মুহম্মদ মাহদিউল ইসলাম -blog


...


 


করোনা কাফিরদের প্রতি একটি খোদায়ী গযব


পবিত্র হাদীছ শরীফে বর্ণিত হয়েছে, “যমীনে সব সময় সাত জন ওলীআল্লাহ থাকেন যাঁদের উছিলায় জ্বীন-ইনসানের সকল প্রাণী রিযিক পেয়ে থাকে।” সুবহানাল্লাহ! করোনা ভাইরাস হলো ইসলামবিদ্বেষী ও মুসলিমবিদ্বেষী চীন থেকে শুরু করে বিশ্বের সকল কাফিরগোষ্ঠীর উপর নাযিল হওয়া অত্যন্ত কঠিন এক গযব।



গান-বাজনা বাদ দিয়ে না’ত শরীফ পাঠ দ্বারা সমস্ত অনুষ্ঠান শুরু করতে হবে


বাংলাদেশ মুসলমানের দেশ। এ দেশে শতকরা ৯৮ ভাগ মানুষ মুসলমান। আর মুসলমানের দ্বীন হচ্ছে পবিত্র ইসলাম। পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “আমাকে প্রেরণ করা হয়েছে



দিল্লীতে মুসলিমবিরোধী দাঙ্গা: মুসলিমদের চোখে এসিড নিক্ষেপ, লাশের পরিচয় গোপন


ভারতের দিল্লীতে ৫ দিন ব্যাপী যে মুসলিমবিরোধী দাঙ্গা চলছে তাতে ব্যাপক আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে মুসলমানরা। নতুন করে বেছে বেছে মসজিদে আগুন দিচ্ছে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা। পাশাপাশি মুসলিম যুবকদের পিটিয়ে হত্যার খবরও পাওয়া যাচ্ছে। গতকাল দিল্লির মুস্তাফাবাদের ব্রিজপুরি এলাকায় আরেকটি মসজিদে আবার হামলা



প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার মানহানী ও কটাক্ষ করে লেখা সমস্ত গ্রন্থ, পুস্তিকা ও পত্র-পত্রিকার লেখক, অনুবাদক,


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমাদের মধ্য থেকে যে বা যারা সম্মানিত দ্বীন ইসলাম থেকে ফিরে যায় অর্থাৎ মুরতাদ হয়ে যায় অতঃপর সে বা তারা কাফির অবস্থায় মারা যাবে। যার ফ্ললে তাদের ইহকালীন ও পরকালীন সব আমলই নষ্ট হয়ে



পার্বত্য এলাকায় সুবিধাভোগী উপজাতিরা, অবহেলিত বাঙালিরা


প্রাচীনকাল থেকে বাংলাদেশ রূপের ভান্ডার। আর এই রূপের কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে পার্বত্য চট্টগ্রাম। এখানে আঁকাবাঁকা পথ দিয়ে যেখানেই যাবেন দেখবেন শুধু সবুজ আর সবুজ। পাহাড়ের উপর দাঁড়িয়ে নিচের পানিধারার দিকে তাকাতেই চোখ জুড়িয়ে যাবে। পাহাড় বেয়ে স্বচ্ছ পানির ঝর্ণাধারার এতো সৌন্দর্য আর



মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানিত শি‘য়ার বা নিদর্শন মুবারকসমূহ!


মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানিত শি‘য়ার বা নিদর্শন মুবারকসমূহ! “শা‘য়ায়িরুল্লাহ” তথা মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানিত শি‘য়ার বা নিদর্শন মুবারক উনাদের সম্মানিত পরিচিতি মুবারক: মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- لَا تُـحِلُّوْا شَعَآئِرَ اللهِ অর্থ: “তোমরা মহান আল্লাহ পাক উনার



চাঁদ দেখা নিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথোপকথন


দর্শক: বাংলাদেশে যেমন ‘মাজলিসু রুইয়াতিল হিলাল (আন্তর্জাতিক)’ নামক চাঁদ দেখা কমিটি এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশনের চাঁদ দেখা কমিটি রয়েছে, সউদীতে কি সেরকম চাঁদ দেখা কমিটি নেই? চাঁদ গবেষক: বাংলাদেশে আছে সরকারি আর বেসরকারি মিলিয়ে ২টি; কিন্তু সউদীতে শুধু সরকারি পর্যায়েই আছে ৬টি



বিশ্বের কুখ্যাত ১০ সন্ত্রাসী দেশের তালিকা


১) আমেরিকা: ইরাক, আফগানিস্তান, লিবিয়া, সিরিয়া, ইয়েমন, পাকিস্তানসহ সারা বিশ্বে কোটি কোটি মুসলমানকে শহীদ করার জন্য দায়ী এ সন্ত্রাসী রাষ্ট্র। ২) ইসরাইল: পরগাছা এ রাষ্ট্রটি তার আশ্রয়দাতা ফিলিস্তিনের উপর দীর্ঘদিন ধরে যুলুম নির্যাতন করে যাচ্ছে, হত্যা করছে অসংখ্য মুসলমানকে। ৩) ভারত:



সম্মানিত ঈমান এর মূল বিষয়


সাইয়্যিদুল আম্বিয়া ওয়াল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, রহমাতুল্লিল আলামীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মুহব্বতই হচ্ছেন সম্মানিত ঈমানর মূল বিষয়। উনার সম্মানিত মুহব্বত ব্যতীত কেউই ঈমানদার বা মু’মিন মুসলমানদের অন্তর্ভুক্ত হবে না। পিতা-মাতা, আহলিয়া বা স্ত্রী, ছেলে-মেয়ে,



মুত্বহ্হার, মুত্বহ্হির, আছ ছমাদ, আফযালুন নাস ওয়ান নিসা’ বা’দা রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, মহাসম্মানিত ও মহাপবিত্র উম্মুল মু’মিনীন


একটি বিষয় খুব ভালোভাবে উপলব্ধি আবশ্যক যে, শুধু যাহিরী বা কিতাবী বর্ণনার দ্বারা সম্মানিত ও পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার প্রতিটি বিষয়ে চূড়ান্ত পর্যায়ের ফায়ছালা দেয়া কস্মিনকালেও সম্ভব নয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রে বিষয়টি এরূপ ঘটে থাকে যে, যাহিরী বা কিতাবী বর্ণনা এক রকম



যে ঘরে বা স্থানে প্রকাশ্যে প্রাণীর ছবি, মূর্তি, ভাস্কর্য, ম্যানিকিন থাকে সেখানে রহমতের ফেরেশ্তা উনারা থাকেন না।


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ‘যে ঘরে বা স্থানে প্রকাশ্যে প্রাণীর ছবি, মূর্তি, ভাস্কর্য, ম্যানিকিন থাকে সেখানে রহমতের ফেরেশ্তা উনারা থাকেন না।’ প্রাণীর প্রতিকৃতি যেকোনো উদ্দেশ্যে তৈরি করা হোক না কেন, সবই মূর্তির



মাতৃভূমির স্বার্থ বিলিয়ে এ কেমন বন্ধুত্ব?


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “স্বদেশের প্রতি মুহব্বত পবিত্র ঈমান উনার অঙ্গ।” বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের স্বার্থের বিষয়ে বিদেশী রাষ্ট্রের সাথে কোনো আপোস করেনি। বাংলাদেশ