Ahmadur Rahman -blog


...


Ahmadur Rahman
 


মহাসম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনারা মুত্বাহহার এবং মুত্বাহহির তথা পূতঃপবিত্র এবং পবিত্রতা দানকারী


  এ প্রসঙ্গে একটা ওয়াক্বিয়া মুবারক রয়েছে- ““যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি ফিকির করতে ছিলেন যে, হযরত নবী-রসূল আলাইহিমুস সালাম



আজ সুমহান ২৫ শে মুহররমুল হারাম শরীফ!!!


আজ সুমহান ২৫ শে মুহররমুল হারাম শরীফ ইমামুর রবি’ মিন আহলি বাইতি রমূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম যাইনুল আবিদীন আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত বরকতময় বিছালী শান মুবারক প্রকাশ করার তারিখ। সুবহানাল্লাহ! সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম



সম্মানিত নাম মুবারক বুছা (চুম্বন) দেয়ার কারণে দুই শত বছরের গুনাহগার ব্যক্তির যিন্দেগীর সমস্ত গুনাহখতা মাফ এবং জান্নাত হাছিল।


“নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত নাম মুবারকে বুছা (চুম্বন) দেয়ার কারণে বনী ইসরাঈলের দুই শত বছরের গুনাহগার এক ব্যক্তির যিন্দেগীর সমস্ত গুনাহখতা মাফ এবং জান্নাত হাছিল।” “বনী ইসরাঈলে এক ব্যক্তি ছিলো। (সে দুই শত বছর



যামানার তাজদীদী মুখপত্র ‘মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ’ উনার পরিচিতি


‘মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ’ হচ্ছে- আহলে সুন্নত ওয়াল জামায়াত উনাদের ছহীহ আক্বীদা ভিত্তিক একটি মাসিক দ্বীনী তা’লীমী পত্রিকা। এ দ্বীনী পত্রিকাটি যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু



সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুর রবি’ আলাইহিস সালাম উনার কর্তৃক এক খাদিমার গোস্তাখী ক্ষমা এবং আযাদ করা


সম্মানিত কালামুল্লাহ শরীফ উনার একখানা সম্মানিত আয়াত শরীফ শ্রবণে সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুর রবি’ আলাহিস সালাম উনার কর্তৃক এক খাদিমার গোস্তাখী ক্ষমা এবং তাকে আযাদ করে দেয়া। ইমামুর রবি’ মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আলী আওসাত্ব



“উত্তম আখলাক্ব বা উত্তম চরিত্র” মহান আল্লাহ পাক তিনি প্রদত্ত বড় নিয়ামত মুবারক


  মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, وانك لعلي خلق عظيم অর্থ: “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! নিশ্চয়ই আপনি সুমহান চরিত্র মুবারক উনার অধিকারী।” সুবহানাল্লাহ (সম্মানিত সূরা কলম শরীফ : সম্মানিত আয়াত শরীফ ৪) সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার



কামিল শায়েখ বা মুর্শিদ ক্বিবলা উনার সম্মানিত ছোহবত মুবারকে আসার, অবস্থান করার “আদব”


গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি ছাত্র অবস্থায় থাকাকালীন বাগদাদ শরীফ-এ একজন গাউছ রহমতুল্লাহি আলাইহি ছিলেন। যিনি প্রায়শঃই গায়েব বা অদৃশ্য থাকতেন। একবার গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া হযরত বড়পীর ছাহেব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি এবং ইবনুছ ছাক্কাহ ও



মাত্র ১৬ (ষোল) বছর বয়সী একজন সম্মানিত ছাহাবী রদ্বিয়াল্লাহু তায়া’লা আনহু উনার হুসনুল খুলুক্ব বা সচ্চরিত্রতা। যা সমস্ত মুসলমান


মাত্র ১৬ (ষোল) বছর বয়সী একজন সম্মানিত ছাহাবী রদ্বিয়াল্লাহু তায়া’লা আনহু উনার হুসনুল খুলুক্ব বা সচ্চরিত্রতা। যা সমস্ত মুসলমান বিশেষ করে যাদের চারিত্রিক ত্রুটি রয়েছে তাদের জন্য এক মহান ইবরত ও নছীহত। মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, সাইয়্যিদুল



পরিপূর্ণভাবে সুক্ষাতিসুক্ষ পুঙ্খানুপুঙ্খ সুন্নত মুবারক পালন এবং জারি করনে তিনি বেমেছাল, অতুলনীয়, অদ্বিতীয়, কিংবদন্তী, সর্বজনস্বীকৃত ও বিশ্বসমাদৃত অনন্য ব্যক্তিত্ব


“কামিল শায়েখ উনার সর্বশ্রেষ্ঠ কারামত মুবারক হচ্ছেন- সুক্ষাতিসুক্ষ পুঙ্খানুপুঙ্খ সুন্নত মুবারক পালন।” পরিপূর্ণভাবে সুক্ষাতিসুক্ষ পুঙ্খানুপঙ্খ সুন্নত মুবারক পালন এবং জারি করণে যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ



সম্মানিত ইলমে তাসাউফ ব্যতীত হাক্বীক্বী ঈমানদার হওয়া এবং মুহব্বত-মা’রিফত অর্জন করা সম্ভব নয়।


  সমস্ত হাদীছ শরীফ উনাদের মূল “উম্মুল হাদীছ শরীফ” হচ্ছেন- لا يؤمن أحدكم حتى أكون أحبَّ إليه من ولده ووالده والناس أجمعين وفي الرواية الأخرى من ماله ونفسه. অর্থ: নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক



“গোলামের ছেলে গোলাম” সম্মানিত ওয়াক্বিয়া মুবারক


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিইয়্যীন হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের এবং সম্মানিত হযরত আওলাদে রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের প্রতি কতটুকু মুহব্বত মুবারক পোষণ করতে হবে এবং উনাদেরকে



রোহিঙ্গা সহ সারা পৃথিবীব্যাপী অকাতরে মুসলমান শহীদ ও নির্যাতনের প্রতিবাদে সম্মানিত রাজারবাগ শরীফ উনার অবস্থান


ইদানিং রোহিঙ্গা ইস্যুকে কেন্দ্র করে কিছু গন্ডমূর্খ বিরোধী মহল বলতে চায় যে, সম্মানিত রাজারবাগ শরীফ থেকে রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে কি করা হচ্ছে…? এর জবাবে বলতে হয়, ‘পেঁচা কখনো সূর্য দেখতে পায়না, সেজন্য কি সূর্য উদিত হয়না? সূর্য ঠিকই উদিত হয় কিন্তু পেঁচা