মাহাতাব -blog


...


মাহাতাব
 


কার পিছনে নামায পড়া হচ্ছে সে বিষয়টি যাচাই করা সবচেয়ে জরুরি।


জামায়াতে নামায পড়তে হবে সে ব্যাপারে যেরূপ তাগিদ রয়েছে; তার চেয়ে বেশি তাগিদ হচ্ছে কার পিছনে নামায পড়া হচ্ছে সে বিষয়টি যাচাই করা বিনা কারণে স্বেচ্ছায় জামায়াত তরক করা মাকরূহ তাহরীমী; তথা গুনাহে গুনাহগার হওয়া। কেননা জামায়াতে নামায পড়া সুন্নতে মুয়াক্কাদাহ।



আহলান সাহলান, ত্বলায়াল ত্বলায়াল সাইয়্যিদে শাহরুল আ’যম, মহা-পবিত্র শাহে রবীউল আউওয়াল শরীফ “শাহরুল আ’যম ইলাহী রহম খুশির সাগর করে


সুবহানাল্লাহ! কুল-কায়িনাতের বছরব্যাপী অধীর অপেক্ষার অবসান ঘটাতে যাচ্ছেন শাহরুল আ’যম মহাপবিত্র মাহে রবীউল আউওয়াল শরীফ উনার উদ্ভাসিত চন্দ্র মুবারক। দিকে দিকে আনন্দ উৎসব তথা পবিত্র মীলাদ শরীফ, দুরূদ শরীফ, তাছবীহ তাহলীল, মুনা;জাত শরীফ, দান খয়রাত ইত্যাদির ধুম পড়েছে। কারণ, এই মহাসম্মানিত



বর্তমান বিশ্বের একমাত্র আলোর দিশারী হলেন ইমামুল উমাম মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম


আজ পৃথিবীতে অরাজকতা, সন্ত্রাসীপনা, দস্যুপনা, বেলেল্লাপনা, যুলুম, নির্যাতন, রাহাজানি, ছিনতাইসহ মানবতা বিরোধী কু-কর্ম ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়েছে। এমনই এক ভয়ঙ্কর যুগে পৃথিবীতে তাশরীফ নিয়েছেন প্রখর দীপ্তিমান সুমহান সাইয়্যিদী ইমাম আল কুরাইশী আলাইহিস সালাম তিনি। উনার মুবারক রোব শরীফ উনার প্রবল প্রতাপে বাতিল



পৃথিবীবাসী অবাক বিস্ময়ে তাকিয়ে দেখছে বাংলাদেশী মুসলিম বিজ্ঞানীদের অভাবনীয় আবিষ্কার


আওলাদে রসূল, হাবীবুল্লাহ, মুজাদ্দিদে আ’যম রাজারবাগ শরীফ-এর সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার খাছ নেকদৃষ্টি ও মুবারক ফয়েজ-বরকতে বাংলাদেশের বুদ্ধিমান ছেলেদের অভাবনীয় উদ্ভাবন সারা বিশ্ববাসীকে অবাক করেছে। লালমনিরহাটের হাতিবান্ধার মুমতাহিন জিয়ন তিনি উদ্ভাবন করেন পারিবারিক বায়ুবিদ্যুৎ, পা-চালিত বিদ্যুৎ, ঘর



সউদী ওহাবী সরকার ৬৩ বছর ধরে মুসলমানের পবিত্র হজ্জ নষ্ট করে যাচ্ছে


সলমানের ছদ্ম বেশ ধারণ করে সউদী ওহাবী সরকার ৬৩ বছর ধরে মুসলমানের পবিত্র হজ্জ নষ্ট করে যাচ্ছে ।দলীল-প্রমাণ মিলেছে সউদী শাসনকারী বাদশাহদের পূর্বপুরুষ ছিলো ইহুদী। সে সূত্রে বর্তমান সউদী ওহাবী সরকার মুসলমানের ছদ্মবেশ ধারণ করে ইসলামের প্রাণকেন্দ্র মক্কা শরীফ-এ বসে ইহুদী



ছবি ও বেপর্দা বিধর্মীদের অন্যতম ষড়যন্ত্র


মুসলমানদেরকে জাহান্নামী বানানোর ক্ষেত্রে বিধর্মীদের দুটি অন্যতম ষড়যন্ত্র হচ্ছে- ছবি ও বেপর্দা। সলমানদের ঈমান-আমল নষ্ট করে মুসলমানদেরকে জাহান্নামী বানানোর ষড়যন্ত্র হিসেবে কাফির-মুশরিকরা মুসলমান নামধারী মুনাফিক উলামায়ে ছূ ও গুমরাহ শাসকদের মাধ্যমে ছবি ও বেপর্দার প্রচলন ঘটিয়েছে। এমনকি মুসলমানদের ইবাদত-বন্দেগীগুলো যাতে বরবাদ



বেয়াদবের পরিণতি ও তার আলামত


হযরত মাওলানা জালালউদ্দীন রূমী রহমতুল্লাহ আলাইহি তিনি ‘মসনবী শরীফ’ কিতাবে ফার্সিতে উল্লেখ করেন, আমি মহান আল্লাহ পাক উনার নিকট আদব তলব করছি। কারণ বেয়াদব মহান আল্লাহ পাক উনার রহমত (করুণা) থেকে বঞ্চিত। ইলমে তাছাউফের কিতাবে বর্ণিত রয়েছে, “কোনো ব্যক্তি হোক সে



একটি ইহুদী ষড়যন্ত্র হল “www”


বাইবেলের “Book of Revelation” এর ১৩:১৮ তে ৬৬৬-কে the number of beast বলে উল্লেখ করা হয়েছে। এই সংখ্যাকে তারা বিভিন্ন স্থানে ব্যবহার করে যার খবর মুসলমানরা রাখে না। অথচ মুসলমানরাই ইচ্ছা-অনিচ্ছায় তা ব্যবহার করে যাচ্ছে। হিব্রু ভাষার অন্যান্য ভাষার মতো সংখ্যার



“”গরুচোর ভারত””


মিরসরাইয়ে ‘ভারতীয়’ গরুচোর আটক বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড (বিজিবি) মিরসরাইয়ে এক ভারতীয় নাগরিককে আটক করেছে। আটককৃত ভারতীয় নাগরিকের নাম চিং কুমার ত্রিপুরা (২৫)। সে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলার সীতাবাড়ি এলাকার বাসিন্দা। গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তবর্তী উপজেলার ১ নম্বর করেরহাট ইউনিয়নের বদ্ধ ভবানী



সেই দিন নাইরে নাতি, খাবলা খাবলা ছাতু খাতি


ইহুদী রাষ্ট্র ইসরাইল- এটা সকলেরই জানা। ওদের উৎপাদন তেমন কিছুই নেই, তবু বিশ্বের এক শক্তিশালী প্রতিরক্ষা বাহিনীর মালিক ওরা। যখন যা খুশি করে বেড়াচ্ছে। কারণ এই পরগাছার শক্তি যোগায় একদা সা¤্রাজ্যবাদী শক্তি, বর্তমানে ভিক্ষুক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপর পুরা



যদি ছবি তুলে হজ্জ করে তাহলে হজ্জ হবে কি?


মহান আল্লাহ পাক উনার কালাম পাকে ইরশাদ করেন, ‘তোমরা হজ্জ করতে গিয়ে ফাহিশা কাজ, ফাসিকী (হারাম) ও ঝগড়া, ফাসাদ (যুদ্ধ বিগ্রহ) করো না।” (সূরা বাক্বারা) সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাস্্সাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ করেন,



সাবধান !! সাবধান !! সাবধান !!


সউদী সরকার থেকে হাজী সাহেবরা সাবধান! মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন, তারা আপনাকে বাঁকা চাঁদ সম্পর্কে প্রশ্ন করে আপনি বলুন, এটি মানুষের জন্য হজ্জ্বের সময় নিরূপক। চাঁদ দেখে যিলহজ্জ্ব মাসের তারিখ ঠিক না করলে ঈদ, কুরবানী, হজ্জ্ব কোন আমলই শুদ্ধ