হুশনেজন -blog


...


 


ব্লগে কিম্বা ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্যকারীদের এক কোটি টাকা জরিমানা এবং ১০ বছর কারাদণ্ডের বিধান !!!!!!


 আগামী ৩১ মার্চ এ কমিটি ইসলামী চিন্তাবিদ ও আলেমদের সঙ্গে বৈঠক করবে, এর পরপরই ব্লগ কর্তৃপক্ষ বা পরিচালনাকারীদের সঙ্গে বৈঠক হবে বলে জানান তিনি। মাইনউদ্দিন খন্দকার বলেন, ব্লগে আপত্তিকর মন্তব্যকারীদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না। বৈঠকে উপস্থিত কমিটির সদস্যরা বলেন, মডারেশন



মুসলমান শহীদ করার কাফফারা – যুক্তরাজ্যে ভয়াবহ শৈত্য প্রবাহ : ৩ মাসেই ৫০০০ মৃত্য ।


যুক্তরাজ্যে গত পাঁচ দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ শৈত্য প্রবাহ বইছে এবারের শীত মৌসুমে। শীতকাল গিয়ে বসন্ত শুরু হলেও এখনও তীব্রতা কমেনি শীতের। পুরো যুক্তরাজ্যই যেন বরফের দেশে পরিণত হয়েছে। দেশটির আবহাওয়া অফিস বলছে, ১৯৬৪ সালের পর এতো বেশি শীতের প্রকোপে পড়তে



ওহে মজলুম মুসলমান, আর কত মার খাবে ? মাইরা মর ।।


চারিদিকে মুসলমান উনাদের শহীদ করার মিশনে নেমেছে সকল কাফিরের দেশ । বার্মায় সন্ত্রাসী , জালিম বুদ্ধরা আমারো মুসলমান উনাদের শহীদ করে যাচ্ছে । চুপ মুসলিম বিশ্ব , চুপ সকল বিশ্ববিবেক । আর কত জুলুম সইবে ? এবার প্রতিরোধ গড় মুসলমানেরা ।



জামাতীদের গুরু গো’আযমের মাদরাসা শিক্ষার বিরুদ্ধে অপপ্রচার


মওদুদীবাদী জামাত নেতা অধ্যাপক গো’আযম লিখিত ইকামাতে দ্বীন ৪৩, ৪৪ পৃষ্ঠায় লিখেছে, “মাদ্রাসায় উস্তাদগণ ইসলামের যে পরিমাণ শিক্ষা দিচ্ছেন তার চেয়ে বেশি ছাত্ররা কি করে শিখিবে? কিন্তু মাদরাসার যে মেধাবী ছাত্ররা দেশের ইসলামী আন্দোলনকে বুঝতে পারছে তা মাদ্রাসার বাইরের শিক্ষা, অবশ্য



প্রকৃত ইলমে দ্বীন শিক্ষাদানের মাধ্যমেই সর্বপ্রকার দুর্নীতি ও অপরাধ থেকে দেশকে মুক্ত রাখা সম্ভব হবে।


মানুষ দুর্নীতি, নারী টিজিং, মজুদদারিসহ হাজারও অপকর্মে লিপ্ত হওয়ার একটি অন্যতম কারণ হচ্ছে পবিত্র ইসলামী শিক্ষা উনার অভাব। অর্থাৎ পবিত্র দ্বীনি ইলম বা দ্বীনি ইসলামী শিক্ষা না থাকার কারণে মানুষ এসব অপকর্মে লিপ্ত হচ্ছে। কেননা দুর্নীতি, নারী টিজিং, মজুদদারির ভয়াবহ পরিণতি



‘ড্রোন হামলা নির্দোষ মানুষদের হত্যা করছে’ ।


কৃষকদের একটি দল নিত্য দিনের মতো কাজ করতে মাঠে যাচ্ছেন। হঠাৎ আকাশ থেকে তাদের লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হলো। অনেক দূর আকাশে থাকায় হামলাকারী ড্রোনটি দেখতে পাচ্ছিলেন না তারা যাতে কোথাও আশ্রয় নিতে পারেন। কিন্তু নির্দয় ড্রোনটি দূর থেকেই অব্যাহত ক্ষেপণাস্ত্র



বিশ্বব্যাংকের নির্দেশেই বাংলাদেশ রেলওয়েকে বছরের পর বছর অবহেলিত রাখা হয়েছে ও সঙ্কুচিত করা হচ্ছে।


সড়কপথের তুলনায় রেলপথে যাত্রী ও পণ্য পরিবহন একদিকে যেমন সাশ্রয়ী, অন্যদিকে তেমনি বেশি সুবিধাজনক ও নিরাপদ। একটি ট্রেনে গড়ে ৪ হাজার যাত্রী পরিবহন সম্ভব। কিন্তু একটি বাসের পক্ষে ১০০ যাত্রী পরিবহনও সম্ভব নয়। একটি মিটারগেজ মালবাহী ট্রেন যে পরিমাণ পণ্য পরিবহনে



ব্লগে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিদ্বেষী ভয়ঙ্কর প্রচারণার নেপথ্যে…


আশ্চর্যের ব্যাপার হলো- বাংলাদেশের মতো ৯৭ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত একটি দেশে কিছু ওয়েব সাইট এবং ব্লগ সাইট নিয়মিতভাবে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার সম্পর্কে, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এবং খোদ মহান আল্লাহ পাক উনাদের সুমহান শান মুবারক



নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার শান মুবারক-এ ও পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিরুদ্ধবাদীদের কেন


কথিত সামাজিক যোগাযোগ সাইট ফেইসবুক ও বিভিন্ন ব্লগে মহান আল্লাহ পাক উনার ও মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার, পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফসহ সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনাদের বিরুদ্ধে কটূক্তিপূর্ণ লেখালেখির



নাজাতের জন্য আক্বীদাই মূল। সঠিক আক্বীদা ব্যতীত আমলের কোনোই মূল্য নেই।


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি মানুষ জাতি ও জিন জাতিকে সৃষ্টি করেছেন উনার মুহব্বত-মা’রিফাত, সন্তুষ্টি ও নৈকট্য হাছিলের জন্য। এর বিপরীতে উনার অসন্তুষ্টি, লা’নত, আযাব-গযব থেকে পরিত্রাণ লাভের জন্য জিন-ইনসান, বান্দা-বান্দীদের জন্য প্রথমত শর্ত আরোপ করেছেন ঈমানের এবং দ্বিতীয়ত



জামাত-শিবির অনুসারীরা বাচলে কাফির মরলে জাহান্নামি ।


বাতিল ফিরকা মউদুদীর নাপাক অনুসারি জামাত শিবির হারাম কাজকে হালাল মনে কইরা কইরা যখন মারা যায় তখন নাকি এরা শহীদ হয় আর বাচলে নাকি গাজী !!!(নাউযুবিল্লাহ ) তরুন ,যুব প্রজন্মকে এই বলে তারা ব্রেইন ওয়াশ করে ।  যার ফলে দেখা যায়



অস্ট্রেলিয়ায় আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় ‘রাস্টি। ক্ষয়-ক্ষতি নাই !!!!!


অস্ট্রেলিয়ার পশ্চিম উপকূলে আঘাত হেনেছে উষ্ণাঞ্চলীয় ঘূর্ণিঝড় ‘রাস্টি’। দেশটির সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, বুধবার বিকেলে পোর্ট হেডল্যান্ডের পিলবারা অঞ্চলের পারডু উপজাতি এলাকায় আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড়টি। এ সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল উৎপত্তিস্থল থেকে ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৬৫ কিলোমিটার পর্যন্ত। এছাড়া, ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানার সময়