Ahmadur Rahman -blog


...


Ahmadur Rahman
 


রোহিঙ্গা সহ সারা পৃথিবীব্যাপী অকাতরে মুসলমান শহীদ ও নির্যাতনের প্রতিবাদে সম্মানিত রাজারবাগ শরীফ উনার অবস্থান


ইদানিং রোহিঙ্গা ইস্যুকে কেন্দ্র করে কিছু গন্ডমূর্খ বিরোধী মহল বলতে চায় যে, সম্মানিত রাজারবাগ শরীফ থেকে রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে কি করা হচ্ছে…? এর জবাবে বলতে হয়, ‘পেঁচা কখনো সূর্য দেখতে পায়না, সেজন্য কি সূর্য উদিত হয়না? সূর্য ঠিকই উদিত হয় কিন্তু পেঁচা



নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত তরফ থেকে পবিত্র কুরবানী করা প্রত্যেক উম্মতের জন্য


পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, عن حضرت حنش رحمة الله عليه قال رآيت عليا يضحى بكبشين فقلت له ما هذا قفال ان رسول الله صلى الله عليه وسلم اوصانى ان اضحى عنه فانا اضحى عنه অর্থ:- “বিশিষ্ট তাবিয়ী হযরত



যারা কামিল শায়েখ উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করা অস্বীকার করে, বিদয়াত- নাযায়িয- হারাম বলে থাকে, তাদের কাছে প্রশ্ন…


১. সম্মানিত হানাফী মাযহাব উনার ইমাম, বিশিষ্ট তাবেয়ী, ইমামে আ’যম হযরত ইমাম আবু হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের ৫ম (পঞ্চম) ইমাম সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম বাকির আলাইহিস সালাম উনার এবং পরবর্তীতে উনার সম্মানিত আওলাদ, সম্মানিত



“ইমামুল জান্নাহ সাইয়্যিদুনা হযরত সাইয়্যিদুল উমাম আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত মুহব্বত মুবারক হচ্ছেন- সম্মানিত ঈমান।”


  সম্মানিত “উম্মুল হাদীছ শরীফ” উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা ততক্ষণ পর্যন্ত ঈমানদার হতে পারবেনা যতক্ষণ পর্যন্ত তোমাদের পিতা-মাতা-পূর্বপুরুষ, সন্তান-সন্ততি-বংশধর, পৃথিবীর সমস্ত মানুষ, নিজের মাল-সম্পদ এবং নিজের জীবন থেকে বেশী



যাদের উপর সম্মানিত কুরবানী ওয়াজিব, তাদের উচিত সম্মানিত কুরবানী আদায় করা। অন্যথায় চরম অসন্তুষ্টিতে পতিত হবে।


যাদের উপর সম্মানিত কুরবানী ওয়াজিব, তাদের উচিত সম্মানিত কুরবানী আদায় করা। অন্যথায় চরম অসন্তুষ্টিতে পতিত হবে। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, فَصَلِّ لِرَبِّكَ وَانْحَرْ অর্থ: “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনার যিনি রব মহান আল্লাহ পাক উনার



জেনে নিন! এক নজরে সম্মানিত কুরবানী আদায় করার ইহকালী ও পরকালীন ফযীলত


এক নজরে সম্মানিত কুরবানী আদায় করার ইহকালীন ও পরকালীন ফযীলত- মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, قُلْ إِنَّ صَلَاتِي وَنُسُكِي وَمَحْيَايَ وَمَمَاتِي لِلَّهِ رَبِّ الْعَالَمِينَ. অর্থ: “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি জানিয়ে দিন, নিশ্চয় আমার সম্মানিত নামায



সম্মানিত কুরবানী উনার ফযীলত- ২


সম্মানিত হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছেন, একদা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সাইয়্যিদাতুন নিসায়ি আহলিল জান্নাহ, উম্মু আবীহা সাইয়্যিদাতুনা হযরত ফাতিমাতুয যাহরা আলাইহাস সালাম উনাকে বললেন, সম্মানিত কুরবানী উনার পশুর প্রত্যেক রক্ত বিন্দুর বিনিময়ে



সম্মানিত কুরবানী উনার ফযীলত- ১


যিনি খ্বালিক যিনি মালিক যিনি রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, فصل لربك وانحر অর্থ: “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনার যিনি রব তায়ালা মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক উনার জন্য নামায আদায় করুন এবং সম্মানতি



সম্মানিত কুরবানী কি? সাইয়্যিদুনা হযরত ইবরাহীম খলীলুল্লাহ আলাইহিস সালাম কর্তৃক উনার প্রিয়তম আওলাদ সাইয়্যিদুনা হযরত ইসমাঈল যবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম


(সাইয়্যিদুনা হযরত খলীলুল্লাহ আলাইহিস সালাম = মহান আল্লাহ পাক উনার নবী সাইয়্যিদুনা হযরত ইবরাহীম খলীলুল্লাহ আলাইহিস সালাম  সাইয়্যিদুনা হযরত যবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম = মহান আল্লাহ পাক নবী সাইয়্যিদুনা হযরত ইসমাঈল যবীহুল্লাহ আলাইহিস সালাম যিনি সাইয়্যিদুনা হযরত ইবরাহীম খলীলুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার



দাঁতভাঙ্গা জওয়াব: ৬। প্রসঙ্গ: “ক্বাইয়্যূমুয যামান লক্বব মুবারক”


সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি হক্ব এবং হক্ব উনার উপর দায়িম ক্বায়িম। সুবহানাল্লাহ!!! যুগের আবু জাহিল, দাজ্জালে কাযযাব, ভন্ড প্রতারক মুনাফিক্ব, আশাদ্দুদ দরজার জাহিল,



দাঁতভাঙ্গা জওয়াব: ৫. প্রসঙ্গ: ‘মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ উনার মধ্যে ভুল’ (নাউযুবিল্লাহ!!!)


সাইয়্যিদে মুজাদ্দিদে আ’যম, আহলু বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি হক্ব এবং হক্ব উনার উপর দায়িম ক্বায়িম। সুবহানাল্লাহ!!! যুগের আবু জাহিল, দাজ্জালে কাযযাব, ভন্ড প্রতারক মুনাফিক্ব, আশাদ্দুদ দরজার জাহিল,



কুৎসা রটনা করার পরিণতি


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- إِنَّ الَّذِينَ يُحِبُّونَ أَن تَشِيعَ الْفَاحِشَةُ فِي الَّذِينَ آمَنُوا لَهُمْ عَذَابٌ أَلِيمٌ فِي الدُّنْيَا وَالْآخِرَةِ وَاللَّهُ يَعْلَمُ وَأَنتُمْ لَا تَعْلَمُونَ. “নিশ্চয় যারা এটা ভালোবাসে যে- ঈমানদারগণ উনাদের সম্বন্ধে কুৎসা রটে যায়, তাদের জন্য দুনিয়া