কুমিল্লাবাসী -blog


...


কুমিল্লাবাসী
 


অনুসরণীয় চার মাযহাব উনাদের ফতওয়া মুতাবিক সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, রহমাতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্পর্কে, উনার সম্মানিত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম অর্থাৎ উনার সম্মানিত আব্বা-আম্মা আলাইহিমাস সালাম উনাদের সম্পর্কে, উনার সম্মানিতা আওয়াজে মুত্বহহারাত হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সম্পর্কে এবং উনার সম্মানিত আওলাদ



সুন্নত মুবারক উনার অনুসরণ সম্মানিত হিদায়েত লাভের কারণ


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- رِضْوَانٌ مِّنَ اللهِ اَكْبَرُ. অর্থ: “মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারকই সবচেয়ে বড়।” (পবিত্র সূরা তওবা শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ নং ৭২) মহান আল্লাহ পাক তিনি আরো ইরশাদ মুবারক করেন- وَاللهُ وَرَسُوْلُه اَحَقُّ



পবিত্র আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বতকারীগণ সম্মানিত পুলছিরাতে অটল বা স্থির থাকবেন। সুবহানাল্লাহ!


এ প্রসঙ্গে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে- عَنْ حَضْرَتْ عَلِىٍّ عَلَيْهِ السَّلَامُ قَالَ قَالَ رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ اَثْبَتُكُمْ عَلَى الصِّرَاطِ اَشَدُّكُمْ حُبًّا لِاَهْلِ بَيْتِـىْ অর্থ : তোমাদের মধ্যে (কিয়ামতের দিন, মুছীবতের দিন) ঐ ব্যক্তি ই



অল্প বয়সে বিয়ে হলে অনেক সুবিধা (!) কিন্তু অসুবিধা কি ?


  অল্প বয়সে বিয়ে হলে নানান অসুবিধা হয় বলে প্রচার করা হচ্ছে। কিন্তু অল্প বয়সে বিয়ে হলে যে অনেক সুবিধা হয়, সেটার ফিরিস্তি কিন্তু প্রচার করা হয় না। যেমন ধরুন- একটা ছেলে ও একটা মেয়ের অল্প বয়সে বিয়ে হলো। এতে তাদের



নিউ ইয়র্কে ১৪ বছর বয়সে বিয়ে বৈধ! অথচ বাংলাদেশে বাধা !


============================= যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জানাচ্ছে, নিউ ইয়র্কেই ১৪ বছর বয়সী কিশোর বা কিশোরীর বিয়ের বৈধতা রয়েছে। আদালতের নির্দেশনা অনুসারে, ১৪ থেকে ১৮ বছর বয়সী ছেলে বা মেয়ের মা-বাবার সম্মতিতে বিয়ে হতে পারে। ২০০০ থেকে ২০১০ সালের মধ্যে অন্তত



মূর্তি এবং ভাস্কর্যের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই।


প্রাণীর প্রতিকৃতি যেকোনো উদ্দেশ্যে তৈরি করা হোক না কেন, সবই মূর্তির অন্তর্ভুক্ত। মূর্তি এবং ভাস্কর্যের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। যারা মূর্তি এবং ভাস্কর্যের মাঝে পার্থক্য করতে চায়, তারা আশাদ্দুদ দরজার জাহিল ও মূর্খ। দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকারিভাবে অসংখ্য মূর্তি স্থাপনে একদিকে



হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি স্বয়ং নিজেই বাল্যবিবাহ করেছেন। যা মূলতঃ মহান আল্লাহ পাক উনার পবিত্র


কাজেই বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে বলা মানে স্বয়ং মহান আল্লাহ পাক উনার ও উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদেরই বিরুদ্ধে বলা; যা কাট্টা কুফরী। কারণ, বাল্যবিবাহ খাছ সুন্নত মুবারক। অতএব হক্কানী রব্বানী আলিম উলামাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য



‘ভ্যালেন্টাইন ডে’ ঈমান ধ্বংসের একটি পাঁয়তারার নাম


সংবাদ মাধ্যমগুলো খ্রিস্টান, মুশরিকদের অনুষ্ঠানগুলোকে বাংলাদেশেও প্রচার-প্রসারে উঠেপড়ে লেগেছে। কথিত ‘ভ্যালেন্টাইন ডে’ হচ্ছে সে রকম নোংরা অপসংস্কৃতির আরেকটি নাম। এদেশে তথাকথিত ভালোবাসা দিবস প্রচলনকারী হলো- কাট্টা ইসলামবিদ্বেষী ও নাস্তিক ‘যায়যায়দিন’ পত্রিকার প্রাক্তন মালিক শফিক রেহমান। সে ‘যায়যায়দিন পত্রিকার মাধ্যমে ১৯৯৩ সালে



পবিত্র ছলাত বা দুরূদ শরীফ পাঠ করার বেমেছাল ফযীলত ,,,,


পবিত্র দুরূদ শরীফ পাঠ করার ফযীলত সম্পর্কে হযরত আউলিয়া কিরাম রহমতুল্লাহি আলাইহি উনাদের ক্বওল শরীফ: (১) শাইখ আহমদ ইবনে ছাবিত আল মাগরিবী রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি উনার ‘কিতাবুত তাফাক্কুর ওয়াল ইতিবার’ নামক কিতাবে লিখেন, ‘আমি পবিত্র দুরূদ শরীফ পাঠের মাধ্যমে যে সকল



উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার শান-মান, ফাযায়িল-ফযীলত, বুযূর্গী-সম্মান মুবারক এবং সম্মানিত পবিত্রতা মুবারক


বনী মুছত্বলিক্বের জিহাদ থেকে প্রত্যাবর্তনের সময় আফদ্বলুন নিসা বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, উম্মুল মু’মিনীন আছ ছালিছাহ সাইয়্যিদাতুনা হযরত ছিদ্দীক্বা আলাইহাস সালাম উনার সম্মানিত শান মুবারক উনার খিলাফ মিথ্যা অপবাদ রটনা করে মুনাফিক্ব সর্দার উবাই ইবনে সুলূল লা’নাতুল্লাহি আলাইহি এবং



বিশ্ব বেহায়া প্রতিযোগিতায় নারীদেরকে পাঠানোর পদক্ষেপ এক দুঃসহ নব্য জাহিলিয়্যাত


সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের তথ্যমন্ত্রী ইনু ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশ থেকে বিশ্ব সুন্দরী প্রতিযোগিতা তথা বিশ্ব বেহায়া প্রতিযোগিতায় বেহায়া নারীদের পাঠাবে। নাউযুবিল্লাহ! কি হয় সে বিশ্ব বেহায়া প্রতিযোগিতায়? বিশ্ব বেহায়া প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী বেহায়া নারীকে যখন বিশ্ব সুন্দরী বা কোনো দেশের সেরা সুন্দরীর বিরাট



‘র’ ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ৯৮ ভাগ মুসলমানের দেশ বাংলাদেশকে মসজিদশূন্য করতে চাচ্ছে! নাউযুবিল্লাহ! এদেশের মুসলমান কি মুখ বুঁজে থাকবে?


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, لتجدن اشد الناس عداوة للذبن امنوا اليهود والذين اشركوا অর্থ: “তোমরা মানুষের মধ্যে তোমাদের সবচেয়ে বড় শত্রু হিসেবে পাবে প্রথমতঃ ইহুদীদেরকে অতঃপর মুশরিকদেরকে। পবিত্র কুরআন শরীফ উনার দ্বারা অকাট্যভাবে প্রমাণিত হয় যে, মুশরিক অর্থাৎ