আমল করে। কিন্তু মেয়েদেরকে কিতাবাদি পড়তে বা যিকির-ফিকির করতে খুব একটা দেখা যায় না। বরং



‘দান করলে সম্পদ কমে না’ এই মহাপবিত্র হাদীছ শরীফ উনার বাস্তব দৃষ্টান্ত


একবার আখিরী রসূল, নুরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার কাছে উনার সম্মানিত দামাদ আমীরুল মু’মিনীন, সাইয়্যিদুনা হযরত যুন নূরাইন আলাইহিস সালাম তিনি এসে আরজি করলেন, ‘ইয়া রাসূলাল্লাহ ইয়া হাবীবাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম; আমাকে আমার সম্পদ কমে



মুসলমানদের মোবাইলে রিংটোন হিসেবে গান-বাদ্য মিউজিক থাকতে পারে না


পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে গান-বাদ্য করা, শ্রবণ করা কিংবা শুনানোর আয়োজন করা সবই কবীরা গুনাহ ও হারাম। বিভিন্নভাবে মুসলিম সমাজে এই হারাম প্রবেশ করেছে। বর্তমানে মোবাইল ব্যবহার করা যোগাযোগের অন্যতম প্রধান পন্থা হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে। সেটাকেই ইহুদী-নাছারা চক্র মোক্ষম



পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালনকারীর জন্য শুভ সংবাদ


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- “হযরত আবু দ্বারদা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণিত আছে যে, একদা তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে হযরত আমির আনছারী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার গৃহে উপস্থিত



মহাসম্মানিত ‘রবীউল আউওয়াল শরীফ’ মাস সন্নিকটে, মুসলমানরা কি এবারও গাফেল থাকবে ?


মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র হাদীছে কুদসী শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আমি যদি আপনাকে সৃষ্টি না করতাম; তবে আসমান-যমীন, লওহ-কলম কোনো কিছুই সৃষ্টি করতাম না।’ সুবহানাল্লাহ! স্বাভাবিক নিয়মে দেখা যায়, একজন মানুষ আরেকজন



সুমহান ও বরকতময় ৭ই পবিত্র ছফর শরীফ।! সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুস সাবি’ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘আমার সেই উম্মতের জন্য আমার শাফায়াত মুবারক ওয়াজিব, যে উম্মত আমার আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে মুহব্বত করেন।’ সুবহানাল্লাহ! সুমহান ও বরকতময় ৭ই পবিত্র ছফর শরীফ। সুবহানাল্লাহ!