সাকালাইন -blog


দেশপ্রেম ও ইসলামি চেতনায় উজ্জীবিত...


 


‘এক পরিবার এক সন্তান’ ইহুদী-নাছারাদের এক ষড়যন্ত্রের ফাঁদ, এ ফাঁদ থেকে সতর্ক থাকতে হবে!


‘এক পরিবার এক সন্তান’ ইহুদী-নাছারাদের এক ষড়যন্ত্রের ফাঁদ, এ ফাঁদ থেকে সতর্ক থাকতে হবে! সন্তান মহান আল্লাহ পাক উনার একটি বিশেষ নিয়ামত মুবারক। যাদের সন্তান নেই শুধু তারাই এই সত্যটি গভীরভাবে উপলব্ধি করতে পারে। জনসংখ্যা কোনো দেশের জন্যই সমস্যা নয়। রিযিকের



প্রকৃত ইতিহাস কি বলে? কথিত দেবোত্তর সম্পত্তি, নাকি মুসলমানদের লাখেরাজ সম্পত্তি?


লাখেরাজ সম্পত্তি বলা হয় নিষ্কর বা শুল্ক মুক্ত ভূমিকে। মুসলিম শাসন আমলে মুসলিম শাসকগণ কর্তৃক এ অঞ্চলের মুসলিম ছূফী-দরবেশ ও আলিম-উলামা উনাদেরকে প্রশাসনের তরফ থেকে নিষ্কর অর্থাৎ বিনা খাজনায় হাজার হাজার বিঘা সম্পত্তি দেয়া হতো; যাতে করে উনারা নির্বিঘেœ ইসলামী শিক্ষা-দিক্ষার



“আত তাক্বউইমুশ শামসী” নামের অর্থ


আরবীতে اَلتَّقْوِيْـمُ ‘আত তাক্বউইম’ অর্থ বর্ষপঞ্জি আর اَلشَّمْسِ ‘আশ শামস’ অর্থ হচ্ছে ‘সূর্য’ আর দুইয়ে মিলে হয়েছে, اَلتَّقْوِيْـمُ اَلشَّمْسِىٌّ “আত তাক্বউইমুশ শামসী”। অর্থাৎ সৌর বর্ষপঞ্জি। “আত তাক্বউইমুশ শামসী” উদ্ভাবনের উদ্দেশ্য মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক



সন্ত্রাসবাদ নয়; জিহাদী যোগ্যতা অর্জন করা পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ অনুযায়ী ফরয


মুসলমান মাত্রই পবিত্র বিদায় হজ্জ উনার কথায় আগেবতাড়িত হন। পবিত্র বিদায় হজ্জ উনার খুতবায় অনুপ্রাণিত হন। পবিত্র বিদায় হজ্জ উনার খুতবার প্রথমদিকেই বর্ণিত হয়েছে, “আজকের এদিন যেমন পবিত্র, তেমনি প্রতিটি মুসলমানের জান-মাল অনেক পবিত্র।” আপন জান-মাল রক্ষার্থে মুসলমান যে যুদ্ধ করবে,



পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ অস্বীকার করলে কঠিন শাস্তি ভোগ করতে হবে


পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, হযরত ঈসা রূহুল্লাহ আলাইহিস সালাম তিনি দোয়া করেছিলেন, “আয় আল্লাহ পাক! আয় আমাদের রব! আমাদের জন্য আপনি আসমান হতে (বেহেশতী খাদ্যের) খাদ্যসহ একটি খাঞ্চা নাযিল করুন। খাঞ্চা নাযিলের উপলক্ষটি অর্থাৎ খাদ্যসহ খাঞ্চাটি যেদিন



ঢাকা শহরের কারণে দেশের অন্যান্য জেলাগুলো বৈষম্যের শিকার


রাজনীতি, সুনীতি, দুর্নীতি, অপরাজনীতি, বাণিজ্যনীতি, তোষণনীতি, শাসননীতি প্রভৃতি সব কিছুর রাজধানী ও কেন্দ্রভূমি হচ্ছে ঢাকা। সরকারের সব ধরনের প্রশাসনিক চিন্তার কেন্দ্রভূমি হচ্ছে ঢাকা। যেহেতু ঢাকাতেই সরকারের সচিবালয় অবস্থিত। এরকম সব নীতির রাজধানী বা কেন্দ্রভূমি ঢাকা মহানগরীতে হওয়ার কারণে উপকার থেকে অপকার



নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে সম্বোধন মুবারক করার বিষয়ে আহলু বাইতি রসূলিল্লাহ মুজাদ্দিদে আ’যম


যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- وَلَلْاٰخِرَةُ خَيْرٌ لَّكَ مِنَ الْاُوْلـٰى অর্থ: “(আমার মাহবূব হাবীব, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম!) নিশ্চয়ই আপনার পরকাল ইহকাল অপেক্ষা উত্তম।” সুবহানাল্লাহ! (সম্মানিত ও পবিত্র সূরা দ্বুহা



সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ পালন করা মুসলমানদের ঈমানী দায়িত্ব। আর পালন না করলে তার জন্য জবাবদিহি করতে হবে।


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন নাবিইয়ীন, শাফিয়ুল মুজনেবীন, রহমতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম- যিনি সৃষ্টির মূল, যিনি মহান আল্লাহ পাক উনার রুবুবিয়াত প্রকাশের মাধ্যম, যিনি খলীলুল্লাহ হযরত ইবরাহীম আলাইহিস সালাম উনার মুবারক ফখর, যিনি মহান



সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল ‘আশির মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত আওলাদ আলাইহিমুস সালাম এবং মহাসম্মানিতা


কিতাবে বর্ণিত রয়েছে, أما أبو الحسن علي النقي فله من الأبناء ستة অর্থ: “ইমামুল ‘আশির মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, আবুল হাসান সাইয়্যিদুনা হযরত আলী নক্বী আলাইহিস সলাম উনার মহাসম্মানিত আবনা’ (ছেলে) আলাইহিমুস সালাম উনারা ছিলেন মোট ৬



মসজিদ উচ্ছেদ বা ভাঙ্গার ঘোষণাকারীরা ইবলীসের চেলা


মসজিদ শব্দের উৎপত্তি সাজদাহ থেকে এবং পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে মসজিদ সাজদাহ অর্থাৎ সিজদা অর্থেও ব্যবহৃত হয়েছে। যেমন পবিত্র সূরা আ’রাফ শরীফ উনার ২৯নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- قُلْ أَمَرَ رَبِّي بِالْقِسْطِ



বিধর্মীদের সাথে বন্ধুত্ব, মুসলমানগণের সাথে বিরোধিতা!


পৃথিবীর প্রায় প্রতিটি দেশেই লক্ষ্য করলে দেখা যাচ্ছে, মুসলমানগণের ফরয আমল তথা পর্দার বিরোধিতা, পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মানহানি করা, মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মানহানি করা, মুসলমানগণের পবিত্র মসজিদ তৈরিতে



হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের ফাযায়িল-ফযিলত মুবারক


মহান আল্লাহ পাক তিনি নিজেই ইরশাদ মুবারক করেন, وَمَا يَنْطِقُ عَنِ الْـهَوٰى. اِنْ هُوَ اِلَّا وَحْىٌ يُّوْحٰى অর্থ: “নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সম্মানিত ও পবিত্র ওহী মুবারক ব্যতীত কোনো কথা মুবারক বলেন না, কোনো কাজ