খোশ নসীব -blog


...


 


‘অমঙ্গল যাত্রা’র কলঙ্কিত ইতিহাসটি জেনে নিন


এক শ্রেণীর সুবিধাভোগী এবং কথিত কু-বুদ্ধিজীবি ‘অপসাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব’ পহেলা বৈশাখের ‘অমঙ্গল যাত্রা’ নিয়ে হৈচৈ শুরু করেছে। পহেলা বৈশাখের অমঙ্গল যাত্রা যেন অঞ্চলের অপসংস্কৃতির মূল। ব্যবসায়িক স্বার্থে ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়াগুলোতে পহেলা বৈশাখে অমঙ্গল যাত্রাকে সংস্কৃতি হিসেবে প্রচার করা হচ্ছে। বেসরকারি টিভি মিডিয়াগুলো ব্যবসায়িক



সুন্নতী বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের ফলে প্রতিবন্ধী, অক্ষম জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাবে


বয়সের সাথে সাথে অনেক শিশুর বড় হওয়াটা চোখে পড়ে না। কারণ ওদের বেড়ে উঠা, আর পাঁচটি শিশুর মতো নয়। চিকিৎসা বিজ্ঞানে এই সমস্যাকে বলে ডাউন সিনড্রোম। অর্থাৎ কাঙ্খিত মাত্রায় বেড়ে না উঠা। ডাউন সিনড্রোম শিশুরা সাধারণত প্রতিবন্ধী শিশু হিসেবে বেঁচে থাকে।



সুমহান বরকতময় মহাপবিত্র ২৬শে যিলহজ্জ শরীফ। সুবহানাল্লাহ! মহাপবিত্র নিসবাতুল আযীম শরীফ সম্পন্ন হওয়ার দিবস


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনারা অন্য কোনো নারীদের মত নন।’ সুবহানাল্লাহ! আজ সুমহান বরকতময় মহাপবিত্র ২৬শে যিলহজ্জ শরীফ। সুবহানাল্লাহ! নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে সাইয়্যিদাতুনা হযরত উম্মুল



তাকবীরে তাশরীক তিনবারই পাঠ করতে হবে- এটাই শরয়ী ফায়সালা


পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার ৯ তারিখ ফজর থেকে ১৩ তারিখ আছর পর্যন্ত প্রত্যেক ফরয নামাযের পর কমপক্ষে ১ বার তাকবীর পাঠ করা ওয়াজিব। আর তিনবার পাঠ করা সুন্নত মুবারক উনার অন্তর্ভুক্ত। কেউ কেউ বলে ‘তাকবীর’ একবার পাঠ করতে হবে; তিনবার



সরকার ভারতের কাছে দেশের স্বার্থ বিলিয়ে দিচ্ছে


বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার ভারতের কাছে দেশের স্বার্থ বিলিয়ে দিচ্ছে। এর বহু উদাহরণের মধ্যে এক নিকৃষ্টতম উদাহরণ হচ্ছে রামপালের কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র তৈরি। সরকার জনগণকে ধোঁকা দিয়ে উক্ত বিদ্যুৎকেন্দ্র তৈরি করে যাচ্ছে। সরকারের উচিত দেশের স্বার্থে, জনগণের কল্যাণে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করার



মুসলমানগণ উনারা কখন পরিপূর্ণভাবে ঈমানদার হতে পারবেন?


মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন- “হযরত আনাস ইবনে মালেক রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার হতে বর্ণিত। তিনি বলেন- সাইয়্যিদুল মুরসালীন,



আলীশান মামদূহর কাননে তাশরীফ শাহানশাহর কাওনাইনে


শাহজাদার বিলাদতে আজ দিল বড় খুশি হয়॥ শাহজাদার আশিকেরা খুশিতে মশগুল রয়॥ আম্মাজীর নূরী কোল জুড়ে  নূরের আগমন হয়॥ আরশে নূরের বর্ষণ জমীনেও সব নূরময়॥ জাহির- বাতিন সবখানে তাঁর- নূরের ঝলক ছেয়ে যায় ॥ হুর মালায়েক বেহেশত হতে- খোশবু রাঙা ফুল